default-image

ক্লাব ইতিহাসের সবচেয়ে সাফল্যময় বছরটা কাটিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ইউরোপ আর বিশ্বজয় করে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে এনেছে চারটি ট্রফি। কিন্তু রিয়ালের সাফল্যক্ষুধা যে তাতে কমছে না একটুও! আসছে বছরে এ বছরের সাফল্যটাকেও ছাড়িয়ে যেতে চান রিয়াল উইঙ্গার ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। জিততে চান সম্ভাব্য সব শিরোপা।
এপ্রিলে কোপা ডেল রের ফাইনালে বার্সেলোনাকে হারিয়ে শুরু হয়েছিল রিয়ালের সাফল্যগাথা। পরের মাসেই অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে হারিয়ে রিয়াল পেয়েছে এক যুগের অধরা লা ডেসিমা। আগস্টে সেভিয়ার বিপক্ষে জয় দিয়েছে উয়েফা সুপার কাপের ট্রফি আর কয়েক দিন আগে আর্জেন্টাইন ক্লাব সান লরেঞ্জোকে হারিয়ে জিতেছে ক্লাব বিশ্বকাপ। রোনালদো শুনিয়েছেন এর মধ্যে তাঁর সবচেয়ে পছন্দের ট্রফিটার কথা, ‘এ চারটি ট্রফির মধ্যে কোনটা সেরা সেটা বলা সত্যিই কঠিন। কিন্তু আমাকে যদি একটাই বেছে নিতে হয়, আমি লিসবনে জেতা চ্যাম্পিয়নস লিগের ট্রফিটার কথাই বলব।’
সম্ভাব্য ছয়টি শিরোপার মধ্যে এ বছর শুধু লা লিগা আর স্প্যানিশ সুপার কাপই হাতছাড়া হয়েছে রিয়ালের। তবে আগামী বছর এই অপ্রাপ্তিটাও ঘুচিয়ে দিতে চান রোনালদো, ‘আমি আশা করি আগামী বছরটা এ বছরের চেয়েও ভালো যাবে। এটা সম্ভব, কারণ প্রতিটি টুর্নামেন্ট রিয়াল সব সময় জেতার জন্যই খেলে। আগামী বছর সম্ভাব্য সব শিরোপা জেতার জন্য আমরা সর্বস্ব দেব।’
৬০ ম্যাচে ৬১ গোল করে এ বছর রিয়ালের সাফল্যের অন্যতম নায়ক রোনালদো নিজেই। তবে নেপথ্য কারিগর আসলে কোচ কার্লো আনচেলত্তি। রিয়ালের ইতালিয়ান কোচ অবশ্য নিজেকে আড়ালে রাখতেই বেশি পছন্দ করেন। তবে রোনালদো ঠিকই উচ্চকণ্ঠ হয়েছেন তাঁর কোচের প্রশংসায়, ‘আমাদের সাফল্যে আনচেলত্তির ভূমিকাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। তিনি অসাধারণ কোচ, একজন দারুণ মানুষও। আমরা সবাই তাঁকে পেয়ে খুশি। আমরা একটা সংঘবদ্ধ পরিবারের মতো, চেষ্টা করব আগামী বছর যাতে এ বছরের সাফল্য ছাড়িয়ে যেতে পারি।’
কাল দুবাইতে এসি মিলানের বিপক্ষে একটা প্রীতি ম্যাচ দিয়ে বছর শেষ হবে রিয়ালের। নতুন বছর শুরু করবে ৪ জানুয়ারি মেস্তায়া স্টেডিয়ামে লা লিগায় ভ্যালেন্সিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে। মার্কা।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন