বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

হরলান্ডের দাম এখন কত হতে পারে? ১০ কোটি ইউরো? ১৫ কোটি ইউরো? ফুটবলের দলবদল সম্পর্কে যাঁরা খোঁজখবর রাখেন, তাঁরা জানেন, এই হরলান্ডকে নিয়ে কয়েক বছর ধরে বড় ক্লাবগুলোর মধ্যে কী টানাটানিই না চলছে।

এদিকে রিয়াল মাদ্রিদ নিজেদের নতুন গ্যালাকটিকোস বানাতে হরলান্ডের দিকে হাত বাড়াচ্ছে, ওদিকে বার্সেলোনার সভাপতি প্রকাশ্যেই হরলান্ডকে নিয়ে নিজের অনুরাগের কথা প্রকাশ করেছেন। আবার সের্হিও আগুয়েরোর বিকল্প হিসেবে আগামী বছর ম্যানচেস্টার সিটি এই নরওয়েজিয়ান স্ট্রাইকারকে দলে টানবে বলে শোনা যাচ্ছে। আবার এমবাপ্পে চলে গেলে তাঁর জায়গায় পিএসজি হরলান্ডকে দলে টানতে পারে, এমনটাও শোনা যাচ্ছে। আবার হরলান্ডের সাবেক ক্লাবের কোচ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কোচ ওলে গুনার সুলশারও স্বদেশি এই স্ট্রাইকারের দিকে হাত বাড়াতে পারেন বলে খবর। যদিও কারও প্রলোভনে পড়ে নিজেদের সোনার–ডিম–পাড়া হাঁসকে এখনই ছাড়তে রাজি হয়নি ডর্টমুন্ড।

default-image

এর মধ্যেই চমকজাগানিয়া এক তথ্য দিয়েছেন জুভেন্টাসের সাবেক প্রধান নির্বাহী জিউসেপ্পে মারোত্তা। হরলান্ড যখন নরওয়ের ক্লাব মল্ডেতে খেলতেন, তখন তাঁকে কেনার সুযোগ পেয়েছিল জুভেন্টাস। তাও আবার বলতে গেলে পানির দামে। যে স্ট্রাইকারকে এখন ১০ থেকে ১৫ কোটি ইউরো দিয়েও কেনা যাচ্ছে না, সে স্ট্রাইকারকে আগে মাত্র ২০ লাখ ইউরোতে পাওয়া যেত। এমন স্ট্রাইকারকে কয়েক বছর আগে মাত্র ২০ লাখ ইউরোতে পাওয়ার সুযোগ পেয়েছিল জুভেন্টাস।

কিন্তু ওই যে, সামনে ছাই দেখেও উড়িয়ে দেখার সাহস পায়নি জুভেন্টাস! খুঁজে দেখেনি, আদৌ ভেতরে অমূল্য রতন পাওয়া যায় কি না!

default-image

জুভেন্টাস যখন এ সুযোগ পেয়েছিল, তখন ক্লাবটির প্রধান নির্বাহী ছিলেন এই মারোত্তা। তিনি এখন ইন্টার মিলানের বর্তমান প্রধান নির্বাহী। জুভেন্টাসে থাকার সময়ে কম দামে বা বিনা মূল্যে আন্দ্রেয়া পিরলো, পল পগবা, আন্দ্রেয়া বারজাগলি, দানি আলভেসের মতো খেলোয়াড়কে দলে আনা এই মারোত্তাই তখন হরলান্ডের মূল্য বোঝেননি। কিন্তু এখন ঠিকই নিজের ভুলের জন্য আফসোস করেন।

ইতালির সংবাদমাধ্যম লা গাজেত্তা দেল্লো স্পোর্তকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মারোত্তা জানিয়েছেন নিজের এই হতাশার কথা, ‘আমার ক্যারিয়ারের অন্যতম বড় দুঃখ হলো আর্লিং হরলান্ড। মল্ডে থেকে আমরা চাইলে ওকে মাত্র ২০ লাখ ইউরোর বিনিময়ে কিনতে পারতাম। আমরা ওকে কেনার ব্যাপারে অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছিলাম।’

default-image

কিন্তু সেই হরলান্ড আর ইতালিতে পা রাখেননি। নিজের দেশের ক্লাব মল্ডে থেকে পাড়ি জমিয়েছিলেন অস্ট্রিয়ার ক্লাব রেড বুল সালজবুর্গে। সেখান থেকে নাম লিখিয়েছেন ডর্টমুন্ডে। এখন হরলান্ডের যা দাম, কোনো ইতালিয়ান ক্লাব তাঁকে আদৌ কিনতে পারবে কি না, সন্দেহ। মারোত্তা বেশ ভালোই বোঝেন এটা, ‘হরলান্ড ইতালিয়ান সিরি’আতে খেলবে, এটা এখন কল্পনাই করা যায় না। আগামী গ্রীষ্মে কোনো ইতালিয়ান ক্লাবই ওকে কিনতে পারবে না। কোনো সম্ভাবনাই নেই।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন