রেফারিকে ধর্ষণের হুমকি স্পেনে

বিজ্ঞাপন
default-image
>

স্পেনে একটি নিচু স্তরের লিগ ম্যাচ পরিচালনার সময় নারী রেফারিকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছে। মাঠে একটি সিদ্ধান্তের জেরে এমন হুমকি পান রেফারি

ফুটবলে নারীদের অবদান ধীরে ধীরে বাড়ছে। তাঁরা শুধু খেলছেন না, ম্যাচ পরিচালনাতেও এখন অংশগ্রহণ বাড়ছে। বাংলাদেশও এরই মাঝে একজন নারী ফিফা রেফারি পেয়ে গেছে। ইউরোপ ও দক্ষিণ আমেরিকার বেশ কিছু লিগে ছেলেদের খেলাতেও ম্যাচ পরিচালনা করতে দেখা যাচ্ছে নারী অফিশিয়ালদের। লিগ ওয়ানের মতো লিগেও নারী রেফারিরা এখন ম্যাচ পরিচালনা করেন। এরই মাঝে অপ্রীতিকর এক ঘটনা ঘটেছে স্পেনে। নিচু স্তরের এক লিগ ম্যাচে ম্যাচ পরিচালনার সময় নারী রেফারিকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ফুয়েরতেভেনচুরাতে। ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের অন্তর্ভুক্ত এই দ্বীপে গত সপ্তাহান্তের এক ম্যাচে দায়িত্ব পেয়েছিলেন সেই নারী রেফারি। ম্যাচে তাঁর কোনো এক সিদ্ধান্ত পছন্দ হয়নি এক ক্লাবের সমর্থকের। এর ফলে ওই রেফারির দিকে হুমকি ছুড়ে দিয়েছেন এক সমর্থক, ‘যদি বাইরে খুঁজে পাই, ধর্ষণ করব।’ এ ঘটনায় গতকাল লাস পালমাস ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে।

বিবৃতিতে দ্বীপটির ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা জানিয়েছে, ‘এসব প্রতিযোগিতার আয়োজক হিসেবে লাস পালমাস এফএ এ ধরনের যৌন হয়রানিমূলক আচরণের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছে। সব ধরনের খেলা ও ফুটবলে সহিংসতা এড়িয়ে নারীদের পূর্ণ অংশগ্রহণের পথে এ ধরনের আচরণ বাধার সৃষ্টি করে। ফেডারেশন ও রেফারি কমিটি বিশ্বাস করে এ ধরনের আচরণ তরুণদের রেফারিং নিয়ে আগ্রহ কমিয়ে দেবে। আমরা দর্শকের কাছে নিগ্রহের শিকার ফুয়েরতেভেনচুরার সহকর্মীর প্রতি সহমর্মিতা জানাচ্ছি এবং তাঁকে সব ধরনের সহযোগিতার নিশ্চয়তা দিচ্ছি।’

এর আগে দক্ষিণ আমেরিকাও বেশি কিছু দেশে নারী অফিশিয়ালদের নিগ্রহের ঘটনা ঘটেছে। মেক্সিকোতে খেলোয়াড় ও দর্শকদের দীর্ঘমেয়াদি শাস্তি পেতে দেখা গেছে এ কারণে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন