সেটি অবশ্য নিজেকে দিয়ে বোঝাননি আনচেলত্তি। পিএসজি কোচ মরিসিও পচেত্তিনো কিছুদিন আগে এমবাপ্পেকে নিয়ে ক্লাবের সমর্থকদের প্রতি আশার বাণী শোনান। সে কথা যে সত্য নয়, তা বোঝাতে গিয়েই মন্তব্যটি করেন আনচেলত্তি।

খুলেই বলা যাক। পিএসজি গত সপ্তাহে লিগ আঁ জয়ের পর গুঞ্জন উঠেছে, ক্লাবটির পরিচালক পদ থেকে লিওনার্দো ও কোচ পদ থেকে পচেত্তিনোকে সরিয়ে দেওয়া হবে। আর এমবাপ্পে মৌসুম শেষেই যোগ দেবেন রিয়াল মাদ্রিদে। পিএসজির সঙ্গে এখনো চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে কোনো পাকা কথায় পৌঁছাননি ফরাসি তারকা। পচেত্তিনোর টটেনহামে ফেরার সম্ভাবনা নিয়েও অঙ্ক কষছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমগুলো।

default-image

কাল সংবাদ সম্মেলনে পচেত্তিনোর কাছে তাই সংবাদকর্মীরা জানতে চেয়েছিলেন, এমবাপ্পে এবং তাঁর পিএসজিতে থাকার সম্ভাবনা কতুটুকু? পচেত্তিনোর উত্তর, ‘দুজনের ক্ষেত্রেই (পিএসজিতে) থাকার সম্ভাবনা শতভাগ। এখন পর্যন্ত আমি এটাই মনে করি।’ মৌসুম শেষে পিএসজির সঙ্গে এমবাপ্পের চুক্তির মেয়াদ ফুরাবে। পিএসজির সঙ্গে ২০২৩ সাল পর্যন্ত চুক্তির মেয়াদ থাকলেও চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে না পারায় ক্লাবটিতে পচেত্তিনোর শেষ দেখছেন অনেকেই। লিওনার্দোও একই পরিস্থিতিতে আছেন বলে মনে করা হচ্ছে।

পচেত্তিনো যেহেতু এমবাপ্পের পিএসজিতে থেকে যাওয়ার ‘১০০%’ নিশ্চয়তা দিয়েছেন, তাই খুব স্বাভাবিকভাবেই রিয়াল কোচের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়েছিল। যেহেতু কয়েক মৌসুম ধরেই এমবাপ্পেকে কেনার চেষ্টা করছে মাদ্রিদের ক্লাবটি, আর এ মৌসুমে এমবাপ্পের চুক্তির মেয়াদও ফুরাচ্ছে এবং খুব সম্ভবত পিএসজিতে তিনি চুক্তি নবায়ন করছেন না। তাহলে?

default-image

সংবাদ সম্মেলনে এই প্রশ্ন ওঠামাত্র আনচেলত্তি আগে একটু হেসে নিয়েছেন। তারপর বলেছেন, ‘কোচেরা সংবাদ সম্মেলনে সব সময় সত্য বলেন না। এটাই স্বাভাবিক। মাদ্রিদিস্তারা আপাতত দুটি বিষয় নিয়ে ভাবছে, কাল ও বুধবার জয় তুলে নেওয়া।’ লা লিগায় কাল ঘরের মাঠে এস্পানিওলের মুখোমুখি হবে রিয়াল। ৩৩ ম্যাচে ৭৮ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে রিয়াল। সমান ম্যাচে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে বার্সেলোনা।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন