default-image

লকডাউনের কারণে আবাহনী লিমিটেডের এএফসি কাপের প্লে–অফ পর্বের ম্যাচটি ঢাকাতে হবে, নাকি হবে না? কয়েক দিন ধরেই প্রশ্নটি ঘুরছিল ফুটবল অঙ্গনে। বৃহস্পতিবার এএফসি জানিয়ে দেয় পূর্বসূচি অনুযায়ী ম্যাচটি ঢাকাতেই আয়োজন করতে হবে আবাহনীকে। কিন্তু পরিস্থিতি বদলে যাওয়ায় দুই দিনেই ভেন্যু বদলাতে বাধ্য হয়েছে এএফসি। সঙ্গে বদলে গিয়েছে সূচিও। এএফসির নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২১ এপ্রিল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে অথবা মালদ্বীপে। প্রথম আলোকে খবরটি নিশ্চিত করেছেন আবাহনীর ম্যানেজার সত্যজিৎ দাশ।

সূচি অনুযায়ী ১৪ এপ্রিল ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল আবাহনী লিমিটেড ও মালদ্বীপ ইগলস ক্লাবের মধ্যকার এএফসি কাপ প্লে–অফ পর্বের ম্যাচ। বর্তমানে চলমান লকডাউনের কারণে ঢাকায় ম্যাচটি আয়োজন সম্ভব নয় বলে আগেই এএফসিকে চিঠি দিয়েছিল আবাহনী। সে আবেদনে সাড়া না দিয়ে আবাহনীকে ১৪ এপ্রিলই ঢাকায় ম্যাচটি আয়োজনের কথা বলে এএফসি। কিন্তু শুক্রবার সরকারের পক্ষ থেকে ১৪ এপ্রিল থেকে সম্ভাব্য কঠোর লকডাউনে যাওয়ার ঘোষণা দেওয়া হলে বিষয়টি পুনরায় এএফসিকে অবগত করে আবাহনী। সে পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা থেকে ম্যাচটি সরিয়ে নিতে বাধ্য হয় এশিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা।

বিজ্ঞাপন
default-image

২১ এপ্রিল নিরপেক্ষ ভেন্যুতে আবাহনীকে ম্যাচটি আয়োজনের কথা বলেছে এএফসি। এই স্বল্প সময়ের মধ্যে নিরপেক্ষ ভেন্যু পাওয়া না গেলে আবাহনীকে খেলতে হবে মালদ্বীপে গিয়ে। সত্যজিৎ দাশ বলেন, ‘একটু আগে চিঠি পেয়েছি, ম্যাচটি ঢাকা থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এখন ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ২১ এপ্রিল। আমাদের নিরপেক্ষ ভেন্যু খুঁজতে বলেছে এএফসি, সেটি সম্ভব না হলে আমাদের মালদ্বীপে গিয়ে খেলতে হবে।’
সুতরাং প্লে–অফ পর্বের প্রথম ম্যাচ জিতলে ২১ এপ্রিল যে দ্বিতীয় প্লে–অফ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল, স্বাভাবিকভাবে সেটি এখন পিছিয়ে যাচ্ছে। প্রথম ম্যাচটি জিতলে প্লে-অফ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে আবাহনীর প্রতিপক্ষ ভারতের বেঙ্গালুরু এএফসি ও নেপাল আর্মির মধ্যকার জয়ী দল। সে ম্যাচের সূচি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। এই দুই ধাপ পাড়ি দিতে পারলে চতুর্থ দল হিসেবে দক্ষিণ এশিয়ান অঞ্চল থেকে এএফসি কাপে খেলার সুযোগ পাবে আবাহনী।
আপাতত নিরপেক্ষ ভেন্যু হিসেবে ভারত বা নেপালের কথা ভাবছে আবাহনী।

মন্তব্য করুন