বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দশ দিন ধরে মেসির বার্সায় থাকা-না থাকা নিয়ে নাটক যখন চলল, তখন মেসি চলে গেলে বার্সায় যাঁদের সবচেয়ে বেশি লাভ হবে বলে মনে হচ্ছিল, সেই তালিকায় সবার ওপরেই ছিল গ্রিজমানের নাম। কিন্তু দিন দু-এক আগে মেসি ‘ইউটার্ন’ নিয়ে জানিয়ে দিলেন, থাকছি! নিজ ইচ্ছায় নয় যদিও, বলতে গেলে থাকতে বাধ্য হচ্ছেন মেসি। তা মেসি থাকার কারণ যা-ই হোক, দুদিন আগে মেসিকে ঘিরে নাটকের মধ্যে ‘আমি চাই মেসি বার্সায় থেকে যাক’ বলে দেওয়া গ্রিজমানই নাকি পড়ছেন ঝামেলায়।

ঝামেলা বলতে, গত মৌসুমে যেমন নিয়মিত খেলার সুযোগ পাননি, এই মৌসুমেও একই অভিজ্ঞতা হতে পারে গ্রিজমানের। সেই ধারণা থেকেই হয়তো ডেইলি মেইলের খবর, বার্সা বেচে দিতে চায় গ্রিজমানকে।

১২ কোটি ইউরোতে গত মৌসুমে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে গ্রিজমানকে বার্সা কিনে আনার পর থেকেই প্রশ্ন ছিল, ২০১৮ বিশ্বকাপজয়ী ফরাসি ফরোয়ার্ডকে বার্সা খেলাবে কোথায়? আক্রমণে যে জায়গায় চলাচল মেসির, গ্রিজমানেরও অনেকটা তা-ই। কিন্তু খেলা গড়ায়, গোল করা বা করানোতে গ্রিজমানের চেয়ে যে অনেক এগিয়ে মেসি, তা তো আর বলার অপেক্ষা রাখে না! ফল? ১২ কোটি ইউরোর গ্রিজমানের জায়গা মৌসুমের বেশিরভাগ জুড়েই হলো বেঞ্চে। গত মৌসুমে লিগে মাত্র ৯ গোল করেছেন ‘গ্রিজি।’

এই মৌসুমে বার্সায় নতুন কোচ এসেছেন, এসেই দিন বদলের ডাক দিয়েছেন। গ্রিজমানও দেখেছিলেন নতুনের আশা। মেসি বার্সা ছাড়ার ঘোষণা দেওয়ার পর স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম জানিয়েছিল, বার্সার নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান নাকি গ্রিজমানকে বলেছেন, মেসি চলে গেলে তাঁকেই দলে মেসির ভূমিকাটা দেবেন! কিন্তু মেসি ক্লাবে থেকে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়ার পর আবার লেগেছে প্যাঁচ।

সময়ের তো বটেই, সর্বকালেরও অন্যতম সেরা মেসিকে একাদশে রেখেই যে দল সাজাবেন কোম্যান—তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এদিকে দলের কলেবর ছোট করতে আর আনসু ফাতি, রিকি পুচ ও ওসমান ডেম্বেলের মতো তরুণদের আরও সুযোগ করে দিতে অনেক তারকাকেই ছেঁটে ফেলেছেন কোম্যান, এমনই জানাচ্ছে ডেইলি মেইল। এরই মধ্যে বার্সা ছেড়ে সেভিয়ায় ফিরে গেছেন মিডফিল্ডার ইভান রাকিতিচ। আর্তুরো ভিদাল, লুইস সুয়ারেজরা বার্সা ছাড়ছেন বলে! বার্সায় জর্জিনিও ভাইনালদাম ও মেম্ফিস ডিপাই আসছেন বলে গুঞ্জন।

আক্রমণে গ্রিজমান আর ফিলিপে কুতিনিওর ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জন ছিল। কিন্তু মাত্রই শেষ হওয়া মৌসুমে বার্সেলোনা থেকে ধারে বায়ার্ন মিউনিখে গিয়ে মিউনিখের ক্লাবটির হয়েই চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতা কুতিনিওকে বার্সা কোচ কোম্যান আরও দেখতে চান বলে জানাচ্ছে ডেইলি মেইল। কোপটা সে ক্ষেত্রে পড়ছে গ্রিজমানের ওপরই। তাঁর বেতন বেশি, কিন্তু মেসি থাকলে তাঁর খেলার সুযোগ কমে যাবে—এত বেতনের একজনকে বেঞ্চে রাখবে না বার্সা, এমনই সুর ডেইলি মেইলে।

সে ক্ষেত্রে গ্রিজমানের সম্ভাব্য ঠিকানা কী হতে পারে? ডেইলি মেইল লিখছে, লিভারপুলে ইয়ুর্গেন ক্লপ যেমন ‘প্রেসিং’ কৌশলে খেলেন, তাতে গ্রিজমান সহজেই মানিয়ে নিতে পারবেন। বার্সেলোনার আগে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে ডিয়েগো সিমিওনের অধীনেও প্রতিপক্ষকে চাপে রেখে বল কেড়ে নেওয়ার কৌশলে খেলতেন কিনা গ্রিজমান! এর বাইরে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে গ্রিজমানের নাম জড়িয়ে গুঞ্জন তো দুই মৌসুম আগেও দলবদলের নিয়মিত খবর ছিল, এখানেও ইউনাইটেডের নাম চলে আসছে স্বয়ংক্রিয়ভাবেই। ডেইলি মেইলের হিসেবে জড়িয়ে যাচ্ছে আর্সেনালের নামও।

যদিও স্প্যানিশ দৈনিক মুন্দো দেপোর্তিভো পুরো উল্টোটাই লিখছে। ইংলিশ সংবাদমাধ্যমে গ্রিজমানের দল ছাড়ার গুঞ্জনের খবরের কথা লিখে মুন্দো দেপোর্তিভো লিখেছে, এমন কিছুই হওয়ার সম্ভাবনা নেই। গ্রিজমান দল ছাড়ছেন না। এই মুহূর্তে ফ্রান্স জাতীয় দলের হয়ে উয়েফা নেশনস লিগে ব্যস্ত গ্রিজমান জাতীয় দলের উদ্দেশে ক্লাব ছাড়ার আগে কোম্যানের সঙ্গে কথা বলে গেছেন বলেও জানাচ্ছে স্প্যানিশ পত্রিকাটি। সে সময়ে গ্রিজমানের ওপর ভরসার কথাও আরেকবার কোম্যান জানিয়েছেন।

কিন্তু তখনো তো মেসির বার্সায় থাকার ঘোষণা আসেনি। এত দিনে হিসেব কি পাল্টেছে?

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন