default-image

কাল ম্যাচে সুবিধাজনক অবস্থায় ছিল দিল্লি। ১৭ ওভার শেষে ১৪২ রান ছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর। উইকেটে শাহবাজ খান ও দীনেশ কার্তিক। নিজের শেষ ওভার করতে এসেছিলেন মোস্তাফিজ। বাংলাদেশি পেসারদের বিপক্ষে নিদাহাস ট্রফিতে তাণ্ডব চালানো কার্তিক নড়েচড়ে বসলেন। এরপর যা হলো, সেটা অবিশ্বাস্য। প্রথম বলের চারে শুধু ভাগ্যকে সঙ্গে পেয়েছিলেন। পরের পাঁচ বলেই নিজের দক্ষতা দেখিয়েছেন। ওভারের প্রতিটি বলেই বল সীমানাছাড়া করেছেন। এর মধ্যে দুটি ছিল ছক্কা। মোট ২৮ রান এসেছে সে ওভার থেকে।

ম্যাচে মাত্র ১৬ রানে হেরেছে দিল্লি। মোস্তাফিজ সে ওভারে ২৮ রান না দিলে প্রয়োজনীয় রানরেট আরেকটু কম থাকত দিল্লির। আর সে ক্ষেত্রে ম্যাচে জেতার সুযোগ বাড়ত তাদের। ম্যাচ শেষে পন্ত বলেছেন, ‘মোস্তাফিজের ওই ওভার ম্যাচ বদলে দিয়েছে। আমার ধারণা, আরেকটু পরিকল্পনা অনুযায়ী বল করতে পারতাম আমরা। কিন্তু শেষ দিকে দীনেশ কার্তিক আমাদের চাপে ফেলে দিয়েছিলেন। এর আগেও বলেছি, আমাদের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে।’

default-image

ওদিকে কার্তিকের মতো এক ব্যাটসম্যানকে দলে পেয়ে নিজেকে ভাগ্যবান ভাবছেন বেঙ্গালুরু অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি। গতকাল টপ অর্ডার ব্যর্থ হয়েছিল বেঙ্গালুরুর। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল সে ধাক্কা সামাল দিলেও গুরুত্বপূর্ণ সময়ে আউট হয়ে গেছেন ৫০ করেই। সে অবস্থা থেকে দলকে ১৮৯ রান এনে দেওয়ায় কার্তিক ও শাহবাজকে ধন্যবাদ দিয়েছেন ডু প্লেসি, ‘১৯০ রান পেতে বিশেষ ইনিংস একটা খেলা লাগেই। শাহবাজ ও দীনেশ কার্তিককে কৃতিত্ব দিতে হবে। আমাদের মনে হয়েছে, শেষ দিকের বোলিং অতটা ভালো হচ্ছে না আমাদের। আজ তাই বিশেষ পরিকল্পনা ছিল। কার্তিক এ মুহূর্তে যেভাবে খেলছে, শুনে ভাঙা রেকর্ড মনে হবে আমাকে, কিন্তু নিজের সেরাটা খেলছে সে। সে এত শান্ত, পরিষ্কার ও গোছানো!’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন