default-image

আর এ ব্যাপারটাই পচেত্তিনোর বিরক্তির কারণ। কিছুদিন আগে নির্ভরযোগ্য ফরাসি সংবাদমাধ্যম লা পারিসিয়েন জানিয়েছে, মৌসুম শেষেই পচেত্তিনোকে ছাঁটাই করতে পারে পিএসজি। সঙ্গে পচেত্তিনোর সম্ভাব্য উত্তরসূরি হিসেবে টটেনহামের ইতালিয়ান কোচ আন্তোনিও কন্তের নামও নিয়েছে তারা। কন্তে নাকি নিজেই পিএসজির কোচ হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। পিএসজির সঙ্গে পচেত্তিনোর চুক্তির বাকি আছেই আর এক বছর। তবে পিএসজি নাকি এক বছর ধৈর্য্য রাখতে পারছে না। এক বছর আগেই বিদায় করে দিতে চাইছে এই আর্জেন্টাইন ম্যানেজারকে।

গত রাতের ম্যাচের আগেও এ খবরের বিরোধিতা করে পচেত্তিনো বলেছিলেন, আগামী মৌসুমে অবশ্যই পিএসজির কোচ থাকবেন তিনি, চুক্তির মেয়াদ পুরোপুরি শেষ করবেন। কিন্তু তাতে কী আর গুঞ্জন থামে? পিএসজির ড্রয়ের পরেও তাই সংবাদ সম্মেলনে যতটা না ম্যাচ নিয়ে কথা হলো, তার চেয়ে বেশি হলো পচেত্তিনোর আর এমবাপ্পের ভবিষ্যৎ নিয়েই। আর সে কারণেই নিজের বিরক্তির কথা সবাইকে জানিয়ে দিয়েছেন টটেনহামের সাবেক এই কোচ।

default-image

পচেত্তিনোর কাছে মনে হয়েছে মাঠের ভেতরে কী হচ্ছে, সেসব নিয়ে কথা না বলে গুঞ্জন উসকে দেওয়া বিষয়বস্তু নিয়ে আলোচনা মানে প্রকারান্তরে পচেত্তিনোকেই অসম্মান করা, ‘আগামীকাল কী হয় সেটা কেউ বলতে পারে না। তবে আজ আমি পিএসজির প্রতি শতভাগ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। আমি মিডিয়ার গুঞ্জনকে পাত্তা দিই না। সবাই জানে আমরা কীভাবে কাজ করি। এর মধ্যে এসব গুঞ্জন নিয়ে কথার অর্থ আমাদের অসম্মান করা। এটাই সবচেয়ে বড় সমস্যা। আমরা এখানে ক্লাবের জন্য কাজ করতে এসেছি।’

ওদিকে এমবাপ্পে অবশ্য তাঁকে ঘিরে চলতে থাকা গুঞ্জন নিয়ে কোনো কথা বলেননি। তাঁর মনজুড়ে ছিল ম্যাচে পয়েন্ট হারানোর আক্ষেপ, ‘আমরা চ্যাম্পিয়ন দল। আমরা সবসময় সবটুকু দেওয়ার চেষ্টা করি। আমার মনে হয় আমাদের খেলায় জয়ের ইচ্ছে ফুটে উঠেছিল। কিন্তু শেষ ১০-১৫ মিনিটে অত ভালো খেলতে পারিনি, যে কারণে আমাদের সমস্যা হয়েছে। কিন্তু এখন এসব নিয়ে আর কথা বলে লাভ নেই।’

default-image

ম্যাচের তিন মিনিটের মধ্যেই নিজেদের মাঠে সাবেক পিএসজি স্ট্রাইকার কেভিন গামেইরোর গোলে এগিয়ে যায় স্ত্রাসবুর্গ। ৬৮ মিনিটের মধ্যে এমবাপ্পের জোড়া গোল আর আশরাফ হাকিমির এক গোল মিলিয়ে পিএসজি ৩-১ গোলে এগিয়ে গেলেও মার্কো ভেরাত্তির আত্মঘাতী গোলে ব্যবধান কমে। যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে গোল করে পিএসজির হাত থেকে জয় ছিনিয়ে নেন অ্যান্থনি কাচি।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন