নতুন মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদ

রোনালদোর ‘রবিন’ এখন রিয়ালের ‘ব্যাটম্যান’

রিয়ালের নতুন মৌসুমে আক্রমণভাগের নেতৃত্বে থাকবেন করিম বেনজেমা।
রিয়ালের নতুন মৌসুমে আক্রমণভাগের নেতৃত্বে থাকবেন করিম বেনজেমা। ছবি: টুইটার
বিজ্ঞাপন

ব্যাটম্যান ও রবিন থেকে ব্যাটম্যান চলে গেলে রবিন কি ব্যাটম্যান হতে পারেন?

এমনিতে প্রশ্নটা আজগুবি। ডিসি কমিকসের এ দুটি চরিত্র তো ‘একই বৃন্তে দুটি কুসুম’। কমিক দুনিয়া থেকে ফুটবলেও এমন দেখা যায়—থিয়েরি অঁরি-ডেনিস বার্গক্যাম্প। কমিকে রবিন হয়তো ব্যাটম্যান হয়ে উঠতে পারে না, কিন্তু আর্সেনালে বার্গক্যাম্প যাওয়ার পর অঁরি ঠিকই টেনেছেন দলকে। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ার পর করিম বেনজেমা তা কতটুকু করতে পেরেছেন?
রোনালদো থাকতে বেনজেমা ছিলেন রিয়াল আক্রমণভাগে পার্শ্বচরিত্র। প্রতিপক্ষ রক্ষণকে ব্যস্ত রাখতেন রোনালদোর গোলের জায়গা বের করতে। রিয়ালে প্রধান ‘সুপারহিরো’র জায়গা দুই বছর আগেই ছেড়ে গেছেন রোনালদো। বেনজেমাকে তাই রবিনের খোলস থেকে বেরিয়ে নিতে হয়েছে ব্যাটম্যান-এর ভূমিকা।

কাল মৌসুম শুরুর প্রস্তুতি ম্যাচে হেতাফে-কে ৬-০ গোলে হারায় রিয়াল। ম্যাচটা সমন্ধে না জানা থাকলে এবং মনে করে নিন রোনালদো আছেন রিয়ালে—এ পরিস্থিতিতে যদি বলা হতো এক খেলোয়াড় একাই চার গোল করছেন, তাহলে কার নামটা মাথায় আসত সবার আগে?
অবশ্যই ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ভুল। কাল বেনজেমা একাই চার গোল করেছেন। ওই তো রোনালদোর ভূমিকা!

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

না, এখনই জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না। শূন্যতা পূরণের চেষ্টা চলছে তা বলা যায়। রোনালদো যাওয়ার পর বেনজেমা এই চেষ্টায় সফল হচ্ছেন কতটুকু? পরিসংখ্যান বলছে, রিয়ালে বাকি সবার তুলনায় তাঁর অবদানই বেশি। অন্তত গোলের হিসেবে। রোনালদো যাওয়ার পর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রিয়ালের হয়ে এ পর্যন্ত ৫৭ গোল করেছেন বেনজেমা। এ সময় মাদ্রিদের ক্লাবটির আর কোনো ফুটবলারই তাঁর মতো এত গোল করতে পারেনি। এত দিন ক্লাবটির হয়ে তাঁর ছিল শুধু হ্যাটট্রিক। এবার নতুন মৌসুম শুরুর আগে একাই করলেন চার গোল। হোক না প্রীতি ম্যাচ আর হেতাফেও মূল দল মাঠে নামায়নি—তবু অন্তত একটা ইঙ্গিত তো পেলেন রিয়াল সমর্থকেরা। রোনালদোর মতো বেনজেমাও একাই চার গোল করতে পারেন। লিগ চ্যাম্পিয়নরা নতুন মৌসুমে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে মাঠে নামার আগে এ-ও কী কম প্রেরণা!

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
গত মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে বেনজেমা রিয়ালের সর্বোচ্চ গোলদাতা (২৭)।


আর তাই রিয়ালের অবিসংবাদিত ‘নম্বর নাইন’ হিসেবেই নতুন মৌসুমে মাঠে দেখা যাবে ফরাসি স্ট্রাইকারকে। কোচ জিনেদিন জিদানের তাঁর ওপর ভরসা রাখার জলজ্যান্ত কারণ গত মৌসুম। আরেকটু হলে তাঁর সঙ্গে গোলের দৌড়ে পিছিয়ে থেকে মৌসুম শেষ করতেন লিওনেল মেসি! লা লিগা মৌসুমের প্রায় শেষ নাগাদ আর্জেন্টাইনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ছুটেছেন ফরাসি স্ট্রাইকার। শেষ পর্যন্ত তাঁর ফরাসি সৌরভ থেমেছে ২১ গোলে, মেসি থামলেন ২৫ গোলে। কিন্তু লিগটা উঠল রিয়ালের ঘরে। শিরোপা জিততে এক সময় রোনালদোর এমন ভরসা রাখত রিয়াল। রোনালদোর মতো প্রতিদান দেওয়ার নজির গত মৌসুমেই গড়ে ফেলায় এবার তাই বেনজেমাই তুরুপের তাস। আর সার্জিও রামোস?
গত মৌসুমে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে বেনজেমা রিয়ালের সর্বোচ্চ গোলদাতা (২৭)। এরপরই রিয়াল অধিনায়ক (১৩)। এ ছাড়া আর কেউ গোলসংখ্যায় দুই অঙ্কের ঘরে আসতে পারেননি। অথচ লুকা ইয়োভিচ, ইসকো, ভিনিসিয়ুসরা আছেন। এ মৌসুমে তাদের ওপরও ভালো করার চাপ থাকবে। তবে সতীর্থদের ওপর থেকে এ চাপ কমানোর দায়িত্বও রিয়াল আক্রমণভাগে তিরের ফলার—কে আবার, বেনজেমার!

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন