আজ আবার রাজশাহীতে গিয়েই জোড়া গোল পেলেন ২২ বছর বয়সী এই মিডফিল্ডার। রাজশাহী জেলার মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি স্টেডিয়ামকে নিজেদের হোম ভেন্যু বানিয়েছে স্বাধীনতা ও পুলিশ ক্লাব।

আগে দেখা যেত ব্রাজিলিয়ান রবসন ও জোনাথন ফার্নান্দেজ জুটির ঝলক। চোটের কারণে জোনাথন দেশে ফিরে যাওয়ায় তাঁর জায়গায় এসেছেন স্বদেশি মিগেল। এখন মিগেলের সঙ্গে রবসনের রসায়ন জমে উঠেছে।

default-image

আজ মিগেলের দুটি গোলেই ছিল রবসনের অবদান। ১১ মিনিটে মিগেলের গোলে এগিয়ে যায় কিংস। রবসনের পাস থেকে বক্সের মধ্যে স্লাইড করে গোলটি করেছেন মিগেল।

৩০ মিনিটে দ্বিতীয় গোল। পুলিশের বক্সের মধ্যে রবসন যেন বল পায়ে রেখে মিগেলের অপেক্ষাতেই ছিলেন। মিগেল জায়গা তৈরি করে পেয়ে যান বলও। সেটি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে বাঁ পায়ের শটে দূরের পোস্ট দিয়ে জালে। এরপরে মনে হচ্ছিল বড় জয়ই পেতে যাচ্ছে কিংস। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে আর গোল করতে পারেনি অস্কার ব্রুজোনের দল।

উল্টো ৮১ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল খায় তারা। আইভরি কোস্টের স্ট্রাইকার ক্রিস্টিয়ানো কুয়াকুকে ফাউল করেন কিংসের ডিফেন্ডার বিশ্বনাথ ঘোষ। স্পটকিক থেকে বল জালে জড়ান ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দানিলো। এতে শুধু ব্যবধানটাই কমাতে পেরেছে পুলিশ।

রাজশাহীতে জিতে টেবিলের শীর্ষ স্থান সুসংহত করেছে কিংস। অন্যদিকে সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে গোলশূন্য ড্র করে শিরোপার লড়াইয়ে কিংস থেকে পয়েন্ট ব্যবধানে আরও পিছিয়ে পড়েছে আবাহনী লিমিটেড। আজ ১০ জনের শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের বিপক্ষেও জিততে পারেনি তারা। এগিয়ে গিয়েও ১-১ গোলে ড্র করে মাঠ ছেড়েছে মারিও লেমোসের দল।

যোগ করা সময়ের ৯৫ মিনিট পর্যন্তও ১-০ গোলে এগিয়ে ছিল তারা। শেষ মুহূর্তে হেডে গোল করে শেখ রাসেলকে সমতায় ফেরান দীপক নাথ। এই মৌসুমে আবাহনী থেকেই শেখ রাসেলে যোগ দিয়েছেন তরুণ এই মিডফিল্ডার। আবাহনীর গোলটি মেহেদী হাসানের।

দিনের অন্য ম্যাচে কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে মোহামেডানকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। সাইফের হয়ে একটি করে গোল করেছেন আশরুর গফুরোভ, এমফোন উদোহ ও এমেকা ওগবুগ।

ম্যাচের শেষের দিকে মোহামেডানের হয়ে ব্যবধান কমিয়েছেন জাফর ইকবাল। লিগের দ্বিতীয় পর্বে সাইফের এটি টানা চতুর্থ জয়। আরেক ম্যাচে মুন্সিগঞ্জ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস সোসাইটির বিপক্ষে ১-০ গোলে জিতেছে শেখ জামাল ধানমন্ডি। জয়সূচক গোলটি করেছেন মুসা নাজিরি।

default-image

আজকের ম্যাচগুলো শেষে ১৫ ম্যাচে ৩৮ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে কিংস। সমানসংখ্যক ম্যাচে ৩২ ও ৩০ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে আবাহনী ও শেখ জামাল।

চতুর্থ স্থানে থাকা সাইফের পয়েন্ট ২৭। ২২, ১৯ ও ১৫ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম স্থানে মোহামেডান, পুলিশ ও শেখ রাসেল। দশম স্থানে থাকা রহমতগঞ্জের পয়েন্ট ১০।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন