রামোস কি থাকবেন রিয়ালে?
রামোস কি থাকবেন রিয়ালে?ছবি : রয়টার্স

সের্হিও রামোস কি রিয়ালে থাকবেন? না আসছে জুনে চুক্তিমুক্ত হয়ে ক্লাব ছেড়ে চলে যাবেন? এই প্রশ্নেই সরগরম এখন স্পেন। বার্সেলোনা যদি মেসির আসন্ন বিদায় নিয়ে চিন্তিত থাকে, রিয়াল ওদিকে রামোসের আসন্ন বিদায়ের কথা ভেবে একদম কাঁপছে ঠকঠকিয়ে। রামোস যদি চলেও যান, সে ক্ষেত্রে কিংবদন্তি এই অধিনায়কের বদলি হিসেবে কাকে দলে আনবে রিয়াল?

স্পেনের অনেক ফুটবল বিশ্লেষকের মতেই রক্ষণকাজের মান ও নেতৃত্বগুণের দিক দিয়ে গোটা স্পেনে এখন একজন ডিফেন্ডারই আছেন, যিনি রামোসের অভাব পূরণ করতে পারেন। তিনি সেভিয়ার ফরাসি সেন্টারব্যাক জুলস কুন্দে। কিন্তু এখন জানা গেছে, এই কুন্দেকে পাওয়ার সহজ পথটাও বন্ধ করে রেখেছে খোদ রিয়ালই।

মাঝে মাঝেই এমন সময় আসে, একটি দেশ থেকে একই সময়ে ঝাঁকে ঝাঁকে অসাধারণ কিছু রক্ষণাত্মক খেলোয়াড় বের হয়ে আসেন।

বিজ্ঞাপন
default-image

কিছুদিন আগে যেমন ছিল বেলজিয়াম। ইয়ান ভার্তোনে, টোবি অল্ডারভেইরেল্ড, ভিনসেন্ট কোম্পানি, টমাস মনিয়েঁ, টমাস ভারমায়েলেন, ড্যানিয়েল ভ্যান বাইতেন—আরও কত! তারও আগে ছিল সার্বিয়া। নেমানিয়া ভিদিচ থেকে শুরু করে নেভেন সুবোতিচ, আলেক্সান্দার কোলারভ, ব্রানিস্লাভ ইভানোভিচ—সবাই একজনের চেয়ে একজন বড় তারকা। স্পেনের রামোস, পুয়োল, পিকে, আলবিওল, আরবেলোয়া, কাপদেভিয়ারা মিলে তো বিশ্বকাপ আর ইউরোই জিতিয়ে দিলেন দলকে।

এই দলগুলোর পথ ধরে এবার এসেছে ফ্রান্স। কয়েক বছর ধরেই বিশ্বমানের একেকজন ডিফেন্ডার উপহার দিয়ে যাচ্ছে দলটা। উমতিতি, ভারান, পাভার, কিমপেম্বে, লুকাস হার্নান্দেসরা মিলে বিশ্বকাপ জিতিয়ে দিলেও ওই পথ ধরে আগামীর জন্য আরও আসছেন দায়োত উপামেকানো, ক্লেমঁ লংলে, ফারলাঁদ মেন্দি, লিও দুবোয়া, ইব্রাহিমা কোনাতে, বেনোয়াঁ বাদিয়াশিলে, ইসা দিওপের মতো একাধিক ডিফেন্ডার।

এই তালিকারই অন্যতম সংযোজন এই জুলস কুন্দে, যিনি কয়েক মাস ধরে সেভিয়ার হয়ে দুর্দান্ত খেলে জাত চেনাচ্ছেন নিজের।

মাদ্রিদভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মার্কার ক্রীড়াবিশ্লেষক রাউল ভারেলা তো বলেই দিয়েছেন, রামোসের কাছাকাছি মানের কোনো তরুণ ডিফেন্ডার যদি বর্তমানে স্পেনে কেউ খেলে থাকেন, তিনি কুন্দে। নিঃসন্দেহে অনেক বড় একটা প্রশংসাবাণী। কিন্তু রিয়াল সমর্থকেরা পরের লাইনটা শুনেই চুল ছিঁড়তে পারেন!

জানা গেছে, এই কুন্দেকে একরকম রিয়ালের হাতেই তুলে দিয়েছিল সেভিয়া। রিয়ালই তখন এই হিরের দাম বুঝতে পারেনি। মৌসুমের শুরুতে স্প্যানিশ মিডফিল্ডার অস্কার রদ্রিগেজকে রিয়াল থেকে আনতে চায় সেভিয়া। রিয়াল দাম হাঁকায় দেড় কোটি ইউরো। সেভিয়া দাম কমানোর জন্য পাল্টা প্রস্তাব দেয়। ১ কোটি ৩০ লাখ ইউরোর মতো দিতে চায়, সঙ্গে দিতে চায় কুন্দেকে পাওয়ার 'ফার্স্ট রিফিউজাল'। অর্থাৎ কুন্দেকে পাওয়ার প্রথম অধিকারটুকুও।

খুলে বলা যাক। ভবিষ্যতে সেভিয়া যদি কুন্দেকে বিক্রি করতে চায়, তবে তাঁকে নেওয়ার সুযোগ সবার আগে রিয়াল পাবে—এমন সুযোগ রিয়ালের হাতে তুলে দিতে চেয়েছিল সেভিয়া। রিয়াল নিজেই নেয়নি।

বিজ্ঞাপন

খবরটা খোদ কুন্দের মুখপাত্র পেদ্রো রিয়েসকো জানিয়েছেন রেডিও মার্কাকে, ‘অস্কার রদ্রিগেজকে বেচার সময় রিয়াল চাইলে কুন্দেকে পাওয়ার অধিকারটুকু পেতে পারত। রিয়াল রদ্রিগেজের জন্য দেড় কোটি ইউরো চেয়েছিল, সেভিয়া দাম কমানোর জন্য কুন্দের ''ফার্স্ট রিফিউজাল'' দিতে চায় রিয়ালকে। বিনিময়ে দেড় কোটি থেকে দাম কমিয়ে ১ কোটি ৩৫ লাখ ইউরো করতে চেয়েছিল সেভিয়া।’

রিয়াল যে সেই প্রস্তাবে রাজি হয়নি, সেটা নতুন করে না বলে দিলেও চলছে!

default-image

এখন কুন্দের ফর্ম দুর্দান্ত। দুদিন আগেই কোপা দেল রের সেমিফাইনালের প্রথম লেগে বার্সাকে হারানোর পেছনে রেখেছেন অসাধারণ ভূমিকা। রিয়াল, বার্সা থেকে শুরু করে বিশ্বের তাবৎ বড় বড় ক্লাবের নজরই এখন এই ফরাসি সেন্টারব্যাকের দিকে। যেখানে দলের অধিনায়ক থাকেন নাকি তারই নেই ঠিক, এখন কুন্দের এই আগুনে ফর্ম দেখে ও চারপাশে তাঁকে নিয়ে এত প্রশংসাবাণী শুনে রিয়ালের বিরক্ত লাগাটাই স্বাভাবিক!

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন