গত রাতে নিজেদের ম্যাচে ড্র করে এগিয়ে যাওয়ার আরেকটা সুযোগ হারিয়েছে আতলেতিকো।
গত রাতে নিজেদের ম্যাচে ড্র করে এগিয়ে যাওয়ার আরেকটা সুযোগ হারিয়েছে আতলেতিকো।ছবি : রয়টার্স

‘সামাজিক দূরত্ব’।

করোনা মহামারির কারণে যে কয়েকটা শব্দের সঙ্গে মানুষের নতুন করে পরিচিতি হয়েছে, যে শব্দগুলো করোনার সময়ে হয়েছে বহুল চর্চিত, তার মধ্যে এই শব্দজোড়া থাকবেই। করোনা থেকে বাঁচার জন্য মানবসংস্পর্শ এড়িয়ে চলার আহ্বান জানানো হচ্ছে সবাইকে। বলা হচ্ছে, সবাই যেন শারীরিক সংস্পর্শ থেকে দূরে দূরে থাকে।

স্প্যানিশ লিগে চলতি মৌসুমের শুরুতে আতলেতিকোর দুর্দান্ত ফর্ম ও লিগের দুই বাঘা দল রিয়াল-বার্সার বাজে ফর্ম মিলিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে উঠে গিয়েছিল দিয়েগো সিমিওনে-সুয়ারেজদের দল। রিয়াল-বার্সার সঙ্গে আতলেতিকোর ব্যবধান এতটাই বেশি ছিল, একসময় তো মনেই হচ্ছিল আতলেতিকোতে সিমিওনের ১০ বছর উদ্‌যাপন হবে লিগ শিরোপা দিয়েই। আতলেতিকো লিগ তো জিতবেই, কত ব্যবধানে জেতে, এটাই তখন আলোচনার বিষয় ছিল। অনেকে তখন ঠাট্টা করে বলেছিলেন, রিয়াল-বার্সার সঙ্গে ‘সামাজিক দূরত্ব’ মেনে চলছে আতলেতিকো।

বিজ্ঞাপন
default-image

কিন্তু এখন এই তিন দলের ভাগ্য এমনভাবে উল্টেছে, সে ‘সামাজিক দূরত্ব’ কমতে কমতে একদম শূন্যের কোঠায় এসে পৌঁছেছে। আতলেতিকো শীর্ষে আছে ঠিকই, কিন্তু দ্বিতীয় স্থানে থাকা রিয়াল মাদ্রিদ তাদের ঘাড়ের ওপর নিশ্বাস ফেলছে একদম, সংস্পর্শ বজায় রেখেছে। ভেবে দেখুন, রিয়াল-আতলেতিকো যদি দল না হয়ে রক্তমাংসের মানুষ হতো, তাহলে এই করোনাকালে সামাজিক দূরত্ব না মানার জন্য হয়তো জরিমানা-টরিমানা হয়ে যেত!

এক দিন আগে বার্সেলোনাকে হারিয়ে আতলেতিকোকে নিজেদের ধরাছোঁয়ার মধ্যেই এনে ফেলেছে রিয়াল। গত রাতে নিজেদের ম্যাচে ড্র করে এগিয়ে যাওয়ার আরেকটা সুযোগ হারিয়েছে আতলেতিকো। রিয়ালের মুখের হাসি ফুটিয়ে রিয়াল বেতিসের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে তারা। বেলজিয়ান উইঙ্গার ইয়ানিক কারাসকোর গোলে এগিয়ে যায় আতলেতিকো। পরে সাবেক বার্সা উইঙ্গার ক্রিস্টিয়ান তেয়োর গোলে সমতায় ফেরে বেতিস। আর তাতেই নিশ্চিত হয়ে যায় পূর্ণ ৩ পয়েন্ট পাওয়া হচ্ছে না সিমিওনের দলের।

এই ড্রয়ে স্প্যানিশ লিগ লড়াইয়ের পরিস্থিতি আরও জমে গেল। শীর্ষ তিনে থাকা আতলেতিকো, রিয়াল ও বার্সা সবাই ৩০টি করে ম্যাচ খেলেছে। ৬৭ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে আতলেতিকো। একদম ১ পয়েন্ট পেছনেই রিয়াল। রিয়ালের চেয়ে ১ পয়েন্ট কম আবার বার্সার।

‘জমে ক্ষীর’ কথাটা হয়তো এমন পরিস্থিতির জন্যই প্রযোজ্য!

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন