বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

জার্মানির বিশ্বকাপজয়ী সাবেক অধিনায়ক লোথার ম্যাথাউস এ নিয়ে বলেছিলেন, ‘শুধু শিরোপার হিসাব করা হলেও ২০২০ সালে লেভানডফস্কি ব্যালন ডি’অর জয়ে ছিল অপ্রতিদ্বন্দ্বী। কিন্তু গত বছর (করোনার কারণে) ফ্রান্স ফুটবল পুরস্কারটি দেয়নি। এমনকি শুধু ২০২১ সালকেও যদি বিবেচনায় নেওয়া হয়, তাহলেও বাকিদের চেয়ে এগিয়ে সে। সে গার্ড মুলারের রেকর্ড ভেঙেছে। সব ধরনের প্রতিযোগিতারই সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় আছে সে। জাতীয় আর আন্তর্জাতিকভাবে বাকি সবাইকে সে পেছনে ফেলেছে।’

default-image

রিয়াল মাদ্রিদের জার্মান মিডফিল্ডার টনি ক্রুস বলেছিলেন, ‘এমনটা (মেসির ব্যালন ডি’অর জয়) হওয়াটা উচিত হয়নি।’ আর জার্মানির পত্রিকা বিল্ড তো মেসির ব্যালন ডি’অর জয়কে দেখেছে ‘বিরাট এক কেলেঙ্কারি’ হিসেবে। গতকাল প্রিমিয়ার লিগে মার্সিসাইড ডার্বিতে এভারটনের বিপক্ষে লিভারপুলকে ৪-১ গোলে জেতাতে জোড়া গোল করেছেন মোহমেদ সালাহ। দুর্দান্ত এই পারফরম্যান্সের পর তাঁকে সাংবাদিকেরা প্রশ্ন করেছিলেন ব্যালন ডি’অরের ভোটাভুটি নিয়ে।

ব্যালন ডি’অরের ভোটাভুটির প্রশ্নে অ্যামাজনকে সালাহ বলেছেন, ‘এ বিষয়ে আমার কোনো মন্তব্য নেই।’ এরপর তিনি আগামী বছর পুরস্কারটি জয়ের আশার কথা বলেছেন। এভারটনের বিপক্ষে লিভারপুলের বড় জয়ের বিশ্লেষণ করতে গিয়ে সালাহর কথা, ‘কোচের কাছ থেকে বার্তা ছিল যে তারা শারীরিক দিক থেকে খুব শক্তিশালী। আমাদের শুধু নিজেদের খেলাটা খেলতে হতো এবং সুযোগ তৈরি করতে হতো। আমরা এটাই করেছি।’

প্রিমিয়ার লিগে এখন পর্যন্ত খেলা ১৪ ম্যাচে ১৩ গোল করেছেন সালাহ। এটা তো তাঁর আরও একটি দুর্দান্ত মৌসুম কাটাবে বলেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। এ বিষয়ে সালাহ বলেছেন, ‘আশা করছি, আরও অনেক গোলই পাব। আমার প্রথম লক্ষ্য হচ্ছে ক্লাবের হয়ে কিছু জেতা। লিগ, চ্যাম্পিয়নস লিগ; আশা করছি দুটিই জিততে পারব।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন