default-image

লিওনেল মেসি খেলতে পারবেন? তাঁর চোট ঠিক হয়েছে? টানা তৃতীয় জয় পাবে আর্জেন্টিনা? একের পর এক চোটে ভোগা আর্জেন্টিনা শেষ পর্যন্ত কোন একাদশ খেলাবে?

২০২২ কাতার বিশ্বকাপের দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে কাল নিজেদের মাঠে প্যারাগুয়ের বিপক্ষে নামবে আর্জেন্টিনা। বাংলাদেশ সময় কাল শুক্রবার সকাল ছয়টায় হবে ম্যাচ। তার আগে আর্জেন্টিনাকে ঘিরে এ প্রশ্নগুলো ওঠাই স্বাভাবিক। কয়েক দিন ধরে যে একের পর এক চোটে আক্রান্ত আর্জেন্টিনা!

রবের্তো পেরেইরা, মার্কোস আকুনিয়া, পাওলো দিবালা, এদুয়ার্দো সালভিওরা দল ঘোষণার পরে চোটে পড়েছেন। সের্হিও আগুয়েরো, জেরমান পেৎসেয়া, হুয়ান ফয়েথরা তো আগে থেকেই চোটে। চোটের এমনই চোটপাট, এমনকি স্বয়ং লিওনেল মেসির খেলা নিয়েই তৈরি হয় সংশয়।

তবে আর্জেন্টিনার সমর্থকদের জন্য সুখবর, মেসিকে ঘিরে সে সংশয় নেই। বোকা জুনিয়র্সের মাঠ লা বোমবোনেরায় আগামীকালের ম্যাচে মেসি খেলবেন বলে নিশ্চিত করেছেন আর্জেন্টিনা কোচ লিওনেল স্কালোনি। তা মেসিকে নিয়ে কেমন হবে আর্জেন্টিনার একাদশ? রক্ষণ-মাঝমাঠ-আক্রমণে কাদের নিয়ে দল সাজাবেন স্কালোনি? দলের চোটের সর্বশেষ অবস্থা কী?

বিজ্ঞাপন

প্রথমে মেসির প্রসঙ্গটাই আসুক। তাঁকে নিয়ে সংশয় ছড়ায় স্কালোনির একটি কথায়। দুদিন আগে আর্জেন্টিনা কোচ জানান, মেসির অ্যাঙ্কেলে হালকা চোট আছে। যে কারণে ক্লাব বার্সেলোনার হয়ে সর্বশেষ ম্যাচে বেতিসের বিপক্ষেও শুরুর একাদশে ছিলেন না ৩৩ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড। গত শনিবার বার্সেলোনার ৫-২ গোলে জেতা সেই ম্যাচে বিরতির পর নেমে অবশ্য জোড়া গোল করেন মেসি, যার একটি ছিল ‘ওপেন প্লে’ থেকে। এই মৌসুমে ক্লাব ও জাতীয় দল মিলিয়ে প্রথম ছয়টি গোলই পেনাল্টি থেকে করার পর সেদিনই প্রথম সেটপিসের বাইরে গোল পান মেসি।

default-image

কিন্তু স্কালোনি মেসির চোটের কথা জানানোর পর আর্জেন্টিনা–ভক্তদের সে আনন্দ উধাও হয়ে যাওয়ার জোগাড়! তবে আশঙ্কা কমেছে আর্জেন্টিনার অনুশীলনের পর। কাল সংবাদ সম্মেলনে স্কালোনিই বলেছেন, ‘লিও-র ব্যাপারে বলব, ও স্বাভাবিকভাবেই অনুশীলন করেছে। অ্যাঙ্কেলে অস্বস্তি ছিল বলে ওর ক্লাবের হয়ে ও এক অর্ধে খেলেছে, কিন্তু সেটা ওকে এই ম্যাচ থেকে দূরে রাখবে না। আমাদের হয়ে আগামীকাল খেলার জন্য ও প্রস্তুত।’

সংবাদ সম্মেলনে শুধু মেসিই নয়, একাদশে আরও দুজনের নামও কাল সংবাদ সম্মেলনে স্কালোনি নিশ্চিত করেই দিয়েছেন বলে জানাচ্ছে আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম দিয়ারিও ওলে—ডিফেন্ডার লুকাস মার্তিনেজ কুয়ার্তা ও স্ট্রাইকার লাওতারো মার্তিনেজ।

ইন্টার মিলানে খেলা মার্তিনেজ গত রোববার লিগে আতালান্তার বিপক্ষে ম্যাচে চোট পান। ১-১ গোলে ড্র সেই ম্যাচে ৭৪ মিনিটে মাঠ ছাড়ার আগে ৫৮ মিনিটে ইন্টারের গোলটিও করেন মার্তিনেজ। তাঁকেও অনুশীলনে দেখে ম্যাচে নামার মতোই মনে হয়েছে স্কালোনির।

default-image

তবে মার্তিনেজ না নামতে পারলে সে ক্ষেত্রে বায়ার লেভারকুসেনের লুকাস আলারিওকে স্ট্রাইকার হিসেবে খেলাতে পারে আর্জেন্টিনা। স্কালোনি অবশ্য সংবাদ সম্মেলনে এর পাশাপাশি মেসি কিংবা আবার জাতীয় দলে ফেরা আনহেল দি মারিয়াকে খেলানোর কথাও বলেছেন।

এ তো গেল মেসি আর মার্তিনেজের প্রসঙ্গ। কুয়ার্তার চোট নেই, তবে ইতালির ক্লাব ফিওরেন্তিনায় খেলা ২৪ বছর বয়সী ডিফেন্ডারের আর্জেন্টিনায় আসার পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায় করোনার কারণে বেঁধে দেওয়া নিষেধাজ্ঞা। পরে আর্জেন্টাইন ফেডারেশন বিমান ভাড়া করে তাঁকে নিয়ে এসেছে বলে জানিয়েছে দিয়ারিও ওলে। যদিও পরে এসে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন কুয়ার্তা, তবু তাঁর খেলাও নিশ্চিত বলে জানাচ্ছে পত্রিকাটি।

বিজ্ঞাপন

এই তিনজনের বাইরে আর্জেন্টিনার একাদশে আর কে থাকবেন? আর্জেন্টাইন দৈনিক টিওয়াইসি স্পোর্টস যা জানাচ্ছে, তাতে বলিভিয়ার মাঠে বাছাইপর্বের সর্বশেষ ম্যাচের একাদশে গোলকিপার, রক্ষণ আর আক্রমণে কোনো বদল না আসার সম্ভাবনাই বেশি।

default-image

অর্থাৎ গোলপোস্টে ফ্রাঙ্কো আরমানি, রক্ষণে গনসালো মন্তিয়েল, কুয়ার্তা, নিকোলাস ওতামেন্দি ও নিকোলাস তাগলিয়াফিকো। আক্রমণে মেসি ও মার্তিনেজের পাশে লুকাস ওকাম্পোস। ৪-৩-৩ ছকে মাঝমাঠে লিয়ান্দ্রো পারেদেসের খেলাও নিশ্চিত। বাকি দুই জায়গার জন্য লড়ছেন তিনজন—এজেকিয়েল পালাসিওস, রদ্রিগো দে পল ও জিওভান্নি লো সেলসো।

গত মাসে বলিভিয়ার বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচে মাঝমাঠে পারেদেসের সঙ্গে খেলেছিলেন পালাসিওস ও দে পল। লো সেলসো অবশ্য গত মাসের বাছাইপর্বের দুই ম্যাচেই খেলতে পারেননি চোটের কারণে। এবার চোটমুক্ত টটেনহাম মিডফিল্ডার দলে আছেন, আছেন একাদশে থাকার লড়াইয়েও। দিয়ারিও ওলে অবশ্য অত হিসাব-নিকাশ রাখেনি। তাদের তথ্য অনুযায়ী, কাল আর্জেন্টিনার মাঝমাঠে দে পল ও পারেদেসের সঙ্গে পালাসিওসই খেলবেন।

আর্জেন্টিনার প্রতিপক্ষ দলেও অবশ্য একজন আর্জেন্টাইন আছেন! প্যারাগুয়ের কোচ এদুয়ার্দো বেরিজ্জো নিজেই আর্জেন্টাইন। কিংবদন্তি আর্জেন্টাইন কোচ মার্সেলো বিয়েলসার ভাবশিষ্য এই বেরিজ্জো প্যারাগুয়ের চিরায়ত ‘রক্ষণ সামলে পাল্টা আক্রমণ’ ধাঁচের ফুটবল পাল্টে দলটাকে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলানোর চেষ্টা করছেন। তাতে কিছু ঝামেলা যে হচ্ছে না, তা নয়। তবে বাছাইপর্বের প্রথম দুই ম্যাচে খারাপ করেনি প্যারাগুয়ে। পেরুর বিপক্ষে ২-২ গোলে ড্র দিয়ে বাছাইপর্ব শুরুর পর ভেনেজুয়েলার মাঠে গিয়ে জিতেছে ১-০ গোলে।

default-image

তবে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে আগামীকাল প্যারাগুয়ের চিরায়ত কৌশলে খেলতে দেখলেও হয়তো অবাক হওয়ার কিছু থাকবে না। গত কয়েক বছরের মতো এখনো আর্জেন্টিনার রক্ষণ গতির অভাবে ভোগে। বিশেষ করে ওতামেন্দি প্রতিপক্ষের চাপের মুখে নড়বড়ে। সে ক্ষেত্রে আনহেল রোমেরো, দারিও লেজকানো ও মিগেল আলমিরনের মতো গতিশীল ফরোয়ার্ডদের নিয়ে আর্জেন্টিনাকে পাল্টা আক্রমণেই ভোগাতে চাইবে প্যারাগুয়ে।

মন্তব্য পড়ুন 0