বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

পরের অর্ধের গল্পটা ছিল শুধুই ফরোয়ার্ড মাইশার। ম্যাচের ৬২ মিনিটে স্কোর ৩-০ করেন মাইশা। ৬৭ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেছেন। আর হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেছেন ৭৭ মিনিটে।

বাংলাদেশের আক্রমণের অন্যতম বড় ভরসা কৃষ্ণা রানী সরকারকে ৭৪ মিনিটে তুলে নেন কোচ গোলাম রব্বানী। কৃষ্ণার বদলে মাঠে নামেন সানজিদা আক্তার। আরেক ফরোয়ার্ড সিরাত জাহানের বদলে তহুরা খাতুনকে মাঠে নামান কোচ। কিন্তু এই দুজন নামার পরও ম্যাচের গল্পে কোনো বদল আসেনি।

ঢাকা ছাড়ার আগে জাতীয় নারী দলের কোচ গোলাম রব্বানী বারবার জোর দিয়ে বলেছিলেন, ‘উজবেকিস্তানে আমাদের মেয়েরা ভালো ফুটবল খেলবে। প্রতিটি ম্যাচেই লড়াই করবে।’ কিন্তু সেই লড়াইয়ের ছিটেফোঁটাও দেখা গেল না মাঠে। সারাক্ষণ রক্ষণ সামলাতেই ব্যস্ত থাকতে হয়েছে মাসুরা পারভীন, শিউলি আজিমদের।

default-image

বাস্তবতা হচ্ছে জর্ডানের চেয়ে শক্তিতে অনেক পিছিয়ে বাংলাদেশ। মেয়েদের ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে যেখানে জর্ডানের অবস্থান ৬৩তম, সেখানে বাংলাদেশ ১৩৭তম। একে তো অচেনা, তার ওপর এত এগিয়ে থাকা দলের বিপক্ষে স্বাভাবিকভাবেই ভালো খেলতে পারেননি সাবিনারা।

বল পজেশনে সব সময়ে এগিয়ে ছিল জর্ডানই। ৬২ ভাগ বল ছিল জর্ডানের মেয়েদের পায়ে। বাংলাদেশের মেয়েদের পায়ে মাত্র ৩৮ ভাগ। পোস্টে ৯ বার শট নিয়েছে জর্ডান। এর ৫টিতেই গোল হয়েছে। অথচ বাংলাদেশের মেয়েরা পুরো ম্যাচে দুবার গোল পোস্টে শট নিতে পেরেছে!

এশিয়ান কাপে খেলতে উজবেকিস্তানে যাওয়ার আগে নেপালের বিপক্ষে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। কাঠমান্ডুতে দুই ম্যাচের একটিতে হার, একটি ড্র। কিন্তু ওই প্রস্তুতি ম্যাচের অভিজ্ঞতা কোনো কাজেই আসেনি জর্ডানের বিপক্ষে।

default-image

এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বে খেলতে উজবেকিস্তান যাওয়ার আগে জর্ডানও আন্তর্জাতিক ম্যাচের মধ্যেই ছিল। আরব কাপে তিউনিসিয়ার বিপক্ষে ১-০ গোলে জেতে জর্ডান। এরপর আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে মিসরকে হারিয়েছিল ৫-২ গোলে। জয়ের ধারাবাহিকতা আজও ধরে রাখল জর্ডানের মেয়েরা।

অবশ্য এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে বাংলাদেশের অতীত অভিজ্ঞতা কখনোই সুখের ছিল না। ২০১৪ সালে শেষবার এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে খেলেছে বাংলাদেশ, ২০১৮ সালে অংশই নেয়নি। কিন্তু ৭ বছর আগে ৩ ম্যাচে বাংলাদেশ খেয়েছিল ১৫ গোল! থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ৯-০, ফিলিপাইনের কাছে ৪-০ গোলে হারের পর ও ইরানের কাছে হার ২-০ গোলে। এবারও বিশাল ব্যবধানের হার দিয়েই শুরু হয়েছে এশিয়ান কাপের বাছাইপর্ব!

২২ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ গ্রুপ পর্বে নিজেদের দ্বিতীয় ও শেষ ম্যাচটি খেলবে ইরানের বিপক্ষে।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন