বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর একটু পর ওই দর্শক উঠে দাঁড়িয়ে দৌড়ে মাঠ ছাড়েন। কিন্তু এমন অখেলোয়াড়সুলভ আচরণের জন্য রেফারি স্যাম কারকে হলুদ কার্ড দেখান। স্যাম কারের অবশ্য এভাবে মেজাজ হারানোর যথেষ্ট কারণ ছিল। জুভেন্টাসের বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলছিল চেলসি। ৭২ শতাংশ বলের দখল রেখে এবং ওই সময় পর্যন্ত ২০টির বেশি গোলে শট নিয়েও গোল পায়নি তারা। ম্যাচের শেষের দিকের ওই সময়টাতেই কিনা অমন বিরক্তিকর ঘটনা!

ম্যাচ শেষে বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করা হয় চেলসির নারী ফুটবল দলের কোচ এমা হেইসকে। বিষয়টি নিয়ে প্রথমে মজা করে তিনি বলেন, ‘আমি বুঝতে পারছি না ওই লোকটি কেন ম্যাচ শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করল না। সে যদি কারও সঙ্গে ছবি তুলতে চাইত, সেটা তো ম্যাচ শেষে পারতই।’ এরপর তিনি একটা দুশ্চিন্তার কথা বলেন, ‘মজার বিষয়টি পাশে সরিয়ে রেখে আমাদের খেলোয়াড়দের নিরাপত্তার কথা ভাবতে হবে।’

default-image

খেলোয়াড়দের নিরাপত্তার বিষয় নিয়ে কথা বলার সময় এখানেই থেমে থাকেননি এমা হেইস। তিনি বলে চলেন, ‘নারী ফুটবল যেভাবে বিস্তৃত হচ্ছে, খেলোয়াড়দের ভক্তের সংখ্যা বাড়ছে। আমি মনে করি স্টেডিয়ামগুলো আর স্টুয়ার্ডদের এ বিষয়ে আরও সতর্ক হতে হবে। খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা নিয়ে সবার আগে ভাবতে হবে আমাদের।’ কাল চেলসি–জুভেন্টাস ম্যাচটি হয়েছে চেলসির মাঠে। শেষ পর্যন্ত গোলশূন্য ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে দুই দল।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন