default-image

একবার নেইমার মামলা করছেন তো কদিন পরেই বার্সেলোনা পাল্টা আদালতে টানছে তাঁকে। এতে দুই পক্ষের মধ্যে দা-কুমড়ো সম্পর্ক বলেই মনে হতে পারে। কিন্তু তবু একে অপরের মায়া কাটাতে পারছে না এরা কেউই। এখনো বার্সেলোনায় যেতে চান নেইমার। ওদিকে নেইমারকে নেওয়ার চেষ্টায় এ মৌসুমে ব্যর্থ হলেও আগামী মৌসুমেও তাঁকে পাওয়ার আশায় পিএসজির কাছে যাবে বার্সেলোনা।

নেইমারকে পাওয়ার জন্য এত দিন ২০০ মিলিয়নের বেশি খরচ করতে হবে বলে মনে করা হলেও কিছুদিন আগে ইএসপিএন জানিয়েছে, আগামী মৌসুমে ১৫০ মিলিয়ন ইউরোতেই নেইমারকে ছেড়ে দেবে পিএসজি। যদিও অন্যান্য সংবাদমাধ্যম অঙ্কটাকে ১৮০ মিলিয়নের কাছাকাছি বলে দাবি করছে। নেইমারকে পাওয়ার পথে এটাই একমাত্র বাঁধা নয়। পিএসজিতে বছরে করপূর্ব ৭০ মিলিয়ন ইউরো পান নেইমার। বার্সেলোনার বেতন ভাতা এমনিতেই বিপৎসীমায় আছে। নেইমারের ৭০ মিলিয়ন এতে যোগ হলে বড় অন্য কোনো তারকাকে ছেড়ে দিতে হবে কাতালান ক্লাবকে।

শুধু নেইমার নয়, নতুন করে ক্লাবকে জাগাতে আরও চারজন খেলোয়াড় প্রয়োজন বার্সেলোনার। এতে সবার আগে প্রাধান্য পাচ্ছে স্ট্রাইকারের খোঁজ। ইন্টার মিলানের লওতারো মার্টিনেজকে পছন্দ বার্সেলোনার। এই স্ট্রাইকারের জন্য ১১০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করতে হবে। নেইমারের দলবদল হলে মার্টিনেজকে আনা তাই কঠিন হয়ে পড়বে বার্সেলোনার জন্য। সে ক্ষেত্রে আরবি লাইপজিগের টিমো ভের্নারের দিকেও হাত বাড়াতে বার্সেলোনা। তাঁর মূল্যটা সহনীয় (৬০ মিলিয়ন) হলেও এই জার্মান মনেপ্রাণে লিভারপুলকে লক্ষ্য বানিয়েছেন বলে গুঞ্জন।

বার্সেলোনার অবশ্য রক্ষণেও লোক প্রয়োজন। জেরার্ড পিকের বয়স হয়ে যাচ্ছে, স্যামুয়েল উমতিতি এ মৌসুমে খুবই অনিয়মিত পারফরম্যান্স দেখাচ্ছেন। একজন সেন্টারব্যাকের সঙ্গে আরও দুজন ফুলব্যাকও খুঁজছে বার্সেলোনা। সে সঙ্গে মিডফিল্ডেও ইভান রাকিটিচদের সরিয়ে নতুন মুখ আনার পরিকল্পনা বার্সেলোনার। ফলে মাঠের এই প্রান্তেও ভালো বিনিয়োগ করতে হবে বার্সেলোনাকে।

দলের এত গুলো শুন্যস্থান পূরণ করে নেইমারের জন্য ১৫০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করা সম্ভব হবে বার্সেলোনার?

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন