ব্রাজিলের সাবেক মিডফিল্ডার রোনালদিনিও
ব্রাজিলের সাবেক মিডফিল্ডার রোনালদিনিওছবি: রয়টার্স

করোনাভাইরাস বাগে পেলে কাউকেই ছেড়ে দিচ্ছে না। ফুটবলের দুনিয়াতেও এর অন্যথা ঘটছে না। রোনালদিনিও এবার আক্রান্ত হলেন এ ভাইরাসে। ব্রাজিলকে বিশ্বকাপ জেতানো এ কিংবদন্তি নিজেই খবরটি নিশ্চিত করেছেন। ইনস্টাগ্রামে এক ভিডিওবার্তায় খবরটি নিশ্চিত করেন বার্সেলোনার সাবেক এ মিডফিল্ডার।

বিজ্ঞাপন
default-image

৪০ বছর বয়সী রোনালদিনিও এখন বেলো হরিজেন্তে অঞ্চলে কোয়ারেন্টিনে আছেন। গত শনিবার শহরটিতে পৌঁছান তিনি। ইনস্টাগ্রামে ভিডিওবার্তায় রোনালদিনিও বলেন, ‘এক অনুষ্ঠানে অংশ নিতে কাল বেলো হরিজেন্তেয় এসে পৌঁছাই। কোভিড-১৯ পরীক্ষায় পজিটিভ হয়েছি। ভালোই আছি, শরীরে কোনো লক্ষণ নেই। এ কারণে অনুষ্ঠানে পরেও অংশ নেওয়া যাবে। দ্রুতই একসঙ্গে হব আবার।’

বছরটা রোনালদিনিও–র জন্য মোটেও ভালো যাচ্ছে না। ভুয়া পাসপোর্ট দেখিয়ে প্যারাগুয়েতে ঢুকে গত মার্চে জেল খাটতে হয় ২০০২ বিশ্বকাপজয়ী সাবেক এ ফুটবলার এবং তাঁর ভাইকে। ৩২ দিন জেল খাটার পর এপ্রিলে আসুনসিওনের এক হোটেলে গৃহবন্দী ছিলেন রোনালদিনিও। আগস্টে তাঁর সাজার মেয়াদ শেষ হয়। তখন রোনালদিনিও বলেছিলেন, ‘এটা অনেক বড় আঘাত। কখনো ভাবিনি এমন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যেতে হবে।’

ব্রাজিলের হয়ে ৯৭ ম্যাচ খেলা রোনালদিনিও ইতিহাসেরই অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। স্পেন ও ইতালিতে শীর্ষস্থানীয় লিগ জয়ের পাশাপাশি পেয়েছেন চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের স্বাদ। বার্সেলোনা, পিএসজি, এসি মিলানের মতো দলের হয়ে খেলে নিজের জাত চিনিয়েছেন।

ব্রাজিলের জার্সিতে ২০০২ বিশ্বকাপ জয়ের সঙ্গে রয়েছে কোপা আমেরিকা, কনফেডারেশনস কাপ জয়ের গৌরব তিলক। ২০০৫ সালে ব্যালন ডি’অর জয় ছাড়াও দুবার ফিফার বর্ষসেরা ফুটবলার হয়েছেন রোনালদিনিও। মেসি-রোনালদোর উত্থান দেখার আগে পৃথিবী মজে থাকত রোনালদিনিও–র পায়ের জাদুতেই।

বিজ্ঞাপন

ফুটবল বিশ্বে করোনাভাইরাস ভালোই প্রকোপ ছড়িয়েছে। প্রায় প্রতি সপ্তাহে কোনো না কোনো নতুন খেলোয়াড় আক্রান্ত হয়ে কোয়ারেন্টিনে ঢুকে যাচ্ছেন। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর কথাই ধরুন। পর্তুগিজ এই তারকাও বর্তমানে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। পিএসজি তারকা নেইমার সংক্রমণ সারিয়ে বর্তমানে সুস্থ। পাওলো দিবালা, ইব্রাহিমোভিচ, সাদিও মানে ও থিয়াগো আলকানতারাও আক্রান্ত হয়েছিলেন করোনাভাইরাসে।

মন্তব্য পড়ুন 0