বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

মঙ্গলবার কী অসাধারণ একটা রাতই না কাটিয়েছেন মেসি। পিএসজির জার্সি গায়ে পাওয়া গোলটি যে ছিল বিশ্বজোড়া ফুটবলপ্রেমীদের মন ভরিয়ে দেওয়ার মতো। গোলটি অনেককেই হয়তো বার্সেলোনায় তাঁর ক্যারিয়ারের মধ্যগগনের কথা মনে করিয়ে দিয়ে থাকবে। বল পেয়েছিলেন মাঝমাঠে, একেবারে নিজেদের সীমানার কাছাকাছি জায়গায়। সেখান থেকে বল নিয়ে দুর্দান্ত গতিতে এগিয়ে যান মেসি। প্রতিপক্ষের কাছাকাছি পর্যন্ত পৌঁছে বল দেন কিলিয়ান এমবাপ্পেকে। ফরাসি স্ট্রাইকার দারুণ ব্যাক ফ্লিকে বল আবার মেসিকে খুঁজে পেলে দুর্দান্ত এক শটে গোল করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

এমন শৈল্পিক গোল ফুটবলপ্রেমীদের চোখে এঁকে দিয়েছে মায়াঞ্জন। সেই গোল এতটাই নয়নাভিরাম ছিল যে পিএসজি কোচ মরিসিও পচেত্তিনো হাঁ করে চেয়ে থেকেছিলেন। গোলটি উদ্‌যাপন করতেই যেন ভুলে গিয়েছিলেন তিনি! মেসির গোলের আগে ইদ্রিসা গানা গের গোলে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে পিএসজি জয় পেয়েছে ২-০ গোলে। রাতটি সত্যি মেসির জন্য ছিল স্মরণীয়।

সেই গোলের রেশ অবশ্য আজও আছে। ৭৪ মিনিটে করা মেসির সেই জাদুকরি গোল যে চ্যাম্পিয়নস লিগে এ সপ্তাহের সেরা গোলের আখ্যা পেয়েছে। এই রায় অবশ্য কোনো জুরি বোর্ডের নয়। উয়েফা প্রতি সপ্তাহেই চ্যাম্পিয়নস লিগের সেরা গোল নির্বাচন করে সমর্থকদের ভোটে। এ সপ্তাহে চ্যাম্পিয়নস লিগে মেসির গোলটিই সমর্থকদের কাছে সেরা মনে হয়েছে। মেসির গোলের উচ্চকিত প্রশংসা এর আগে করেছেন ইংল্যান্ডের সাবেক ডিফেন্ডার রিও ফার্ডিনান্ডও। তাঁর চোখে ‘ফেনোমেনাল’ গোলটার বিশ্লেষণে ফার্ডিনান্ড বলছেন, ‘গতি, শক্তি, ওভাবে শরীরের ভারসাম্য ধরে রাখা—ও বলটাকে জালের যে অংশে পাঠিয়েছে (দৌড়ের মধ্যেই প্রথম স্পর্শে), ওভাবে বলটাকে ওখানে পাঠানো...চোখধাঁধানো!’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন