মেসির বিশ্বাস ২০২১ সালেই আর্জেন্টিনার ২৭ বছরের আক্ষেপ ঘুচবে

২০২১ সালে কোপা আমেরিকা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী লিওনেল মেসি।
২০২১ সালে কোপা আমেরিকা জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী লিওনেল মেসি।ছবি: এএফপি
বিজ্ঞাপন

২৭ বছর ধরে আর্জেন্টিনা অপেক্ষায়। প্রতি দু-এক বছর পরপর নতুন আশায় বুক বাঁধে আর্জেন্টাইনরা—এবার হবে! কিন্তু প্রতিবারই আশা দেখা দেয় মরীচিকা হয়ে। এই করেই মাঝে কেটে গেছে ৭টি বিশ্বকাপ। একে একে চলে গেছে ১০টি কোপা আমেরিকা। কিন্তু আর্জেন্টিনার একটা শিরোপার আক্ষেপ ঘোচেনি।

সেই অপেক্ষা শেষ হওয়ার আশায় আরেকবার বুক বাঁধার সময় বুঝি এসে গেল আর্জেন্টাইনদের। এবার একটু বিশ্বাসের জোরও থাকবে হয়তো। এবার যে লিওনেল মেসি নিজেও বিশ্বাসে ঘর বাঁধছেন—২০২১ কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার অপেক্ষা ঘুচবে। এমনই জানাচ্ছে গোলডটকম।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কত কত প্রতিভাবান, ফুটবল ইতিহাস রাঙানো খেলোয়াড়ও তো এসেছেন। ‘অলস শিল্পী’ হুয়ান রোমান রিকেলমে মাঝমাঠ রাঙিয়েছেন, পাবলো আইমারও তা-ই। হুয়ান সেবাস্তিয়ান ভেরন, হাভিয়ের জানেত্তি কিংবা হার্নান ক্রেসপোদের কথাও আসবে। এরপর তো মেসিদের এই ‘সোনালি প্রজন্ম’ই এল। সময়ের তো বটেই, সর্বকালেরও অন্যতম সেরা মেসি তো আছেনই, তাঁর পাশে আগুয়েরো, দি মারিয়া, মাচেরানো...কত কত নাম!

যদিও দলটার আক্রমণেই যত তারকা। মাঠে যত পেছন দিকে যেতে থাকবে, ততই এই সোনালি প্রজন্মের আর্জেন্টিনা ছিল রিক্ত। মাঝমাঠে মাচেরানোর পাশে বানেগা-বিলিয়ার মতো কেউ ছিলেন, রক্ষণে ওতামেন্দি-রোহোর মতো নাম। ফল? আক্রমণে দারুণ দলটার রক্ষণ সব সময়ই ছিল নড়বড়ে, তার খেসারত দিয়ে আর্জেন্টিনার এই সোনালি প্রজন্মও শিরোপাহীন।

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আক্ষেপটা মেসিরই বেশি। বার্সেলোনার হয়ে ক্লাব ক্যারিয়ারে সম্ভাব্য সবই জিতেছেন, কয়েকবার করেই জিতেছেন। কিন্তু আর্জেন্টিনার হয়ে শিরোপার ভান্ডার একেবারেই শূন্য। ২০০৮ অলিম্পিক আর ২০০৫ যুব বিশ্বকাপ তো আর আর্জেন্টিনার সিনিয়র দলের হয়ে অর্জন নয়! ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেও শিরোপা জেতা হয়নি তাঁর, কোপা আমেরিকায় রানার্সআপের পদক গলায় নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে ২০০৭, ২০১৫ ও ২০১৬ সালে।

মেসির বয়স এখন ৩৩। এ বছর আর্জেন্টিনা-কলম্বিয়ায় কোপা আমেরিকা হওয়ার কথা থাকলেও করোনার কারণে সেটি এক বছর পিছিয়ে গেছে। ২০২১ কোপায় মেসির বয়স হবে ৩৪। ক্যারিয়ারের সায়াহ্নে চলে এসেছেন। আন্তর্জাতিক শিরোপার আক্ষেপ ঘুচবে তাঁর? গোলডটকম বলছে, মেসি বিশ্বাসী, ঘুচবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কদিন আগে মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার গুঞ্জনের শেষ হয়েছে শেষ পর্যন্ত নানান ঝামেলায় তাঁর বার্সায় থাকার সিদ্ধান্তেই। তাঁর বার্সায় থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত জানানো সাক্ষাৎকারটা নিয়েছে গোলডটকম, যে সাক্ষাৎকারে মেসি খোলাখুলিই বার্সার অভ্যন্তরীণ ঝামেলা, বার্সা সভাপতি জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউর ছলচাতুরীর অনেক দিক তুলে ধরেছেন। সেই গোলডটকম লিখেছে, তারা জানতে পেরেছে, মেসি ২০২১ কোপা নিয়ে অনেক উচ্ছ্বসিত।

আগামী বছরের ১১ জুন শুরু হবে কোপা আমেরিকা, চলবে ১০ জুলাই পর্যন্ত। কলম্বিয়ার সঙ্গে যৌথভাবে তাঁর দেশের আয়োজনের এই কোপা নিয়ে মেসির উচ্ছ্বাসের কমতি নেই, এমনটাই জানাচ্ছে গোলডটকম। ফুটবলবিষয়ক ওয়েবসাইটটি লিখেছে, তারা জানতে পেরেছে, ২০২১ কোপা নিয়ে আর্জেন্টিনা বেশ কয়েকটি কারণেই উন্মুখ হয়ে আছে। এর মধ্যে একটি এই যে, মূল কোচ লিওনেল স্কালোনিসহ আর্জেন্টিনার বর্তমান কোচিং টিমের ওপর মেসির বিশ্বাস আছে।

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গোল লিখেছে, ২০১৮ বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার ভরাডুবির পর দায়িত্ব নিয়ে স্কালোনি যেভাবে প্রতিশ্রুতিশীল তরুণদের দলে এনেছেন, তা দেখে মেসির বিশ্বাস, বড় মঞ্চে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মতো একটা দল গড়ে উঠছে আর্জেন্টিনার। জিওভান্নি লো সেলসো, লিয়ান্দ্রো পারেদেস, রদ্রিগো দে পল, লাওতারো মার্তিনেজদের নিয়ে গড়া এই দারুণ প্রজন্মের প্রতিভায়ও অগাধ বিশ্বাস মেসির। দলটাকে নেতার মতো আগলেও রেখেছেন ৩৩ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। ২০১৯ কোপা আমেরিকায় তৃতীয় হওয়ার পথে দলটার সমন্বয় আস্তে আস্তে গড়ে উঠেছে। মাঠে সেবার খুব একটা ভালো না খেললেও মাঠের বাইরে নিজের দলকে আগলে রেখেছিলেন মেসি।

গোলডটকমের কথা, মেসির ইচ্ছা ২০২২ বিশ্বকাপেও খেলা। কিন্তু সেখানে একটু সংশয় আছে। করোনার কারণে এখনো দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বই শুরু হয়নি। তাই কাতারে অনুষ্ঠেয় সে বিশ্বকাপে মেসি এই তরুণ-প্রতিশ্রুতিশীল দলটার নেতা হয়ে থাকতে পারবেন কি না, তা সময় বলবে। তাঁর ফিটনেস, ফর্ম কত কিছুই তো জড়িয়ে এখানে। কিন্তু ২০২২ বিশ্বকাপ না হোক, আগামী বছরের কোপায় আন্তর্জাতিক মঞ্চে তাঁর নিজের শিরোপাখরা ঘোচাতে উন্মুখ মেসি।

তাতে ঘুচবে আর্জেন্টিনার ২৭ বছরের আক্ষেপও।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন