বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রথমে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মানচিত্র আঁকা একটা ছবি টুইট করেছে। তারপর দিয়েছে মাঠের মাঝে ছুড়ে ফেলা একটা স্যুটের ছবি। এই মানচিত্র আর স্যুটের পেছনের গল্প জানা জুভেন্টাস–সমর্থকদের জন্য সেটিই ছিল ক্লাবের আলেগ্রিকে কোচ করে ফেরানোর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

মিনেসোটার গল্পটা জুভেন্টাসে প্রথম দফায় এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন আলেগ্রি। সেবার ইতালিয়ান লিগ আর কোপা ইতালিয়া জিতেছে জুভেন্টাস, এরপর এক সংবাদ সম্মেলনে মিনেসোটার গল্প বললেন আলেগ্রি। আলেগ্রির মিনেসোটা অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রের রাজ্য নয়, ঘোড়দৌড়ে অংশ নেওয়া এক ঘোড়ার নাম। গল্পটায় জড়িয়ে আছে আলেগ্রির ছোটবেলার স্মৃতি, যখন তিনি দাদার সঙ্গে যেতেন ইতালির কাপ্রিল্লি রেসকোর্সে। ‘দাদার সঙ্গে আমি ঘোড়দৌড়ে যেতাম, এমনকি সেটা আমার পাঁচ বছর বয়স থাকার সময়েও’—বলেছিলেন আলেগ্রি।

সেই ঘোড়দৌড়ে মিনেসোটা নামের একটা ঘোড়ার ওপর বাজি ধরতে চেয়েছিলেন আলেগ্রি। কিন্তু বাজি নেওয়ার দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা তখন আলেগ্রিকে বলেন, ‘মিনেসোটার রেসে জেতার চেয়ে তোমার কোনো একদিন সিরি “আ”র কোনো দলের কোচ হওয়ার সম্ভাবনা বরং বেশি!’

গল্পটা জানিয়ে আলেগ্রি সেদিন সংবাদ সম্মেলনে স্মিত হাসিতে বলছিলেন, ‘মিনেসোটা সেদিন রেস জিতেছিল, আর আমি এখন জুভেন্টাসের কোচ।’ যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মানচিত্র দিয়ে সেই গল্পই মনে করিয়ে দেয় জুভ।

আর মাঠে ফেলে রাখা স্যুটের ছবির গল্প? ২০১৫ সালে লিগে পুঁচকে কার্পির বিপক্ষে জুভেন্টাসের ৩-২ গোলের জয়ের পর আলেগ্রি উদ্‌যাপনে নিজের স্যুট ছুড়ে মারেন মাঠে। সে সময় ঘটনাটা বেশ বিখ্যাত হয়ে গিয়েছিল। সেই ছুড়ে ফেলা স্যুটের ছবি টুইট করেই আজ আলেগ্রির ফেরার ঘোষণা দিয়েছে জুভ।

আলেগ্রি ফেরাতে জুভেন্টাস–সমর্থকেরা আবার আশায় বুক বাঁধতেই পারেন। পিরলোর অধীনে এই মৌসুমের শেষ দিকে এসে ইতালিয়ান কাপ জিতেছে জুভ, লিগের সেরা চারে থেকে আগামী মৌসুমের চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা নিশ্চিত করেছে লিগের শেষ দিনে এসে, কিন্তু ১০ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম লিগ হাতছাড়া হলো জুভেন্টাসের। সেটাও দলে যেখানে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর মতো এক মহাতারকা আছেন, এমন সময়ে!

সে ক্ষেত্রে আলেগ্রির আগমনে জুভেন্টাসের আশার কারণ এই যে প্রথম দফায় জুভেন্টাসে পাঁচটি লিগ ও চারটি ইতালিয়ান কাপ জেতার পাশাপাশি ২০১৫ ও ২০১৭ সালে জুভেন্টাসকে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালেও তুলেছিলেন আলেগ্রি।

দুই ছবির পাশাপাশি পরে আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতেও আলেগ্রির ক্লাবে ফেরার ঘোষণা দিয়েছে জুভেন্টাস, ‘মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি আরও একবার জুভেন্টাসের কোচ। আলেগ্রি এমন একটা বেঞ্চে ফিরছেন, যে বেঞ্চটা তিনি খুব ভালো চেনেন। যে ক্লাবটাকে তিনি ভালোবাসেন এবং যে ক্লাবটা তাঁকে ভালোবাসে। আজ নতুন একটা যাত্রা একসঙ্গে শুরু হচ্ছে, নতুন লক্ষ্যের দিকে।’

default-image

তাঁর প্রথমবারের বিদায়ের ক্ষণের গল্প টেনে এনে জুভেন্টাস বিবৃতিতে লিখেছে, ‘দুই বছর আগে তাঁকে আমরা বিদায় জানিয়েছিলাম এই বার্তা লিখে, “ইতিহাসে অনন্য।” মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রিকে জড়িয়ে ধরে ক্লাব সভাপতি আন্দ্রেয়া আনেয়েল্লির তাঁকে দেওয়া শার্টের পেছনে লেখা ছিল বার্তাটা। শার্টে লেখা শব্দ দুটি জুভেন্টাসে আলেগ্রির অভিজ্ঞতাকে একবারে বুঝিয়ে দেয়। কিন্তু গল্পের সৌন্দর্য এই যে এই গল্পটা কখনো শেষ হবার নয়। আর ফুটবলে এই ধারণা থেকে আমরা যা বুঝি, সেটি আমাদের ডিএনএতে খোদাই করা। কথাটা এই, পরের জয়টাই সবচেয়ে সেরা জয়। সব সময়। এখন আমরা আবার আলেগ্রির সঙ্গে মিলে নতুন শুরু করতে প্রস্তুত। আমাদের ভবিষ্যৎ একসঙ্গে আবার গড়তে প্রস্তুত।’

পিরলোর বিদায় আর আলেগ্রির জুভেন্টাসে ফেরা ইউরোপের শীর্ষ পর্যায়ে বেশ কয়েকটি ক্লাবের কোচ অদল-বদলের একটা ধাপ শুধু। আরও কত নাটক যে বাকি আছে! জিনেদিন জিদান ক্লাব ছেড়ে যাওয়ায় আলেগ্রিকে রিয়াল মাদ্রিদ কোচ করে পেতে চেয়েছিল, কিন্তু তার আগেই জুভেন্টাস তাঁকে ফিরিয়ে এনেছে।

রিয়াল এখন এই মৌসুমে ইন্টার মিলানকে ইতালিয়ান লিগ জিতিয়েই ক্লাব ছেড়ে যাওয়া আন্তোনিও কন্তেকে কোচ করে পেতে চাইছে বলে বাজারে গুঞ্জন। ইন্টার এরই মধ্যে লাৎসিও থেকে সিমোনে ইনজাগিকে কোচ করে এনেছে। পিএসজি থেকে মরিসিও পচেত্তিনোকে ফেরাতে চাইছে টটেনহাম। বার্সেলোনা তো কোচকে রাখবে নাকি বিদায় দিয়ে নতুন কোচ আনবে, সে সিদ্ধান্তই এখনো নিতে পারছে না।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন