default-image
>মেসি আর ন্যু ক্যাম্পে থাকতে চান না বলে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের খবর। তবে মেনোত্তি টিওয়াইসি স্পোর্তকে বলেছেন সব ঝামেলা মিটিয়ে ফেলবেন ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসি

লিওনেল মেসি বার্সেলোনায় থাকবেন, নাকি অন্য কোথাও চলে যাবেন—ফুটবল বিশ্বে আলোচনার এক নম্বর বিষয় এখন এটাই। বার্সেলোনায় জোসেফ মারিয়া বার্তোমেউয়ের বোর্ডের সঙ্গে সম্পর্কটা মোটেই ভালো যাচ্ছে না তাঁর। সম্প্রতি খবর এসেছে, মেসি তাঁর নতুন চুক্তির আলোচনা থামিয়ে দিয়েছেন। যার মানে আগামী বছর জুনে বর্তমান চুক্তির মেয়াদ শেষ হলে আর ন্যু ক্যাম্পে থাকবেন না আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। কিন্তু আর্জেন্টিনার ১৯৭৮ বিশ্বকাপজয়ী কোচ ও সাবেক স্ট্রাইকার সিজার লুইস মেনোত্তি মনে করেন, মেসির সঙ্গে ঝামেলা মিটিয়ে ফেলবে বার্সেলোনা আর মেসিও নতুন চুক্তি করবেন।

মেসি এর আগে অনেকবারই বলেছেন, ক্যারিয়ারের শেষ তিনি বার্সাতেই করবেন। কিন্তু বার্তোমেউ আর তাঁর বোর্ডের একাংশের আচরণ মেসিকে সম্প্রতি হতাশ ও বিরক্ত করে তুলেছে। শুরুটা হয়েছে আর্নেস্তো ভালোর্দের বরখাস্তের বিষয়টি দিয়ে। ক্রীড়া পরিচালক এরিক আবিদাল বলেছিলেন, মেসিসহ সিনিয়র কয়েকজন খেলোয়াড়ের কারণেই বরখাস্ত হয়েছেন ভালভার্দে। যেটি মানতে পারেননি মেসি। এ ছাড়া সম্প্রতি মেসির মনমতো খেলোয়াড়ও কিনতে পারেনি বার্সা। বিশেষ করে নেইমারকে পিএসজি থেকে আবার ফিরিয়ে আনতে না পারায় বার্সা–বোর্ডের ওপর চটে ছিলেন আর্জেন্টিনার অধিনায়ক।

সব মিলিয়ে মেসি আর ন্যু ক্যাম্পে থাকতে চান না বলে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের খবর। তবে মেনোত্তি টিওয়াইসি স্পোর্তকে বলেছেন এসব ঝামেলা মিটিয়ে ফেলবেন ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসি, ‘সে এখনো তার সেরা ছন্দে আছে। বার্তোমেউয়ের চেয়ে বার্সেলোনার ইতিহাসে মেসির অবদান মেসি। আমার কখনোই মনে হয় না, তারা (বার্সেলোনা) এই সমস্যার সমাধান করবে না।’

মেসিকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত বর্তমানে আর্জেন্টিনা দলের পরিচালক মেনোত্তি বলেছেন, ‘মেসি আসলে মাঠে নামার পর চুক্তি–টুক্তি নিয়ে ভাবে না। চারপাশে কী হচ্ছে সেসবও ওর মাথায় থাকে না। সমস্যাটা আর্থিক বলে মনে হয় না আমার। আমি আসলে বুঝতে পারছি না এগুলো কী হচ্ছে।’

ক্লাব কর্তৃপক্ষের অনেকে আবার বলে যাচ্ছেন, মেসি তাঁর সেরা ছন্দে নেই। এটা নিয়েও একমত নন মেনোত্তি, ‘মেসি আগের মতোই আছে। এমনি এমনিতেই ক্যারিয়ারে ৭০০ গোল করেনি সে। সে এখনো তার সেরা ছন্দে আছে। এটা সত্যি যে সে এখন আর ১৮ বছরের বালক নেই। কিন্তু সে তো ৫০ বছরের বুড়োও নয়। তার সামনে আরও অনেক সময়ই পড়ে আছে।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0