রোনালদো গোসেনসের সঙ্গে এমন আচরণ করেছিলেন!
রোনালদো গোসেনসের সঙ্গে এমন আচরণ করেছিলেন!ছবি: রয়টার্স

ইউরোপিয়ান ফুটবলে রবিন গোসেনস তেমন বড় কোনো নাম নয়। তবে আতালান্তার হয়ে বেশ গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। ২০১৭ সালে ইতালিয়ান ক্লাবটিতে যোগ দেওয়ার পর নিজেকে সিরি ‘আ’তে অন্যতম সেরা উইংব্যাক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। ডিফেন্ডার হয়েও গত মৌসুমে ক্লাবের অন্যতম সেরা গোলদাতা হয়েছিলেন। লেফট উইংব্যাক হয়ে ৯ গোল করা তো আর সহজ কথা নয়। এই গোসেনসই একটা অভিযোগ তুললেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর প্রতি। জুভেন্টাসের বিপক্ষে একবার এক ম্যাচ শেষে রোনালদোর সঙ্গে জার্সি বদল করতে চেয়েছিলেন গোসেনস। ২৬ বছর বয়সী এ ফুটবলারকে পাত্তাই দেননি জুভেন্টাস তারকা।

নিজের জীবনীতে রোনালদোকে নিয়ে ঘটনাটা প্রকাশ করেছেন গোসেনস। ‘ড্রিমস আর ওর্থহোয়াইল’ নামে এই জীবনীতে গোসেনস জানিয়েছেন, রোনালদোর কাছ থেকে প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর ‘লজ্জায় পড়েছিলেন’ তিনি। ম্যাচের পর পর্তুগিজ তারকার সঙ্গে জার্সি বদল করতে চেয়েছিলেন জার্মানির জার্সিতে গত বছর অভিষেকের পর ৫ ম্যাচ খেলা গোসেনস। কিন্তু তাঁর ভাষ্যমতে, রোনালদো কর্কশভাবে এ অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেন। প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পর লজ্জায় পারলে মাটিতে মিশে যেতেন গোসেনস।

default-image
বিজ্ঞাপন

তবে পয়েন্ট টেবিলে তাকিয়ে দুঃখ কমতে পারে গোসেনসের। লিগ টেবিলে জুভেন্টাস যে আতালান্তার পেছনে। ২৯ ম্যাচে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আতালান্তা। ২৮ ম্যাচে ৫৬ পয়েন্ট নিয়ে চারে জুভেন্টাস। মৌসুম শেষ হওয়া পর্যন্ত জুভেন্টাসকে পেছনে রাখতে পারলে গোসেনস হয় খুশিই হবেন। ঘটনাটি ২০১৯ কোপা ইতালিয়া কোয়ার্টার ফাইনালে। জুভেন্টাসকে ৩-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালে উঠেছিল আতালান্তা। সেই ম্যাচের পর রোনালদোর সঙ্গে জার্সি বদল করতে চেয়েছিলেন তিনি। নিজের জীবনীতে এ নিয়ে গোসেনস বলেছেন, ‘জুভেন্টাসের সঙ্গে ম্যাচটির পর নিজের স্বপ্নপূরণের চেষ্টা করি। রোনালদোর জার্সিটা পাওয়ার ইচ্ছা ছিল।’

গোসেনস বলেন, ‘ম্যাচ শেষে রোনালদোর কাছে যাই। জয় উদ্‌যাপন তখনো শুরু করিনি। কিন্তু রোনালদো আমার অনুরোধ রাখেননি। তাকে বললাম, “ক্রিস্টিয়ানো, তোমার জার্সিটা পেতে পারি?” সে আমার দিকে ফিরেও তাকায়নি। মুখটা ঘুরিয়ে রেখেই স্রেফ “না” করে দিয়েছে।’ রোনালদোর এমন আচরণ মেনে নিতে পারেননি গোসেনস। জুভেন্টাস ফরোয়ার্ড একসময় ছিলেন তাঁর আদর্শ। কিন্তু সেই আচরণের পর রোনালদোকে দেখার দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে যায় গোসেনসের, ‘ভীষণ লজ্জা লেগেছিল। জায়গাটা দ্রুত ত্যাগ করি, নিজেকে ছোট লাগছিল। কোনো লজ্জার পরিস্থিতিতে পড়লে কেউ খেয়াল করেছে কি না, সেটা বোঝার চেষ্টা করে সবাই। আমিও সেদিন ঠিক একই পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে গিয়েছি।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন