মেসিকে লাল কার্ড দেখিয়েছেন এই রেফারি।
মেসিকে লাল কার্ড দেখিয়েছেন এই রেফারি।ফাইল ছবি: রয়টার্স

একভাবে দেখলে, রেফারির কাছ থেকে সাহায্য বেশি পাওয়ার অভিযোগ ইউরোপে যে দুটি দলের বিপক্ষে সবচেয়ে বেশি ওঠে, তারা মুখোমুখি হচ্ছে কাল। মজার ব্যাপার, দুটি দলই আবার রেফারির বিরুদ্ধে কথা বলায়ও বেশ সরব। দলের কোচ-কর্মকর্তা-খেলোয়াড়েরা তো একটু-আধটু বলেনই, দলের সমর্থকেরা এ নিয়ে কতটা সরব, তা আর বলতে!

বাংলাদেশ সময় আগামীকাল রাত ১টায় স্প্যানিশ লিগের ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে দুই দল। এই ম্যাচে রেফারির দায়িত্ব পাওয়া যেকোনো স্প্যানিশ রেফারিরই জীবনবৃত্তান্তে লেখার মতো সবচেয়ে বড় ঘটনা। কিন্তু এই ম্যাচের রেফারির জন্যই হয়তো নিরপেক্ষ দর্শকের সবচেয়ে বেশি মায়া হবে। ম্যাচের আগে, পরে আর ম্যাচের ৯০ মিনিটে—এই ম্যাচের রেফারির ওপরও থাকে ক্যামেরার নজর। স্প্যানিশ ফুটবলের সবচেয়ে বড় ম্যাচ বলে কথা!

এবারের লিগের দ্বিতীয় এল ক্লাসিকোর আরও বাড়তি গুরুত্ব, এটি শিরোপাদৌড়ে দুই দলেরই ভাগ্য ঠিক করে দিতে পারে। আরও নির্দিষ্ট করে বললে রিয়ালের ভাগ্য। এমন ম্যাচের আগেই কিনা দুর্ভাগ্যজনক এক কারণে হলো রেফারিংয়ে বদল।

ম্যাচের ফলাফল কী হয়, সেটির ওপর নির্ভর করে যে বদল আবার ম্যাচ শেষে বড় বিতর্কের কারণও হয়ে উঠতে পারে। তবে সেটি ম্যাচের পরের বিবেচনা, আপাতত আগের রেকর্ড বিবেচনায় রেখে রেফারিংয়ে এই বদলে খুশি হতে পারে রিয়াল মাদ্রিদ। আর মুখ বেজার হবে বার্সেলোনার।

বিজ্ঞাপন
default-image

কী বদল হয়েছে? আগে থেকে ঠিক ছিল, এই ম্যাচে বাঁশি বাজানোর দায়িত্বটা থাকবে স্পেনের রেফারিদের মধ্যে বেশ পরিচিত মুখ মাতেউ লাহোসের। গত বুধবার চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে নেইমার-এমবাপ্পের পিএসজির বিপক্ষে বায়ার্ন মিউনিখের ম্যাচে রেফারির দায়িত্ব পালন করেছেন লাহোস, সেদিন তাঁর পারফরম্যান্স বেশ প্রশংসাও কুড়িয়েছে। কিন্তু সেদিনই দুঃসংবাদ শুনতে হয়েছে স্প্যানিশ রেফারিকে, তিনি পড়েছেন মাংসপেশির চোটে। কী চোট, তা নির্দিষ্ট করে জানা যায়নি। তবে সেই চোটই তাঁকে রিয়াল-বার্সা ম্যাচ থেকে সরিয়ে দিতে যথেষ্ট প্রমাণিত হলো।

স্প্যানিশ দৈনিক মার্কা জানাচ্ছে, চোট পাওয়ায় লাহোসকে এই ম্যাচের রেফারিংয়ের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে স্প্যানিশ ফুটবলের পেশাদার টুর্নামেন্টে রেফারি নিয়োজিত করার দায়িত্বে থাকা কমিটি (সিএসিপি)। সে জায়গায় দায়িত্বটা দেওয়া হয়েছে আরেক রেফারি হেসুস গিল মানসানোকে। আগের সূচি অনুযায়ী এই সপ্তাহে স্প্যানিশ লিগের ম্যাচ থেকে বিশ্রামে থাকার কথা ছিল মানসানোর।

কিন্তু রেফারিংয়ের এই বদলে রিয়ালের খুশি হওয়ার কী আছে? সেটি জানাবে পুরোনো রেকর্ড। প্রথমে এল ক্লাসিকোর রেকর্ড দিয়ে শুরু করা যাক। এর আগে মাত্র একবারই এল ক্লাসিকোতে রেফারিং করেছেন গিল মানসানো। ২০১৪-১৫ মৌসুমে লিগে নবম সপ্তাহে সেবার রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে গিয়েছিল বার্সেলোনা।

default-image

লুইস সুয়ারেজের বার্সেলোনার জার্সিতে অভিষেকের সেই ম্যাচে চার মিনিটে নেইমারের গোলে বার্সা এগিয়ে যায় বটে, কিন্তু দারুণভাবে ফিরে এসে শেষ পর্যন্ত ম্যাচটাতে ৩-১ গোলে জেতে রিয়াল। ২৫ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর গোলে সমতা ফেরে ম্যাচে, তার ঠিক ২৫ মিনিট পর গোল করেন সে সময়ে রিয়ালের মতো পর্তুগাল দলেও রোনালদোর সতীর্থ ডিফেন্ডার পেপে। ৬১ মিনিটে রিয়ালের তৃতীয় গোলটি আসে করিম বেনজেমার পা থেকে।

রোনালদো-পেপে এখন আর রিয়ালে নেই। বার্সায় নেই নেইমার কিংবা সুয়ারেজ। সেদিনের রিয়ালের স্কোয়াডের মধ্যে এখন শুধু আটজন আছেন এখনকার দলে, বার্সার আছেন ছয়জন। এর মধ্যে চোটের কারণে রিয়ালের হয়ে কাল খেলবেন না সের্হিও রামোস ও দানি কারভাহাল, করোনায় আক্রান্ত আরেক ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারান।

সেদিন দলে ছিলেন, কালও মাঠে নামার সম্ভাবনা আছেন, এমন খেলোয়াড়দের মধ্যে আছেন শুধু নাচো, বেনজেমা, ইসকো, টনি ক্রুস ও লুকা মদরিচ। বার্সার ছয়জনের মধ্যে জেরার্ড পিকে ও সের্হি রবার্তোর মাঠে নামা সংশয়ে। খেলার মতো অবস্থায় আছেন মেসি, মার্ক আন্দ্রে টের স্টেগেন, জর্দি আলবা ও সের্হিও বুসকেতস।

বিজ্ঞাপন
default-image

সময় ভিন্ন, খেলোয়াড়ের তালিকা অনেকটাই ভিন্ন, কিন্তু ম্যাচে যুযুধান দুই দল তো একই! সেই দুই দলের মধ্যে ছয় বছর আগে গিল মানসানোর রেফারিংয়ের রেকর্ড রিয়ালকে বাড়তি প্রেরণা জোগানোরই কথা।

প্রেরণা জোগাবে এল ক্লাসিকোর বাইরেও মানসানোর রেফারিংয়ে রিয়াল ও বার্সার পারফরম্যান্সের পরিসংখ্যান। এ পর্যন্ত ক্যারিয়ারে ৩১ বার রিয়াল মাদ্রিদের ম্যাচে রেফারিং করেছেন মানসানো। এর মধ্যে ২৫টিতেই জিতেছে রিয়াল, ড্র ও হার তিনটি করে। আর বার্সা? মানসানো বাঁশি বাজিয়েছেন, এমন ২০ ম্যাচে একটা দলের নাম ছিল বার্সা। তাতে ১১ বার জিতেছে কাতালানরা, ড্র করেছে ৫টি, হেরেছে ৪টি ম্যাচে।

অতীতের সব সময় মিলিয়ে রেকর্ডটাকেও তেমন কিছু মনে হচ্ছে না? সে ক্ষেত্রে আপনার জন্য বিশেষভাবে থাকছে এই মৌসুমে মানসানোর রেফারিংয়ের ম্যাচে দুই দলের পারফরম্যান্স। মৌসুমে লিগে এখন পর্যন্ত রিয়ালের তিনটি ম্যাচে রেফারিং করেছেন মানসানো। এর মধ্যে অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে জিতেছে রিয়াল (যে ম্যাচে বিলবাওয়ের রাউল গার্সিয়াকে লাল কার্ড দেখিয়েছেন মানসানো), ড্র করেছে রিয়াল সোসিয়েদাদের বিপক্ষে, আর তিন পেনাল্টির ম্যাচে হেরেছে ভ্যালেন্সিয়ার মাঠে।

এখানে বার্সেলোনার জন্য আরও হতাশার খবর আছে। এই মৌসুমে লিগে বার্সার একটা ম্যাচেই এর আগে রেফারি ছিলেন মানসানো, সেভিয়ার বিপক্ষে সেই ম্যাচে ১-১ গোলে ড্র করেছে বার্সা। লিগের বাইরে মৌসুমে বার্সার শিরোপা জেতার সম্ভাবনা জাগানো আরেকটি ম্যাচেও রেফারিং করেছেন মানসানো—স্প্যানিশ সুপারকোপার ফাইনাল। বিলবাওয়ের বিপক্ষে ৩-২ গোলে হারের সেই ম্যাচে বার্সার জন্য আরও বড় ধাক্কা হয়ে এসেছিল এটি যে, ম্যাচের শেষ দিকে লাল কার্ড দেখেছিলেন মেসি, বার্সার জার্সিতে, যা আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের প্রথম লাল কার্ড।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন