এক যুগ ধরেই এমন দেখা যাচ্ছে। মেসি গোল করলেই অপরাজিত আর্জেন্টিনা। সর্বশেষ এর ব্যত্যয় ঘটেছে ২০০৯ সালে আতলেতিকো মাদ্রিদের সাবেক মাঠ ভিসেন্তে ক্যালদেরন স্টেডিয়ামে স্পেনের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে।

মেসি সে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে গোল করলেও ২-১ গোলের জয় তুলে নেয় স্পেন। তার পর থেকে এই সময় পর্যন্ত সাতবারের ব্যালন ডি’অরজয়ী তারকা গোল করলেই হার এড়িয়ে মাঠ ছেড়েছে আর্জেন্টিনা।

default-image

স্পেনের বিপক্ষে সেই প্রীতি ম্যাচের পর এ পর্যন্ত মেসির গোল করা ৪৭ ম্যাচের সব কটিতে হার এড়াতে পেরেছে আর্জেন্টিনা। এর মধ্যে ৬ ম্যাচ ড্র, বাকি ৪১ ম্যাচে জয়। মেসি গোল করলেও আর্জেন্টিনা জয় তুলে নিতে পারেনি, এমন ম্যাচ সর্বশেষ দেখা গেছে গত বছর কোপা আমেরিকায়। চিলির বিপক্ষে সে ম্যাচের ৩৩ মিনিটে গোল করে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দেন মেসি।

কিন্তু ম্যাচের ৫৭ মিনিটে এদুয়ার্দো ভার্গাসের গোলে চিলি সমতায় ফেরে। চিলির কথা যখন উঠলই, তখন ২০১৫ কোপা আমেরিকা ফাইনালও প্রসঙ্গক্রমে উঠে আসে। সেই ফাইনালে নির্ধারিত সময় গোলশূন্য ছিল দুই দল। টাইব্রেকারে স্বপ্নভঙ্গ হয় আর্জেন্টিনার। মেসি গোল পেলে কে জানে ম্যাচের ফল অন্য রকমও হতে পারত!

পরের বছর আবারও কোপা আমেরিকার ফাইনালে একই ভাগ্য মেনে নিতে হয় আর্জেন্টিনাকে। এবারও ফাইনালে প্রতিপক্ষ চিলি, নির্ধারিত সময়েও গোলশূন্য দুই দল। টাইব্রেকারে লক্ষ্যভেদে ব্যর্থ হন মেসি।

৪-২ গোলের জয়ে আবারও আর্জেন্টিনার শিরোপা জয়ের অপেক্ষা দীর্ঘায়িত করে চিলি। শেষ পর্যন্ত গত বছর ব্রাজিলের মাটিতে কোপা আমেরিকা জেতে আর্জেন্টিনা। ব্রাজিলের বিপক্ষে ফাইনালে মেসি গোল করতে না পারলেও দেশের হয়ে তাঁর শিরোপাখরা কেটেছে।

২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট হাঙ্গেরির বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে আর্জেন্টিনার হয়ে অভিষেক মেসির। মজার বিষয়, দেশের হয়ে তাঁর প্রথম হ্যাট্রটিক ২০১২ সালে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে—অর্থাৎ মেসি গোল করলেই আর্জেন্টিনা হারে না, এ ধারা শুরু হওয়ার পর। দেশের হয়ে এ পর্যন্ত সাতটি হ্যাটট্রিক করেছেন মেসি।

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে আজ ভেনেজুয়েলার বিপক্ষেও গোল পান মেসি। নভেম্বরে কাতার বিশ্বকাপে যাওয়ার আগে ঘরের মাঠে দেশের হয়ে এটাই সম্ভবত তাঁর শেষ ম্যাচ। জয়ের পর ‘লা বোমবোনেরা’ স্টেডিয়ামে প্রায় ৫০ হাজার দর্শকের সামনে সতীর্থদের নিয়ে ভিক্টরি ল্যাপ শেষে সমর্থকদের প্রশংসা করলেন মেসি, ‘আর্জেন্টাইন জনগণ ও দলের মধ্যে যে ঐকতান, তা বিচারে এর চেয়ে কম দর্শক আশা করিনি। লোকে আমাকে ভালোবাসে এবং সে জন্য আমি কৃতজ্ঞ।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন