লা্ওতারো থেকে যাচ্ছেন ইন্টারেই
লা্ওতারো থেকে যাচ্ছেন ইন্টারেইছবি: এএফপি

ইউরোপীয় ফুটবলে শীতকালীন দলবদল চলছে এখন। মাসজুড়ে ক্লাবগুলো পছন্দের খেলোয়াড় কিনে নিজেদের শক্তি বাড়াতে কিংবা দুর্বলতা কাটাতে চাইবে, আবার অপ্রয়োজনীয় খেলোয়াড় ছেড়ে খরচ কমাতে চাইবে। ইউরোপের প্রধান লিগগুলোর দলবদল চলবে চলতি মাসের শেষ দিন পর্যন্ত। এখন তাই হাজারো দলবদলের গুঞ্জনে মুখর ইউরোপীয় ফুটবলপাড়া।

সম্ভাব্য দলবদলের জন্য বাজারে ভাসছে অনেক খেলোয়াড় ও তাঁদের প্রতি আগ্রহী ক্লাবের নাম। সাম্প্রতিক গুঞ্জনগুলো একনজরে দেখে নেওয়া যাক—

সিটি না ইউনাইটেড? কোথায় যাবেন ব্রাজিলের তরুণ?

পালমেইরাসের তরুণ ফরোয়ার্ড গ্যাব্রিয়েল ভেরনকে নিয়ে ম্যানচেস্টার সিটি ও ইউনাইটেডের মধ্যে টানাটানি চলছে বহুদিন ধরেই। এর মধ্যেই পালমেইরাসের সাবেক কিংবদন্তি, বিশ্বকাপজয়ী তারকা রিভালদো পরামর্শ দিয়েছেন এই তরুণকে। জানিয়েছেন, শেষমেশ যদি সিটি আর ইউনাইটেডের মধ্যেই ভেরনকে নিয়ে লড়াই হয়, তাহলে ভেরন যেন সিটিকে বেছে নেন।

নতুন চুক্তির ব্যাপারে আগ্রহী লাওতারো

গত কয়েক মৌসুমেই ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লাওতারো মার্তিনেজের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করেছে বার্সেলোনা ও ম্যানচেস্টার সিটির মতো ক্লাবগুলো। কিন্তু করোনাকালে কেউই ইন্টারের চাহিদা অনুযায়ী লাওতারোর জন্য ১১ কোটি ১০ লাখ পাউন্ড খরচ করতে রাজি হয়নি। ফলে এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার থেকে গেছেন ইন্টারেই। এখন হয়তো বুঝেছেন, এই পরিস্থিতিতে ক্লাব পরিবর্তনের সুযোগ তেমন নেই। তাই ইতালিয়ান ক্লাবটির সঙ্গেই চুক্তি নবায়ন করতে চাইছেন এই তারকা। জানিয়েছেন, ‘চুক্তি নবায়ন করার জন্য আমরা আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি, আমি এখানে বেশ খুশি। এখানকার মানুষও আমাকে অনেক পছন্দ করে। আমার ওপর ক্লাব আর কোচের আস্থা আছে। আমি খুশি এখানে।’

default-image
বিজ্ঞাপন

ইউনাইটেডে যাচ্ছেন রামোস?

রিয়াল মাদ্রিদের অধিনায়ক সের্হিও রামোসের চুক্তি নিয়েও কম কানাঘুষা হচ্ছে না। জুনে শেষ হচ্ছে চুক্তি, অথচ নবায়ন নিয়ে রামোস বা রিয়াল সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ, কেউই ঐকমত্যে আসতে পারেননি। ফলে আগ্রহী ক্লাবের নাম শোনা যাচ্ছে একে একে। মাঝে কিছুদিন শোনা গিয়েছিল পিএসজির নাম। এখন ইংল্যান্ডের সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিরর জানিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের নাম। তাদের মতে, রামোসের ভাই ও মুখপাত্র রেনে রামোস চাইছেন, ৩৪ বছর বয়সী এই ডিফেন্ডার যেন ইংল্যান্ডে যান। রামোসের বেতন দেওয়ার সাধ্য যে কয়েকটা ক্লাবের আছে, তাদের মধ্যে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের নামই সবার আগে আসছে বলে জানা গেছে।

ফরাসি ডিফেন্ডারের প্রতি আগ্রহ লিভারপুলের

দলবদলের শেষ দিনে একজন ডিফেন্ডার আনবে লিভারপুল, এমনটাই শোনা যাচ্ছে। ফলে ফলটার সঙ্গে নিত্যনতুন ডিফেন্ডারের নাম যুক্ত হচ্ছে। এ তালিকায় এবার যোগ হয়েছে ওয়েস্ট হাম ইউনাইটেডের ফরাসি ডিফেন্ডার ইসা দিওপের নাম।

আর্জেন্টাইন তারকার বিকল্প আনছে আতালান্তা?

আতালান্তা কয়েক বছর ধরে আলো ছড়াচ্ছে। আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার আলেহান্দ্রো পাপু গোমেজ ছিলেন এর মূল কুশীলব। কোচ জিয়ান পিয়েরে গাসপেরিনির সঙ্গে মতদ্বৈততার কারণে সেই গোমেজ ক্লাব ছেড়ে স্পেনের সেভিয়ায় পাড়ি জমিয়েছেন ৫৫ লাখ ইউরোর বিনিময়ে। গোমেজের জায়গায় আরও একজন মিডফিল্ডার দলে আনছে আতালান্তা। তিনি শাখতার দোনেৎস্কের ইউক্রেনিয়ান মিডফিল্ডার ভিক্টর কোভালেঙ্কো। আগামী জুনে শাখতারের সঙ্গে চুক্তি শেষ হচ্ছে তাঁর। ফলে এই মিডফিল্ডারকে পেতে খুব বেশি খরচ করতে হচ্ছে না আতালান্তাকে। ১০ লাখ ইউরোতেই পেয়ে যাচ্ছে এই আক্রমণাত্মক মিডফিল্ডারকে।

default-image

এ তো গেল গুঞ্জনের খবর। কিন্তু এ পর্যন্ত কোন কোন খেলোয়াড় দল পরিবর্তন করলেন? লম্বা তালিকাটা একনজরে দেখে নেওয়া যাক—

সম্পাদিত ধার চুক্তি

জেসি লিনগার্ড (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড থেকে ওয়েস্ট হাম)

আদোলফো গাইচ (সিএসকেএ মস্কো থেকে বেনেভেন্তো)

মার্টিন ওডেগার্ড (রিয়াল মাদ্রিদ থেকে আর্সেনাল)

আরকাদিউশ মিলিক (নাপোলি থেকে মার্শেই)

উইলিয়ান জোসে (রিয়াল সোসিয়েদাদ থেকে উলভারহ্যাম্পটন)

ড্যানি ড্রিঙ্কওয়াটার (চেলসি থেকে কাসিমপাসা)

লুকা ইয়োভিচ (রিয়াল মাদ্রিদ থেকে আইনট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্ট)

মুসা দেম্বেলে (অলিম্পিক লিওঁ থেকে আতলেতিকো মাদ্রিদ)

তাকেফুসা কুবো (রিয়াল মাদ্রিদ থেকে হেতাফে)

কার্লেস আলেনিয়া (বার্সেলোনা থেকে হেতাফে)

রাজ্জা নাইনগোলান (ইন্টার মিলান থেকে ক্যালিয়ারি)

বিজ্ঞাপন

সম্পাদিত পূর্ণাঙ্গ চুক্তি

জেরার্ড ডেলোফেউ (ওয়াটফোর্ড থেকে উদিনেসে, ১৫ মিলিয়ন পাউন্ড)

স্টেফান এল শারাউয়ি (সাংহাই শেনহুয়া থেকে রোমা, ফ্রি)

হাল্ক (সাংহাই শেনহুয়া থেকে আতলেতিকো মিনেইরো, ফ্রি)

মাতেও মুসাক্কিও (এসি মিলান থেকে লাৎসিও, ফ্রি)

পাপু গোমেজ (আতালান্তা থেকে সেভিয়া, ৪.৫ মিলিয়ন পাউন্ড)

সকরাতিস পাপাস্থাতোপোলোস (আর্সেনাল থেকে অলিম্পিয়াকোস, ফ্রি)

ক্লাস-ইয়ান হুন্টেলার (আয়াক্স থেকে শালকে, ফ্রি)

জ্যাক উইলশেয়ার (ওয়েস্ট হাম থেকে বোর্নমাউথ, ফ্রি)

ক্রেপিন দিয়াত্তা (ক্লাব ব্রুজেস থেকে মোনাকো, ১১.৭ মিলিয়ন পাউন্ড)

মেসুত ওজিল (আর্সেনাল থেকে ফেনেরবাচে, ফ্রি)

সেবাস্তিয়েন আলের (ওয়েস্ট হাম থেকে আয়াক্স, ২০ মিলিয়ন পাউন্ড)

আমাদ দিয়ালো (আতালান্তা থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ১৮.৭ মিলিয়ন পাউন্ড)

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন