কাল কঠিন এক পরীক্ষা দেবেন জিদান।
কাল কঠিন এক পরীক্ষা দেবেন জিদান।ছবি: রয়টার্স

করোনাকালের ফুটবলে বড় এক পরিবর্তন এনেছে ফিফা। খেলোয়াড়দের ক্লান্তির হাত থেকে বাঁচাতে এখন চাইলে এক ম্যাচে পাঁচজন খেলোয়াড় বদলি করতে পারেন ম্যানেজার। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ছাড়া বাকি সব লিগ এ নিয়মটি গত মৌসুমের পরও ধরে রেখেছে। টানা খেলার ধকল থেকে বাঁচানোর উপায় হিসেবে অধিকাংশ ম্যানেজারই ম্যাচে পাঁচ বদলি নামানোর পক্ষে।

জিনেদিন জিদান অবশ্য ঠিক ওই পথে হাঁটেন না। দলে ভরসা রাখার মতো খেলোয়াড়ের বড় অভাব রিয়াল মাদ্রিদ কোচের। সে কারণে, অধিকাংশ ম্যাচেই বদলি কোটা পূরণ করা হয় না তাঁর। মূল স্ট্রাইকার করিম বেনজেমার বদলি হিসেবে মারিয়ানোর ওপর ভরসা রাখতে পারেন না। গোলকিপার থিবো কোর্তোয়াকে বদলানোর তো কোনো সম্ভাবনাই নেই। মাঝমাঠ ও রক্ষণে খেলোয়াড়ের এমন সংকটে ভোগেন যে যাঁরা নামেন, প্রায় পুরো সময়টাই খেলেন। শুধু দুই উইংয়েই একটু অদলবদল করে খেলোয়াড়দের দেখে নেন জিদান।

কাল হেতাফের বিপক্ষে চাইলেও অবশ্য পাঁচ বদলি করতে পারবেন না জিদান। সে সুযোগই যে নেই তাঁর। স্কোয়াডে আউটফিল্ডের মাত্র ১৩ জন নিয়ে হেতাফের মাঠে নামবেন জিদান।

বিজ্ঞাপন

করোনাকালে ক্লাবের আর্থিক দুরবস্থায় কোনো খেলোয়াড় কেনেনি রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু ঠিকই বেশ কিছু খেলোয়াড় বিক্রি করেছে তারা। হামেস রদ্রিগেজ, সের্হিও রেগিলন, আশরাফ হাকিমিদের বিক্রি করেও থামেনি। গ্যারেথ বেল, ব্রাহিম দিয়াজ, বোর্হা মায়োরাল, মার্টিন ওডেগার্দ, লুকা ইয়োভিচদের ধারে পাঠিয়েছে অন্য ক্লাবে।এমনিতেই স্কোয়াডে খেলোয়াড় এক ধাক্কায় অনেক কমে গিয়েছিল। সে সঙ্গে যোগ হয়েছে চোট।

এ মৌসুমে একের পর এক চোট হানা দিয়েছে রিয়ালে। মৌসুমের শুরু থেকেই চোটের সঙ্গে লড়েছেন ক্লাবের রেকর্ড সাইনিং এডেন হ্যাজার্ড। এ ছাড়া বিভিন্ন চোট কোনো না কোনো সময় প্রায় স্কোয়াডের সবাইকে বসিয়ে রেখেছিল। মূল একাদশের থিবো কোর্তোয়া ও ফারলাঁ মেন্দি ছাড়া চোটমুক্ত ছিলেন না কেউই। সেই তালিকা থেকে লেফটব্যাক মেন্দিও ছিটকে গেলেন। হেতাফের বিপক্ষে লিগ ম্যাচের আগে চোট পেয়েছেন মেন্দি। ফলে আগামীকাল নিজের পছন্দের চার রক্ষণসেনার কাউকেই পাচ্ছেন না জিদান।

এ মৌসুমে রিয়ালের স্কোয়াডের ৫৪তম চোটের খবর এটি! প্রায় অবিশ্বাস্য এই সংখ্যাটিই বলে দিচ্ছে কোচ জিদানের কাজটা কত কঠিন করে তুলেছে চোট। আক্রমণে হ্যাজার্ড চোটের কবলমুক্ত ছিলেনই মাত্র কয়েক দিন। রদ্রিগোও চোটমুক্ত হয়ে ফিরেছেন মাত্র কদিন আগে। মাঝমাঠে ফেদে ভালভার্দে বহুদিন পুনর্বাসন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে গিয়ে অবশেষে ফিরে এসেছেন। কিন্তু জিদানের মূল দুশ্চিন্তা তাঁর রক্ষণ নিয়ে।

default-image

রাইটব্যাক দানি কারভাহাল বহুদিন ধরেই স্কোয়াডের বাইরে। তাঁর শূন্যস্থান উইঙ্গার লুকাস ভাসকেজকে দিয়ে পূরণ করছিলেন জিদান। এল ক্লাসিকোতে চোট পেয়ে সেই ভাসকেজ মৌসুমের বাকি সময়ের জন্যই ছিটকে গেছেন। এ দুর্ঘটনার আগেই রিয়াল রক্ষণ অধিনায়ক সের্হিও রামোসকে হারিয়ে বসেছে। চোটের কারণে রামোসকে বহুদিন ধরেই পাচ্ছে না রিয়াল।

এর মধ্যে চোট থেকে তাড়াহুড়া করে ফিরে দুই ম্যাচে দেখা দিয়েছিলেন রামোস। কিন্তু জাতীয় দলের হয়ে খেলতে গিয়ে আবার চোটে পড়েছেন রামোস। ওদিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বাদ পড়েছেন রাফায়েল ভারান। মূল রক্ষণের শুধু মেন্দিই টিকে ছিলেন। সেই মেন্দিও কালকের ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়েছেন।

রামোস-ভারানের জায়গাটা পূরণ করে দিচ্ছিলেন নাচো-মিলিতাও। এর মধ্যে এল ক্লাসিকোতে হলুদ কার্ড দেখায় হেতাফে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়েছেন নাচো। ফলে কালকের ম্যাচের জন্য জিদানকে একাডেমিতে হাত বাড়াতে হয়েছে। কাস্তিয়া থেকে ভিক্তর চুস্তকে ডেকে নিয়েছেন। একাডেমি থেকে ডেকে আনার পরও জিদানের হাতে রক্ষণের খেলোয়াড় কাল মাত্র চারজন। রাইটব্যাক ওদ্রিওসোলা, সেন্টারব্যাকে মিলিতাও ও চুস্ত, আর লেফটব্যাকে মার্সেলো। অর্থাৎ কাল ডিফেন্ডার হিসেবে কাল কারা নামবেন এ নিয়ে কারও বাজি ধরতে হবে না।

বিজ্ঞাপন
default-image

এল ক্লাসিকো রিয়ালের আরেকটি সর্বনাশ করেছে। বার্সেলোনার বিপক্ষে লাল কার্ড দেখেছিলেন কাসেমিরো। ফলে কাল আর নামা হচ্ছে না ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারের। ফলে মাঝমাঠে জিদানের হাতে মাত্র চারজন আছেন। শারীরিক সামর্থ্যের শেষ সীমায় থাকা লুকা মদরিচ ও টনি ক্রুসের সঙ্গে ইসকো ও ফেদে ভালভার্দে। এর মাঝে ইসকোকে বহুদিন ধরেই মূল একাদশে খেলান না জিদান। আর ভালভার্দে এল ক্লাসিকোতে চোট পেয়েছিলেন। কিন্তু দলের প্রয়োজনে ব্যথানাশক ওষুধ খেয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগে দলের রাইটব্যাকের শূন্যস্থান পূরণ করেছেন।

একমাত্র আক্রমণেই যথেষ্ট খেলোয়াড় পাচ্ছেন জিদান। সেখানে বেনজেমা, ভিনিসিয়ুস, আসেনসিও ছাড়াও রদ্রিগোও মারিয়ানোকে পাচ্ছেন জিদান। ওহ, জিদানের স্কোয়াডে আরও দুজন আছেন। তাঁরা দুই গোলরক্ষক আন্দ্রেয়া লুনিন ও দিয়েগো আলতুবে। তবে হেতাফের মাঠে আর যেখানেই খেলোয়াড় বদলান না কেন জিদান, গোলবারের নিচে কোর্তোয়াকে সরানোর যে কোনো চেষ্টা করবেন না, এটা নিশ্চিত।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন