রোনালদোর সঙ্গী হওয়া হচ্ছে না সুয়ারেজের

বার্সা কোচের কাছে ব্রাত্য! কোথায় যাবেন সুয়ারেজ?
বার্সা কোচের কাছে ব্রাত্য! কোথায় যাবেন সুয়ারেজ?ছবি: এএফপি
বিজ্ঞাপন

হুট করেই যেন হাজারো সমস্যায় জড়িয়ে পড়েছেন লুইস সুয়ারেজ। ক'দিন আগেও লিওনেল মেসির সঙ্গে বার্সেলোনার আক্রমণভাগের অন্যতম প্রধান খেলোয়াড় ছিলেন এই তারকা। চ্যাম্পিয়নস লিগে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে ৮-২ গোলে হারের পর, ও নতুন কোচ আসার পর থেকেই বদলে গেল পরিস্থিতি। লুইস এনরিকে, আর্নেস্তো ভালভার্দে কিংবা কিকে সেতিয়েনের পরিকল্পনার অন্যতম প্রধান এই অংশ নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যানের কাছে ব্রাত্য হয়ে পড়েছেন। কোম্যান এটা সরাসরি জানিয়েই দিয়েছেন সুয়ারেজকে।

তবে বার্সেলোনার কাছে দাম না পেলেও ইউরোপের অন্য ক্লাব যে সুয়ারেজের মতো স্ট্রাইকারকে চাইবে না, অমনটা কিন্তু নয়। মরা হাতির দামও যে লাখ টাকা! তিনি তো আর ‘মরা হাতি’ নন। ফলে সুয়ারেজের ক্লাব ছাড়ার খবর বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আগ্রহী ক্লাবের লাইন লেগে যায়। সবচেয়ে আগ্রহী ছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বর্তমান ক্লাব জুভেন্টাস। নতুন কোচ আন্দ্রেয়া পিরলো দলের মূল স্ট্রাইকার হিসেবে রোনালদোর পাশাপাশি সুয়ারেজকে চাইছেন, শোনা গিয়েছিল। যে লক্ষ্যে জুভেন্টাসের সঙ্গে তবে এখন আবার শোনা যাচ্ছে, জটিল প্রক্রিয়ার কারণে সুয়ারেজ হয়তো শেষমেশ জুভেন্টাসে যেতে পারবেন না। রোনালদোর সঙ্গী হওয়া হবে না তাঁর।

default-image
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বার্সা থেকে জুভেন্টাসে যাওয়ার প্রক্রিয়াটা সহজ নয় মোটেও। কারণ, এক দলবদলে ইউরোপের নাগরিক নন, এমন সর্বোচ্চ দুজন খেলোয়াড় কিনতে পারে ইতালিয়ান দলগুলো। জুভেন্টাস এই দলবদলে এরই মাঝে এমন দুজন খেলোয়াড় নিয়ে ফেলেছে— আর্থুর মেলো ও ওয়েস্টন ম্যাকেনি।

তাই সুয়ারেজ যদি জুভেন্টাসে যেতে চান, নিজেকে 'ইউরোপিয়ান' খেলোয়াড় হিসেবে প্রমাণ করতে হবে। ইউরোপিয়ান খেলোয়াড় কোটায় থাকতে হলে সুয়ারেজকে ভাষা পরীক্ষায় পাশ করতে হবে। ‘বি ওয়ান’ পরীক্ষায় অন্তত ৮ পেতে হবে সুয়ারেজকে। এই পরীক্ষায় ইতালিয়ান ভাষায় যোগাযোগ করতে পারার ক্ষমতা প্রকাশ করতে হয়। কয়েক ভাগে বিভক্ত এই পরীক্ষা। প্রথমে ভাষা শুনে বুঝতে পারার পরীক্ষা হয়, এর পর বলতে পারার দক্ষতা দেখা হয় এবং সবশেষে লিখতে হয় পরীক্ষার্থীকে। এরপর ব্যাকরণের পরীক্ষাও দিতে হয়। ৪০ মিনিটের লিখিত পরীক্ষাতেও বসতে হবে সুয়ারেজকে। সেখানে আবার ব্যাকরণে ভুল পরীক্ষা করা হয়। অর্থাৎ পেশাদার ক্যারিয়ারের চূড়ান্ত পর্যায়ে ওঠার পরও স্কুল শিক্ষার্থীদের মতো পরীক্ষা দিতে হবে সুয়ারেজকে। পরীক্ষায় পাশ করলে তবেই ইতালিয়ান পাসপোর্ট মিলবে সুয়ারেজের।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তবে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম আরএসিওয়ানের খবর, ভিসা পেতে পেতে অক্টোবরের ছয় তারিখ পার হয়ে যাবে। আর অক্টোবরের পাঁচ তারিখেই শেষ হবে এ মৌসুমের গ্রীষ্মকালীন দলবদলের সময়সীমা। অর্থাৎ সুয়ারেজের হাতে ভিসা আসতে আসতে দলবদলের সময় পার হয়ে যাবে। কোনোভাবে যদি এই তারিখের আগে ভিসা হাতে আসেও, তত দিনে উয়েফাকে চ্যাম্পিয়নস লিগ স্কোয়াডে কে কে থাকবেন, সেটা জানিয়ে দিতে হবে। সুয়ারেজ সে তালিকায় না থাকলে জুভেন্টাসে গেলেও চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রথম রাউন্ডে তাঁকে খেলাতে পারবে না জুভেন্টাস। অর্থাৎ সমস্যাটা বহুমুখী।

এদিকে বার্সার নতুন পরিচালক র‍্যামন প্লানেস জানিয়েছেন, সুয়ারেজকে হুট করে বিদায় করতে দেওয়ার কথা ভাবছেন না তাঁরা। গতকাল নতুন খেলোয়াড় মিরালেম পিয়ানিচকে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে প্লানেস জানিয়েছেন, 'সুয়ারেজ সব সময়েই আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ একজন খেলোয়াড়। ওদিন যা বলছিলাম, আমাদের অবশ্যই সেসব খেলোয়াড়দের যথার্থ সম্মান করতে হবে যারা আমাদের ক্লাবকে এত কিছু দিয়েছে। গত মৌসুমের শেষ দিকে যা হয়েছে তাতে এটা বোঝা গেছে যে বার্সায় পরিবর্তন আসাটা কতটা জরুরি। একজন নতুন কোচ ও নতুন চিন্তাধারার সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে হচ্ছে আমাদের। আমরা সেগুলো নিয়ে কাজ করছি। ক্লাবের খেলোয়াড় ও তাঁদের চুক্তিকে সম্মান করতে হবে আমাদের।'

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন