বিজ্ঞাপন

এখন পর্যন্ত ক্লাব ও জাতীয় দল মিলিয়ে ৩৮ ম্যাচ খেলেছেন, তার ২৫টিতেই ম্যাচসেরা ৩৪ বছর বয়সী আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড! আর্জেন্টিনার আক্ষেপ ঘোচানোর পাশাপাশি ক্লাব বার্সেলোনাকেও জিতিয়েছেন কোপা দেল রে। সে কারণেই কি না, বার্সেলোনা কোচ রোনাল্ড কোমানও আজ বললেন, ‘অসাধারণ একটা মৌসুমের পর মেসিই ব্যালন ডি’অরের সবচেয়ে বড় দাবিদার। আমার চোখে ও-ই ফেবারিট।’

default-image

কিন্তু শুধু বার্সা কোচের কথায়ই তো আর ব্যালন ডি’অরের নিষ্পত্তি হয় না! কদিন আগে চেলসিতে খেলা ইতালিয়ান মিডফিল্ডার জর্জিনিও ব্যালন ডি’অর নিয়ে বলেছিলেন, ‘প্রতিভার বিবেচনায় গেলে আমি জানি আমি সেখানে বিশ্বের সেরা নই। কিন্তু যদি শিরোপার কথা আসে, তাহলে আমার চেয়ে বেশি এই মৌসুমে কেউ জেতেনি।’ ইতালির হয়ে ইউরো জেতার আগে চেলসির হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগও জিতেছিলেন কিনা জর্জিনিও।

পুরস্কারের বিবেচনায় মৌসুমের বিভিন্ন পর্যায়ে এনগোলো কান্তে, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, কিলিয়ান এমবাপ্পে, আর্লিং হরলান্ড, জানলুইজি দোন্নারুম্মা, জর্জো কিয়েল্লিনি, রবার্ট লেভানডফস্কির নামও এসেছে। শেষ পর্যন্ত কে জিতবেন এই পুরস্কার? কোমানের অনুমান সত্যি করে মেসিই জিতবেন, নাকি অন্য কেউ?

পাঠক, বার্সা কোচ কোমানের সঙ্গে আপনি একমত? মেসি তাঁর ক্যারিয়ারের সপ্তম ব্যালন ডি’অর জিতবেন?

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন