দিবালাদের এভাবেই গোটা ম্যাচে আটকে রেখেছিল হেল্লাস ভেরোনা
দিবালাদের এভাবেই গোটা ম্যাচে আটকে রেখেছিল হেল্লাস ভেরোনাছবি : রয়টার্স

ইতালিয়ান সিরি আ তে জুভেন্টাসের আধিপত্য অবিসংবাদিত। টানা নয়বার লিগ শিরোপা জিতেছে তাঁরা। কিন্তু আস্তে আস্তে যে তাঁদের শক্তি কমছে, সেটা বোঝা গিয়েছিল গত মৌসুমে। জুভেন্টাসের শিরোপা রক্ষার কাজটা সহজ করে দিয়েছিল নাপোলি, ইন্টার মিলান, আতালান্তার মতো ক্লাবগুলোর ক্রমাগত ব্যর্থতা।

জুভেন্টাসের দুর্বলতার দেখা মিলছে এই মৌসুমেও। প্রথম পাঁচ ম্যাচের মধ্যে তিন ম্যাচেই পয়েন্ট খুইয়েছে তাঁরা। সেদিন ক্রোতোনের বিপক্ষে ড্র করা জুভেন্টাস গত রাতেও খুঁড়িয়েছে। এবার ইতালির চ্যাম্পিয়নদের আটকে দিয়েছে হেল্লাস ভেরোনা, ম্যাচটা ড্র হয়েছে ১-১ গোলে। ড্র-টা আবার নিজেদের মাঠেই। ফলে ড্রয়ের স্বাদ আরেকটু তিতকুটেই হয়তো লেগেছে দিবালা-বোনুচ্চিদের কাছে।

বিজ্ঞাপন

প্রথমে ম্যাচে এগিয়ে গিয়েছিল হেল্লাস ভেরোনাই। পরে একের পর এক আক্রমণ সাজিয়ে শেষমেশ সমতা নিয়েই মাঠ ছাড়ে জুভেন্টাস।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দলের সবচেয়ে বড় তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। আছেন কোয়ারেন্টিনে। তাঁর ওপর ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নরা কতটা নির্ভরশীল, প্রতি ম্যাচেই তা ফুটে উঠছে। তাঁর অনুপস্থিতিতে লিগে টানা দুই ম্যাচ ড্র করল জুভেন্টাস! চ্যাম্পিয়নস লিগে দিনামো কিয়েভকে হারালেও জুভেন্টাসের খেলা মোটেও চ্যাম্পিয়নসুলভ ছিল না।

default-image

একই ছকে খেলতে নামে দুই দল, ৩-৫-২। জুভেন্টাসে রোনালদো ছাড়াও ছিলেন না বেশ কিছু তারকা। দলে সদ্য আসা ফেদেরিকো কিয়েসা গত ম্যাচেই লাল কার্ড দেখেছেন, ওদিকে জর্জো কিয়েল্লিনি ও ম্যাটাইস ডে লিখট চোটের কারণে মাঠের বাইরে। তাঁরা না থাকলেও মূল একাদশে ছিলেন পাওলো দিবালা, আলভারো মোরাতা, আর্থুর মেলো, লিওনার্দো বোনুচ্চি, ভয়চেখ সেজনি কিংবা হুয়ান কুয়াদ্রাদোর মতো তারকারা।

ম্যাচের ২০ মিনিটে দুর্দান্ত এক সুযোগ পায় জুভেন্টাস। মাঝমাঠ থেকে অ্যারন র‍্যামসির পাস নিয়ে গোল করার জন্য এগিয়ে যান উইঙ্গার ফেদেরিকো বার্নারদেসকি। গোলরক্ষক মার্কো সিলভেস্ত্রির নৈপুণ্যে সেই গোল হয়নি। ৪০ মিনিটে আবারও র‍্যামসি ঝলক। মিডফিল্ড থেকে বল বানিয়ে কুয়াদ্রাদোর পায়ে তুলে দেওয়ার পর কলম্বিয়ান এই উইংব্যাকের শট লাগে গোলপোস্টে।

বিজ্ঞাপন

প্রথমার্ধের একদম শেষ দিকে কুয়াদ্রাদোর ডিফেন্সচেরা এক পাস পেয়ে সুন্দর ফিনিশে দলকে এগিয়ে দেন মোরাতা। পরে ভিএআরের সাহায্যে দেখা যায়, অফসাইড ছিলেন মোরাতা। বাতিল হয়ে যায় গোল।

৬০ মিনিটে ইতালিয়ান উইঙ্গার মাত্তিয়া জাকানির পাস ধরে বাঁ পায়ের দুর্দান্ত প্লেসিংয়ে গোল করেন হেল্লাস ভেরোনার ইতালিয়ান স্ট্রাইকার আন্দ্রেয়া ফাভাল্লি। গোলটা একটু বিশেষ বলেই মনে হবে ২৩ বছর বয়সী এই তরুণের জন্য। আগে যে জুভেন্টাসের হয়ে খেলতেন! এই মোরাতা-দিবালাদের কারণেই কখনো জুভেন্টাসের সাদাকালো ডোরাকাটা জার্সিটা পাকাপাকিভাবে গায়ে চড়ানোর সুযোগ হয়নি এই স্ট্রাইকারের। পরে ম্যাচ খেলার বাড়তি সুযোগ পাওয়ার জন্য ক্লাব পরিবর্তন করেছিলেন। ক্লাবের সাবেক সন্তানই হুল ফোটালেন জুভেন্টাসকে। পরে হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে মাঠ থেকে উঠে যান এই স্ট্রাইকার।

default-image

গোল খেয়ে শোধ করার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে জুভেন্টাস। ৭২ মিনিটে মোরাতার এক শট আটকে দেন সিলভেস্ত্রি। ৭৭ মিনিটে জুভেন্টাসের হতাশা কাটিয়ে বাঁ পায়ের দুর্দান্ত শটে গোল করেন দলে নতুন আসা সুইডিশ উইঙ্গার দেয়ান কুলুসেভস্কি, বার্নারদেসকির বদলি হিসেবে যাকে মাঠে নামিয়েছিলেন কোচ আন্দ্রেয়া পিরলো। শেষমেশ এই গোল থেকে পাওয়া ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়ে ইতালির চ্যাম্পিয়নরা।

পাঁচ ম্যাচে মাত্র দুই জয় আর তিন ড্র নিয়ে নয় পয়েন্ট পেয়েছেন দিবালারা, আছেন পয়েন্ট তালিকার পঞ্চম স্থানে। চার ম্যাচের প্রতিটায় জিতে শীর্ষে ইব্রাহিমোভিচদের এসি মিলান।

মন্তব্য পড়ুন 0