রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড রদ্রিগো গোয়েস
রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড রদ্রিগো গোয়েসছবি: টুইটার

আজ রাতে আতালান্তার বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচ। ইতালিয়ান দলটির দুর্দান্ত আক্রমণভাগের বিপক্ষে জমাট রক্ষণ না থাকলে বিপাকে পড়বে রিয়াল মাদ্রিদ। এর আগেই অবশ্য অন্য এক রক্ষণ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছে ক্লাবটি।

আজ বাংলাদেশ সময় বিকেল চারটায় রিয়াল মাদ্রিদের টুইটার অ্যাকাউন্ট ও ওয়েবসাইট হ্যাক হয়েছে!

নিজেদের ওয়েবসাইট হ্যাক হয়েছে, এ তথ্য অবশ্য স্বীকার করেনি রিয়াল। বরং কারিগরি ত্রুটিকে কারণ বলে জানানো হয়েছে। কিন্তু নিজেদের এক খেলোয়াড়কে নিয়ে লেখা বিবৃতি ও সেই বিবৃতি টুইটারে প্রকাশের ঘটনার পর ক্লাবের প্রযুক্তি বিভাগে বড় ধরনের হ্যাক হয়েছে বলেই ধারণা করছেন মাদ্রিদভিত্তিক সাংবাদিকেরা।

বিজ্ঞাপন

আজ রাতে আতালান্তার বিপক্ষে করিম বেনজেমার সঙ্গে আক্রমণে রদ্রিগো গোয়েসকে দেখা যাবে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। এমনিতেই গতকাল এডেন হ্যাজার্ড আরও একবার চোটে পড়ে ছিটকে গেছেন তিন সপ্তাহের জন্য।

এর মাঝে আজ বাংলাদেশ সময় বিকেল চারটার পর রিয়াল মাদ্রিদের টুইটার থেকে একটি পোস্ট করা হয়। তাতে লেখা, রদ্রিগোর মেডিকেল রিপোর্ট।

default-image

এমন টুইটের একটাই মানে, চোটে পড়েছেন রদ্রিগো। পোস্টে দেওয়া লিংক অনুসরণ করতেই সেটা রিয়ালের ওয়েবসাইটে নিয়ে গেছে ব্যবহারকারীদের। আর সেখানে রদ্রিগোর চোট নিয়ে বেশ বড় এক বিবৃতি লেখা ছিল। বিবৃতিতে লেখা, ‘রিয়াল মাদ্রিদের চিকিৎসক দলের পরীক্ষায় দেখা গেছে আমাদের খেলোয়াড় রদ্রিগো ডান ঊরুতে পেশিতে চোট পেয়েছেন।’ বিবৃতির ওপর আজকের তারিখ লেখা।

এমন এক খবরে আকাশ ভেঙে পড়াই স্বাভাবিক রিয়াল–সমর্থকদের। প্রথমত, গতকাল অনুশীলনে কেউ চোট পেয়েছেন বলে জানা যায়নি। এরপর আচমকা রদ্রিগোর ছিটকে পড়ার খবর আক্রমণভাগ নিয়ে রিয়ালের দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে দিয়েছে।

তবে মাদ্রিদভিত্তিক সাংবাদিক আরাঞ্চা রদ্রিগেজ একটু পরই টুইট করে জানিয়েছেন রদ্রিগোর খবরটি ভুয়া।

কর্তৃপক্ষের টনক নড়ায় একটু পরই রিয়াল মাদ্রিদের ওয়েবসাইট থেকে খবরটি গায়েব হয়ে যায়। কিন্তু রিয়ালের টুইটার অ্যাকাউন্টে রদ্রিগোর মেডিকেল রিপোর্টের সেই পোস্ট ৪৫ মিনিট ছিল।

অবশেষে সেটাও মুছে ফেলা হয়। মাদ্রিদভিত্তিক আরেক সাংবাদিক লুকাস নাভারেতে জানিয়েছেন, ক্লাবের এক সূত্র নিশ্চিত করেছেন খবরটি ভুয়া ছিল।

default-image

পরে আরেকটু বিশদভাবে বিশ্লেষণ করে জানা যায়, রদ্রিগোর ব্যাপারে এমন এক টুইট গত ডিসেম্বরে করা হয়েছিল। তখন সত্যিই চোটে পড়েছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার।

সেই টুইটই আবার দিন–তারিখ পরিবর্তন করে আবার দেওয়া হয়েছিল আজ। ক্লাব এ ব্যাপারে জানিয়েছে, এই রিপোর্ট কারিগরি ত্রুটির কারণেই ছাপা হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন