শিরোপা জয়ের দিক থেকে বায়ার্ন মিউনিখের সঙ্গে ইউরোপ শ্রেষ্ঠত্বের লড়াইয়ে তৃতীয় সেরা দল লিভারপুল। দুটি দলই জিতেছে ছয়টি করে শিরোপা। অ্যানফিল্ডে আজ লিভারপুলের প্রতিপক্ষ ভিয়ারিয়ালের অতীত ইতিহাসে চোখ রাখলে দেখা যাবে—এখানে তাদের শূন্যতাই সঙ্গী। চ্যাম্পিয়নস লিগে ভিয়ারিয়ালের সেরা সাফল্য দুবার সেমিফাইনালে খেলা, এবারের আগে সর্বশেষটি সেই ২০০৬ সালে। তবে দুই দলের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স একই রকম। সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচের হিসাব অন্তত সেটাই বলে।

default-image

গত মৌসুমে লা লিগার পয়েন্ট তালিকায় ভিয়ারিয়াল ছিল সাত নম্বরে। চ্যাম্পিয়নস লিগে সুযোগ পেয়েছে প্রথমবারের মতো ইউরোপা লিগ জিতে। ইউরোপ–সাফল্যে লিভারপুলের সঙ্গে কোনো তুলনা না চললেও মুখোমুখি লড়াইয়ে দুই দল কিন্তু সমানে সমান। এর আগের দুটি ম্যাচে দুই দলেরই একটি করে জয়। সেই দুই ম্যাচ ২০১৫–১৬ মৌসুমে ইউরোপা লিগের সেমিফাইনালে। যেখানে দুই লেগ মিলিয়ে লিভারপুল জিতেছিল ৩–১ গোলে।

default-image

ইউরোপিয়ান শ্রেষ্ঠত্বের আসরে লিভারপুলের এটি ১২তম সেমিফাইনাল। ভিয়ারিয়ালের মাত্র দ্বিতীয়। তবে এবার সেমিফাইনালে ওঠার পথে জুভেন্টাস ও বায়ার্ন মিউনিখের মতো পরাশক্তিকে হারিয়ে আসা ভিয়ারিয়ালের আত্মবিশ্বাস তুঙ্গে। লিভারপুলও তাই সমীহ করছে ‘ইয়েলো সাবমেরিন’ নামে পরিচিত দলটিকে।

default-image
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন