জুরিখে কাল রাতে অনলাইনে এক অনুষ্ঠানে ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের নাম ঘোষণা করা হয়
জুরিখে কাল রাতে অনলাইনে এক অনুষ্ঠানে ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের নাম ঘোষণা করা হয়ছবি: রয়টার্স

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী? সে তো বটেই। দুজনের দ্বৈরথ যেভাবে ফুটবল ইতিহাস রাঙিয়েছে, আর কোনো দ্বৈরথ সেভাবে তা পেরেছে?

যদিও মাইক্রোফোনের সামনে কেউ তা খোলাখুলি স্বীকার করতে নারাজ। কিন্তু মাঠে কিংবা মাঝেমধ্যে মাঠের বাইরেও প্রতিদ্বন্দ্বিতার আঁচ মেলে। এবার ফিফা বর্ষসেরা ‘দ্য বেস্ট’ পুরস্কারের ভোট দেওয়াতেও তা দেখা গেল।

ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির বর্ষসেরা পুরস্কার জিতেছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ স্ট্রাইকার রবার্ট লেভানডফস্কি (৫২ ভোটিং পয়েন্ট)। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো ৩৮ ভোটিং পয়েন্ট পেয়ে দ্বিতীয় ও ৩৫ ভোটিং পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় মেসি।

জাতীয় দলের কোচ, অধিনায়ক, সংবাদকর্মী ও ফুটবলপ্রেমীদের ভোটে বেছে নেওয়া হয়েছে বর্ষসেরা।

বিজ্ঞাপন

মেসি-রোনালদো নিজ নিজ দেশের অধিনায়ক হওয়ায় তাঁদেরও ভোট দিতে হয়েছে। এখন প্রশ্ন হলো, বর্তমান বিশ্বের অন্যতম সেরা এ দুই তারকা কাদের ভোট দিয়েছেন?

কে কাকে ভোট দিয়েছেন, তা সবার দেখার সুযোগ করে দিয়েছে ফিফা। মজাটা ঠিক এখানেই লুকিয়ে। রোনালদো কিন্তু তাঁর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মেসিকে ভোট দিয়েছেন। কিন্তু মেসি সে পথে হাঁটেননি। গতবার রোনালদোর ভোট পাননি বার্সেলোনার এ আর্জেন্টাইন তারকা।

default-image

পর্তুগিজ অধিনায়ককে এবার ভোট না দিয়ে মেসি কি তাহলে গতবারের প্রতিশোধ নিলেন? যদিও মেসি-রোনালদো বহুবার বলেছেন, তাঁদের দ্বৈরথে প্রতিশোধ বলে কিছু নেই।

কিন্তু বিষয়টি কেউ এমন ভেবে নিলে তা খণ্ডনের সুযোগ খুব সামান্যই। এবার মেসি তাঁর ভোটে ফিফা ‘বেস্ট’ হিসেবে বেছে নিয়েছেন নিজের দীর্ঘদিনের বন্ধু ও সাবেক ক্লাব সতীর্থ পিএসজি তারকা নেইমারকে। ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডকে প্রথমে রেখেছেন তিনি।

এরপর নেইমারের ক্লাব সতীর্থ কিলিয়ান এমবাপ্পে এবং তিনে লেভানডফস্কি। এদিকে রোনালদোর প্রথম পছন্দ লেভা, দুইয়ে মেসি এবং তিনে এমবাপ্পে।

মেসির নেইমারকে বেছে নেওয়ায় অনেকে ভ্রুকুটি তুলতে পারেন। কিছুদিন নেইমার বলেছেন, তিনি পিএসজিতে মেসির সঙ্গে খেলতে চান। ওদিকে এ মৌসুম শেষেই বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে মেসির। চুক্তি নবায়ন করা নিয়ে এখনো পাকাপাকি কোনো কথা শোনা যায়নি।

সে যা-ই হোক, এবার ফিফা ‘বেস্ট’ পুরস্কারজয়ী লেভা কিন্তু তাঁর প্রথম পছন্দ হিসেবে বেছে নিয়েছেন ক্লাব সতীর্থ থিয়াগো আলকান্ত্রাকে। দুইয়ে নেইমার, তিনে ম্যানচেস্টার সিটি মিডফিল্ডার কেভিন ডি ব্রুইনা। রিয়ালের স্প্যানিশ ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসের প্রথম পছন্দ ছিল লেভা, এরপর থিয়াগো আলকান্ত্রা ও নেইমার।

রোনালদোর (১৮৬ ভোট) তুলনায় মেসির (১৯৬ ভোট) প্রতি ঝুঁকেছেন বেশিসংখ্যক কোচ। তবে খেলোয়াড়দের মধ্যে আবার রোনালদোর জনপ্রিয়তা বেশি। ২৫৯ জন অধিনায়কের ভোট পেয়েছেন রোনালদো, যেখানে মেসি পেয়েছেন ২০৭ ভোট।

ভক্তদের পছন্দেও রোনালদোর তুলনায় পিছিয়ে মেসি। ফিফায় নিবন্ধন করা ৪ লাখ ৫৭ হাজার ৯০৫ জন ভোট দিয়েছেন রোনালদোকে। মেসির ভোটসংখ্যা ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৯৫০।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন