কাল জুভেন্টাসের বিপক্ষে স্বরূপে লিওনেল মেসি।
কাল জুভেন্টাসের বিপক্ষে স্বরূপে লিওনেল মেসি। ছবি: এএফপি

জাদুকর, ভিনগ্রহের ফুটবল খেলেন—ব্যবহারে ব্যবহারে এই বিশেষণগুলোও ক্লিশে হয়ে গেছে! লিওনেল মেসির ফুটবলশৈলী বর্ণনা করতে এখন খুঁজতে হয় নতুন শব্দ। তবে সাবেক ইতালি স্ট্রাইকার ক্রিস্টিয়ান ভিয়েরি নতুন এক তকমা খুঁজে পেয়েছেন—বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা যেন ফুটবলের হ্যারি পটার।

বয়সের সিঁড়ি ৩৩টি পেরিয়েছে। কিন্তু মেসির ধার আগের মতোই। কাল চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম পর্বে জুভেন্টাসের মাঠে জুভেন্টাসের বিপক্ষে ২-০ ব্যবধানে গোলে জিতেছে বার্সা। প্রথমটি করেছেন ওসমান দেম্বেলে। দ্বিতীয়টি এসেছে মেসির পেনাল্টিতে।  কাল বার্সার গুরুত্বপূর্ণ পাঁচটি পাস এসেছে ছয়বার ব্যালন ডি’অর বিজয়ীর পা থেকে। প্রতিপক্ষের অর্ধে দিয়েছেন ম্যাচের সর্বোচ্চ ৬৫টি পাস। মেসি চ্যাম্পিয়নস লিগ শুরু করেন ২০০৪-০৫ মৌসুমে।  ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের প্রতিযোগিতায় এই সময়ে বার্সা তারকা গোল সহায়তা করেছেন ৩৫টি গোলে। গোল সহায়তায় তাঁর চেয়ে এগিয়ে শুধু ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো (৩৮)।        

বিজ্ঞাপন

মেসিতে মুগ্ধ ভিয়েরি বলছেন, ‘অসাধারণ বার্সেলোনা। একেবারের একপেশে ম্যাচ। তারা ছয়-সাতটা গোল সহজেই করতে পারত। দুর্দান্ত খেলেছে। আর মেসি তো জাদুকর। সে ফুটবলের হ্যারি পটার।’ সাবেক ইতালীয় স্ট্রাইকার তো ঘোষণাই দিয়ে দিলেন, মেসি যদি খেলা ছেড়ে দেন তিনি ফুটবল খেলা দেখাই ছেড়ে দেবেন, ‘সে (মেসি) যেদিন খেলা বন্ধ করে দেবে আমিও আমার টিভি ছুড়ে ফেলে দেব। টিভির ধারেকাছেও যাব না। তখন নেটফ্লিক্স দেখব। সে খেলা ছাড়ার পর আসলে কিছু দেখারও থাকবে না।’
কাল অবশ্য জুভেন্টাসও সুযোগ তৈরি করেছিল, কিন্তু আলভারো মোরাতার তিনটি গোলই বাতিল হয়েছে অফসাইডে।

ভিয়েরির চোখে তবু বার্সা ম্যাচটা জিতেছে ভীষণ দাপটের সঙ্গে। সাবেক জুভ ফরোয়ার্ড বরং অবাক, এই বার্সা কীভাবে এল ক্লাসিকোতে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে হারল, ‘এটা অন্যরকম ফুটবল। জানি না তারা রিয়াল মাদ্রিদের কাছে কীভাবে হেরেছে। কিন্তু এই ম্যাচটা যদি দেখেন (জুভেন্টাসের বিপক্ষে) আপনাকে বলতে হবে, এই বছর আর কোনো প্রতিপক্ষ তাদের হারাতে পারবে না! তারা যেভাবে খেলেছে অসম্ভব!’

বিজ্ঞাপন
default-image

প্রশংসাটা তিনি করছেন বাস্তবের মাটিতে পা রেখেই, সেটি বোঝা গেল ভিয়েরির এই কথায়, ‘প্রতিটি ম্যাচই আলাদা। তবে যে বার্সেলোনাকে কাল সবাই দেখল অবিশ্বাস্য! যখন আপনি এমন একজন ‘১০ নম্বর’ পাবেন, এটা দুর্দান্তই হবে। দর্শকদের জন্য সমবেদনা, তাদের মাঠে এসে খেলা দেখার সুযোগ নেই। তবে দর্শকদের এমন দলের খেলা দেখতে দেওয়া উচিত।’

মন্তব্য পড়ুন 0