কাল এক বছর পর বেঞ্চে ম্যাচ শুরু করেছিলেন মেসি।
কাল এক বছর পর বেঞ্চে ম্যাচ শুরু করেছিলেন মেসি। ছবি: এএফপি

রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে ম্যাচের আগে বার্সেলোনা-সমর্থকেরা হতবাক—মেসি নেই একাদশে! সঙ্গে সঙ্গেই শঙ্কার কালো মেঘ ছড়িয়ে পড়ল—কী হয়েছে বার্সেলোনা অধিনায়কের? এমন কী হয়েছে যে টানা চার ম্যাচ জয়-বঞ্চিত থাকা বার্সা যখন বেতিসকে হারিয়ে জয়ে ফেরার জন্য মরিয়া, তখন মেসিকে বসিয়ে রাখা হলো একাদশের বাইরে! নাকি আবার মেসি-কোচ দ্বন্দ্ব শুরু হলো বার্সেলোনায়?

মেসি অবশ্য শেষ পর্যন্ত মাঠে নেমেছিলেন। নেমে বার্সার বড় জয়ে দারুণ ভূমিকা রেখেছেন জোড়া গোলে। প্রথমার্ধ শেষে চোটগ্রস্ত আনসু ফাতির জায়গায় মাঠে নামতেই হলো আর্জেন্টাইন তারকাকে। প্রথমে পেনাল্টি থেকে গোল পেলেও এই মৌসুমে ‘পেনাল্টি ছাড়া’ প্রথম গোলটি তিনি ঠিকই আদায় করে নিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

মেসিকে মাঠের বাইরে দেখেই বিতর্কের জন্য আস্তিন গুটিয়েছিলেন বার্সা-সমর্থকেরা। এমনিতেই ক্লাবের সঙ্গে মেসির সম্পর্কটা বেশ কিছুদিন ধরেই অস্থির, বেতিসের বিপক্ষে মাঠে না নামলে সেটি ডালপালা মেলতই। বিতর্কটা অবশ্য শুরুর আগেই থামিয়ে দিয়েছেন বার্সেলোনা কোচ রোনাল্ড কোমান। খেলা যখন ১-১ গোলে সমতা, ঠিক তখনই মেসিকে দরকার হলো বার্সেলোনার ডাচ কোচের। মেসি কোচ, সমর্থকদের হতাশ করেননি। মেসির উপস্থিতিতে শেষ পর্যন্ত ম্যাচের স্কোরলাইন দাঁড়িয়েছে ৫-২। প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঝাঁজ থাকা ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত একপেশেই।

ম্যাচ শেষে বিতর্কের আস্বাদন করেছিলেন অনেকেই। কোমানকে মুখোমুখি হতে হয়েছে সেই প্রশ্নের—মেসিকে শুরুতে খেলানো হলো না কেন! বার্সেলোনা কোচ প্রস্তুত হয়েই ছিলেন। পুরো ব্যাপারটা যে মেসির সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেই করা হয়েছে, সেটি জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। মেসি নাকি কাল ম্যাচ খেলার মতো পুরোপুরি ফিট ছিলেন না। দিনামো কিয়েভের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচের হালকা ব্যথা পেয়েছিলেন, সেটিই ভুগিয়েছে। কাল বেতিসের বিপক্ষে ম্যাচের আগে সেই ব্যথাটা যায়নি। তাই মাঠের বাইরেই রাখা হয় তাঁকে, ‘আমরা মেসির সঙ্গে কথা বলেছি। দিনামো কিয়েভের বিপক্ষে ম্যাচে সে হালকা চোট পেয়েছিল। আজকের ম্যাচের আগে সে পুরোপুরি খেলার অবস্থায় ছিল না।’

default-image

পরে মেসি তাহলে মাঠে নামলেন কীভাবে? এর উত্তরও কোমানের কাছে তৈরিই ছিল, ‘তাকে বেঞ্চে রাখা হয়েছিল, এটা মাথায় রেখে যে যেকোনো সময় তাকে দরকারও হতে পারে। সে যদি শারীরিকভাবে যথেষ্ট ফিট থাকে, তাহলে পরের ম্যাচে সে শুরু থেকেই খেলবে।’

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে গ্রানাডার বিপক্ষে ম্যাচে শেষবারের মতো প্রথম একাদশে ছিলেন না মেসি। সেটি অবশ্য চোট থেকে ফেরার ম্যাচ ছিল। এই মৌসুমে কালই বেটিসের বিপক্ষে বদলি হিসেবে নামলেন। এর মধ্যে অবশ্য তিন ম্যাচের দুটিতে নিজেকে সরিয়ে রেখেছিলেন বিশ্রামের জন্য। অন্যটি খেলতে পারেননি চোটের কারণে। নির্দিষ্ট করে বললে ৪১৩ দিন পর বেঞ্চে বসলেন আর্জেন্টাইন তারকা।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0