মেসি-বার্সেলোনা

দাবার ঘুঁটির চাল থামবে না!

বার্সেলোনায় অবতরণের পর হোর্হে মেসিকে ঘিরে ভিড় জমান সংবাদকর্মীরা। ছবি: টুইটার
বার্সেলোনায় অবতরণের পর হোর্হে মেসিকে ঘিরে ভিড় জমান সংবাদকর্মীরা। ছবি: টুইটারছবি: টুইটার
বিজ্ঞাপন

তো...! দাবার ঘুঁটির চাল চলবে তাহলে? কেউ-ই যে ছাড় দিতে রাজি নয়। না মেসি পক্ষ; না বার্সেলোনা ফুটবল ক্লাব পক্ষ।

কোনো রকমের সমঝোতা ছাড়াই শেষ হলো লিওনেল মেসির বাবা হোর্হে মেসি ও বার্সেলোনা সভাপতি জোসেপ বার্তোমেউয়ের বৈঠক। প্রায় ৯০ মিনিট চলা এই বৈঠকে দুই পক্ষই নিজেদের আগের অবস্থানে অনড়। এক পক্ষ বলছে মেসি ক্লাব ছাড়বেন। আরেক পক্ষ মেসিকে ক্লাব ছাড়তে দিতে রাজি নয়। স্প্যানিশ ক্রীড়া দৈনিক মার্কার অনলাইনে এই তথ্য দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যার কিছু আগে মেসির পক্ষে আলোচনায় বসেন তার বাবা হোর্হে মেসি। তার সঙ্গে ছিলেন মেসির ভাই ও পরামর্শক রদ্রিগো মেসি। মেসির বাবা ও ভাইয়ের সঙ্গে তাদের এক আইনজীবীও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। ন্যু ক্যাম্পেই বহুল কাঙ্ক্ষিত এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। যদিও ফলাফল অনুমিতই ছিল। দুই পক্ষের কেউ সমঝোতা কিংবা কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারেনি। বৈঠকে বার্তোমেউয়ের সঙ্গে ছিলেন ক্লাবের বোর্ড সদস্য জাভিয়ের বোর্ডস।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে না পারলেও দুই পক্ষই মুখোমুখি বসে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছে। মেসির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, কাতালান ক্লাবে তার সময় শেষ। আর ক্লাবের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে মেসিকে এই মুহূর্তে ক্লাব ছাড়তে হলে বাই আউট ক্লজের পুরো ৭০ কোটি ইউরো দিতে হবে। অন্যদিকে আর্জেন্টাইন তারকার দাবি, শর্ত মেনেই তিনি এখন ফ্রি-এজেন্ট। তবে বৈঠকের পর দুই পক্ষের কেউই আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলেনি এখনো।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই বৈঠকের পর বার্সেলোনা সমর্থকদের অপেক্ষা আরও দীর্ঘ হলো; ক্ষণ গুনছে মেসিভক্তরাও। আপাতত এ ছাড়া তো আর উপায়ও নেই!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন