লিওনেল মেসির এমন চেহারাই বলে দেয় কতটা ভালো আছেন বার্সেলোনায়।
লিওনেল মেসির এমন চেহারাই বলে দেয় কতটা ভালো আছেন বার্সেলোনায়। ছবি: রয়টার্স

লিওনেল মেসির ক্ষুব্ধ হওয়ার জের ধরে গত অক্টোবরে বার্সেলোনা সভাপতির পদ ছাড়েন জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ। কাতালান ক্লাবটি এখন দেনার দায়ে ডুবতে বসেছে। বার্সার অনেকে মনে করেন, মেসি গত মৌসুম শেষে যখন ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলেন, তখন তাঁকে বিক্রি না করে ভুল করা হয়েছে। এদিকে বার্তোমেউ পদত্যাগের পর থেকেই খালি পড়ে আছে বার্সা সভাপতির চেয়ার। নির্বাচনে সেই চেয়ারের দখল নিতে চান বার্সারই সাবেক সভাপতি হুয়ান লাপোর্তা। তাঁর মতে, বার্তোমেউ সভাপতি থাকতে মেসির সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে।

বাস্তবতা হচ্ছে, মেসি নিজেই ক্লাব ছাড়ার ঘোষণা দেওয়ার পর বলেছিলেন, বার্তোমেউ তাঁর সঙ্গে প্রতারণা করেছেন। কথা দিয়ে তিনি কথা রাখেননি। ওই সময়ে এক সাক্ষাৎকারে মেসি বলেছিলেন, ‘আমি ক্লাব ও সভাপতিকে বলেছিলাম, বার্সেলোনা ছেড়ে যেতে চাই। বছরজুড়েই তাঁকে এটা বলে এসেছি। আমি বিশ্বাস করেছি, আলাদা হওয়ার এটাই সময়।’ ছয়বারের ব্যালন ডি’অর জয়ী মেসিকে নিতে চেয়েছিল ম্যানচেস্টার সিটি। প্যারিস সেন্ট জার্মেইও ছিল সেই দৌড়ে।

বিজ্ঞাপন

মেসি ক্যারিয়ার শেষ করতে চেয়েছিলেন বার্সেলোনায়। কিন্তু নানা কারণেই সেটা সম্ভব হচ্ছিল না। যে কারণে ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলেন মেসি। হুয়ান লাপোর্তা নতুন করে সেই পুরোনো কথাগুলোই বললেন আবার, ‘লিও আসলে বার্সায়ই থাকতে চায়। আমি যা চাই, তা হলো তার সুখ ফিরিয়ে দেওয়া। এটা শুধু অর্থের প্রশ্ন নয়। আপনাকে একটা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক দল গড়তে হবে। লিও প্রতারিত হয়েছে এবং এটা একটা বড় ক্ষতি। সে একজন চ্যাম্পিয়ন এবং অন্য দল চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতুক, সেটা সে দেখতে পারে না।’

মেসির সঙ্গে এসব নিয়ে গত অক্টোবরে কথাও বলেন লাপোর্তা, ‘তার সঙ্গে শেষবার আমার কথা হয়েছিল গত অক্টোবরে। সে বার্সেলোনার হয়ে যা করেছে, সেটার জন্য আমি তার কাছে কৃতজ্ঞ। আমি ওকে ১৬ বছর বয়স থেকেই চিনি এবং সে একজন অসাধারণ মানুষ। আমাদের পারস্পরিক প্রশংসা ও শ্রদ্ধা রয়েছে। তার কাছে একটি বিশ্বাসযোগ্য প্রস্তাব অবশ্যই আমাদের ক্লাবের ভেতর থেকে দিতে হবে।’

default-image

এই মৌসুমে লা লিগার ৯ ম্যাচে ৪ গোল করেছেন মেসি। অন্যান্য প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মেসির পাশে যোগ হয়েছে ৭ গোল। লাপোর্তা চান মেসিকে এমন একটা দল উপহার দিতে, যে দলটা তাঁকে আনন্দ উপহার দেবে, ‘লিও এমন একটা দলে থাকতে চায়, যে দল তাকে আনন্দ ফিরিয়ে দিতে পারে। বার্সেলোনার মতো একটা দলের ড্রেসিংরুমে একটা দলীয় সংহতি দরকার। আমি এর আগেও বার্সেলোনার সভাপতি হয়েছি। এবং নাজুক পরিস্থিতিতে আমি দলকে অস্থিতিশীল করতে চাই না।’

গত মৌসুমে চির প্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের কাছে লিগ হারিয়েছে বার্সেলোনা। চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে ৮-২ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে। বর্তমানে লা লিগায় ৯ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে আছে বার্সেলোনা। তাদের চেয়ে ১০ পয়েন্ট বেশি নিয়ে টেবিলের শীর্ষে রয়েছে রিয়াল সোসিয়েদাদ। যদিও রিয়াল সোসিয়েদাদ বার্সার চেয়ে দুই ম্যাচ বেশি খেলেছে লিগে।

এখন সময়ই বলে দেবে মেসির চাওয়া কতটা পূরণ করতে পারবেন লাপোর্তা। তবে এর আগে অবশ্যই লাপোর্তাকে বার্সেলোনার সভাপতি পদে আবারও নির্বাচিত হতে হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন