বিজ্ঞাপন

এদিকে সময় যত গড়াচ্ছে, ততই যেন বাস্তবতাটা বুঝতে পারছে বার্সেলোনা। তারা বুঝছে, করোনাকালে আর্থিক টানাটানির মধ্যে হরলান্ডকে নেওয়ার সামর্থ্য তাদের হয়তো নেই।

এ ছাড়া মেসির চুক্তি নবায়নের বিষয়টাও আছে। চুক্তি নবায়ন না করলে আসছে জুনে ক্লাব ছাড়ার ‘ছাড়পত্র’ পেয়ে যাবেন দলের অধিনায়ক। মেসির চুক্তি নবায়ন করা মানে আর্থিকভাবে বেশ বড় অঙ্কের আরেকটা ধাক্কা।

default-image

স্বাভাবিক অবস্থাতেই যেকোনো ক্লাবের এমন বড় বড় দুটি আর্থিক খরচ একসঙ্গে মেটানো কঠিন, আর এখন তো এক বৈশ্বিক অতিমারির সময়। সঙ্গে হাজারো ধারদেনার বিষয়টাও আছে। চাইলেই তো আর বার্সেলোনা অনেক কিছু করতে পারবে না!

এ ব্যাপারটা মাথায় রেখেই নির্ভরযোগ্য স্প্যানিশ সাংবাদিক জাভি তোরেস স্প্যানিশ টেলিভিশন চ্যানেল টিভিথ্রিকে জানিয়েছেন, দুটি নয়, একটি কাজই করতে পারবে বার্সেলোনা।

আর সে ক্ষেত্রে হরলান্ড নয়, নিজেদের ইতিহাসের শ্রেষ্ঠতম খেলোয়াড় মেসিকেই প্রাধান্য দেবে তারা। পরে নিজে টুইট করেও ব্যাপারটা পরিষ্কার করেছেন তোরেস, ‘বার্সেলোনা হরলান্ডকে দলে আনার পরিকল্পনা বাদ দিয়েছে। কারণ একের পর এক ধারে জর্জরিত ক্লাবটার পক্ষে শুধু একটা বড় আর্থিক কাজই করা সম্ভব। তাই তারা আগামী মৌসুমে মেসির চুক্তি নবায়নের বিষয়টাকে প্রাধান্য দিয়েছে।’

জাভির টুইট থেকে পরিষ্কার, এই মৌসুমে না পারলেও আগামী মৌসুমে হরলান্ডকে পাওয়ার জন্য আবারও চেষ্টা করবে তারা। কিন্তু এর মধ্যে হরলান্ড যে অন্য কোনো ক্লাবে যোগ দেবেন না, তার কী নিশ্চয়তা? যেখানে এর মধ্যেই ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি ও রিয়াল মাদ্রিদের মতো ক্লাবগুলো তাঁকে পেতে ভালোই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
এখন বার্সেলোনা কী করে, এটাই দেখার বিষয়!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন