বিদায় বলে রিয়ালে ফিরছেন 'সন্ত'

বিজ্ঞাপন
default-image

‘ইকার ক্যাসিয়াসের স্থান রিয়াল মাদ্রিদের হৃদয়ে এবং আজীবন এখানেই থাকবেন।’

আজই আনুষ্ঠানিকভাবে পেশাদার ফুটবল থেকে অবসর নিয়েছেন ক্যাসিয়াস। তাঁর বিদায়ে রিয়াল মাদ্রিদের দেওয়া বিশাল বিবৃতির একদম শেষভাগে লেখা এই বাক্যটাই লস ব্লাঙ্কো ও ক্যাসিয়াসের মধ্যকার সম্পর্কের সবচেয়ে সুন্দর ব্যাখ্যা দেওয়া হলো। রিয়ালের সবার প্রিয় ‘সন্ত’ আজ আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁর গ্লাভস জোড়া তুলে রাখলেন।

মৌসুমের শুরুতেই জানা ছিল, এ দিন আসবে। পেশাদার ফুটবলার হিসেবে ইকার ক্যাসিয়াসের ক্যারিয়ারের শেষের শুরু গত মৌসুমেই হয়েছে। মৌসুমের শেষদিকে গত মে মাসে হঠাৎ হার্ট অ্যাটাক হয়। এরপর পোর্তোর সঙ্গে চুক্তির সমাপ্তি না টানলেও আর কখনো তাঁর মাঠে না নামার ব্যাপারে কারও সন্দেহ ছিল না। আজ সেটাই একটু আনুষ্ঠানিকভাবে জানালেন ক্যাসিয়াস। নিজের টুইটার পেজে সবাইকে জানিয়ে দিলেন নিজের বিদায় বার্তা।

অর্জনের খাতায় অপূর্ণতা নেই কোনো। পাঁচবার লা লিগা জিতেছেন, তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগও। কোপা দেল রে, সুপার কাপ, ক্লাব বিশ্বকাপ—বাদ নেই কিছু। রিয়াল মাদ্রিদ থেকে অপ্রীতিকর পরিস্থিতিতে বিদায় নিলেও এফসি পোর্তোর জার্সিতে আবার নিজেকে চিনিয়েছেন, জিতেছেন প্রিমেরা লিগা। আর স্পেনের হয়ে করে দেখিয়েছেন অবিশ্বাস্য কিছু। প্রথম কোনো দল হিসেবে তিনটি বড় শিরোপা—ইউরো, বিশ্বকাপ ও ইউরো টানা জিতেছে স্পেন। সে দলের অধিনায়ক ছিলেন এই ক্যাসিয়াস। কিন্তু বিদায় বেলায় টুইটারে ‘সন্ত’ ক্যাসিয়াসের মুখে শুধুই সবার কাছ থেকে পাওয়া ভালোবাসার কথা, ‘জীবনে কোন পথে হেঁটেছি আর সে পথে কাদের সঙ্গী পেয়েছি এটাই গুরুত্বপূর্ণ। পথের শেষে কী পেলাম সেটা নয়। কারণ চেষ্টা ও পরিশ্রম ঠিকই সেটা এনে দেয়। আমার ধারণা, কোনো সন্দেহ ছাড়া আমি বলতে পারি, যে পথে হেঁটেছি আর যা পেয়েছি দুটোই ছিল স্বপ্নের মতো।’

পুরো মৌসুম খেলতে পারেননি। আগেই বলে রেখেছিলেন, এই চুক্তি শেষ হয়ে গেলেই বিদায় নেবেন। মৌসুম জুলাইয়েই শেষ হয়েছে। কিন্তু দুই বছর পর লিগ জেতার সময়টায় ঠিকই ক্যাসিয়াসকে পডিয়ামে ডেকে নিয়ে ট্রফি হাতে তুলে দিয়েছিল পোর্তো। বিদায়বেলায়ও ক্যাসিয়াসকে ভালোবাসা জানাল পর্তুগিজ ক্লাব, ‘ধন্যবাদ ইকার ক্যাসিয়াস। আজীবন আমাদের একজন বলেই ভাবব আপনাকে।’

পাঁচ মৌসুমেই ক্যাসিয়াসকে যদি নিজেদের আপন বলে ভেবে নিতে পারে পোর্তো, রিয়াল মাদ্রিদের টানটা তো আরও বেশি। ২০১৫ সালে তাঁকে যেভাবে বিদায় জানিয়েছিল ক্লাব সেটা হৃদয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়েছিল ক্লাব সমর্থকদের। তবু রিয়ালের প্রতি ভালোবাসা কমেনি ক্যাসিয়াসের। ৯ বছর বয়সে যে ক্লাবে যোগ দিয়েছিলেন, ৩৮ বছর বয়সে অবসরের পর সেই ক্লাবেই ফিরছেন। ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের পরামর্শক হিসেবে ক্লাবে যোগ দিচ্ছেন। যে ভূমিকায় এক সময় দেখা গিয়েছিল জিনেদিন জিদানকেও।

default-image

তাঁর বিদায়ে রিয়ালের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘একজন পেশাদার ফুটবলার হিসেবে ক্যাসিয়াসের অবসরের ঘোষণার পর আমাদের ক্লাব ও বিশ্ব ফুটবলেরই অন্যতম সেরা এক কিংবদন্তির প্রশংসা, শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানাতে চায় রিয়াল। রিয়াল মাদ্রিদ ও স্পেনের সর্বকালের সেরা গোলরক্ষক আমাদের ঘরে এসেছিলেন ৯ বছর বয়সে। ২৫ বছর ধরে আমাদের জার্সি গায়ে চাপিয়েছেন, আমাদের সর্বকালের সেরা অধিনায়কদের একজন হয়েছেন। রিয়াল মাদ্রিদের ভালোবাসা পেয়েছেন এবং রিয়াল যেভাবে নিজেদের দেখতে চায়, সেটার সেরা উদাহরণ ক্যাসিয়াস। আমাদের ১১৮ বছরের ইতিহাসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এক খেলোয়াড়, যাকে আমরা ভালোবাসি, যাকে দেখে আমরা মুগ্ধ হই, এমন এক গোলরক্ষক যিনি তাঁর কাজ ও আচরণ দিয়ে রিয়াল মাদ্রিদের ইতিহাসকে সমৃদ্ধ করেছেন পেশাদার ফুটবলার হিসেবে বিদায় নিচ্ছেন। ইকার ক্যাসিয়াসের স্থান রিয়াল মাদ্রিদের হৃদয়ে এবং আজীবন এখানেই থাকবেন। তাঁর ও তাঁর পরিবারের প্রতি ভালোবাসা জানাচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ, তাঁর ক্লাব।’

ক্যাসিয়াসের বিদায়ক্ষণে মন খারাপ হবে ফুটবল সমর্থকদের। কিন্তু রিয়াল সমর্থকেরা চাইলে অন্তত এটুকু সান্ত্বনা খুঁজে পাচ্ছেন, তাদের প্রিয় সন্ত আবার ফিরছেন বার্নাব্যুতে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন