বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বার্সায় যোগ দেওয়ার পরও দুই মাস চোটের কারণে মাঠে নামতে পারেননি। চোট থেকে ফিরে রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে গত সপ্তাহেই গোল করেছিলেন, যার পুরস্কার পেয়েছিলেন আলাভেসের বিপক্ষে গত ম্যাচে, মূল একাদশে সুযোগ পেয়ে।


মূল একাদশে সুযোগ পাওয়ার আনন্দ আর বেশিক্ষণ উদ্‌যাপন করতে পারলেন কোথায়! মাত্র ৪০ মিনিটেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে তাঁকে। চিন্তা বাড়িয়েছে আগুয়েরোর বের হয়ে যাওয়ার কারণ। আশঙ্কা করা হচ্ছিল, হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়েছেন এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার কিছুক্ষণ আগেই হঠাৎ মাঠে পড়ে যান আগুয়েরো। বোঝা যাচ্ছিল, মাথা ঝিমঝিম করছে তাঁর, শ্বাস নিতেও কষ্ট হচ্ছে। বুকে হাত দিয়ে বসে ছিলেন আগুয়েরো। বারবার বুকের দিকে ইঙ্গিত করছিলেন।

পরে তাঁর জায়গায় ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফিলিপ কুতিনিওকে মাঠে নামানো হয়। মাঠ ছাড়ার সময় বোঝা যাচ্ছিল, অনেক কষ্টে চোখের পানি আটকে রেখেছিলেন এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

default-image

পরে আগুয়েরোকে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বার্সেলোনা আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে নিশ্চিত করেছে, বুকের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার জন্য আগুয়েরোকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জানা গেছে, আগুয়েরোর হৃৎস্পন্দনের গতি স্বাভাবিকের চেয়ে যথেষ্ট বেশি ছিল; যদিও হাসপাতালে নেওয়ার পর সে সমস্যা ঠিক হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

পরে মুভিস্টারকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বার্সার ভারপ্রাপ্ত কোচ সের্হিও বারহুয়ান বলেন, ‘আমি ওকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম। ও আমাকে বলল, ওর মাথা ঝিমঝিম করছে। তারপর ওর কী হয়েছে, এটা জানার জন্য ওকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এর চেয়ে বেশি কিছু জানি না আমি।’

জানা গেছে, আগুয়েরোর এ সমস্যা নতুন নয়। ১২ বছর বয়স থেকেই এ সমস্যায় ভুগছেন এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন