default-image
বিজ্ঞাপন

গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি সাবেক ফুটবলার বাদল রায়। ফুটবলপ্রেমীরা প্রার্থনারত ছিলেন তাঁর জন্য। কিন্তু তাদের জন্য বড় ধাক্কা হয়েই এল আরেক দুঃসংবাদ। গতকাল লিভার ক্যানসার ধরা পড়েছে দেশের ফুটবল ইতিহাসের অন্যতম সেরা এই তারকার।

বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায় প্রথম আলোকে জানিয়েছেন, তাঁর স্বামীর লিভার ক্যানসার ধরা পড়েছে চতুর্থ পর্যায়ে। বর্তমানে স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বাদল রায়।

এর আগে ৫ নভেম্বর শ্বাসকষ্টের কারণে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। সেখানে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ( আইসিইউ) রাখা হয়েছিল তাঁকে। অবস্থার অবনতি হলে ১১ নভেম্বর স্কয়ার হাসপাতালে স্থানান্তরিত হন তিনি। সেখানেই শনাক্ত হয় ক্যানসার।

default-image

বাদলের ক্যানসার আক্রান্ত হওয়ার ব্যাপারে তাঁর স্ত্রী মাধুরী রায় বলেন ,‘ওনার লিভার ক্যানসার ধরা পড়েছে। সেটি এখন স্টেজ ফোরে আছে। লিভার ছাড়াও এর পাশে পাশে ছড়িয়েছে। এমনকি ছড়িয়ে পড়েছে মেরুদণ্ডেও। আমি তাঁর জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই।’

২০১৭ সালে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণে আক্রান্ত হন মোহামেডানের সাবেক অধিনায়ক। তাঁকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে নেওয়া হয় সিঙ্গাপুরে। দীর্ঘ চিকিৎসার পর সেরে উঠলেও মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণ ছাপ ফেলে যায় তাঁর শরীরে। গত আগস্টে কোভিডে আক্রান্ত হন। অসুস্থ অবস্থাতেও ফুটবলের সঙ্গে নিজেকে জড়িয়ে রেখেছিলেন। বাফুফের বিভিন্ন ব্যাপারে সোচ্চার হতে দেখা গেছে তাঁকে। ক্যাসিনো-কাণ্ডের পর মোহামেডানের পুনর্গঠনে বড় ভূমিকা রাখেন তিনি। সর্বশেষ বাফুফে নির্বাচনে সভাপতি পদে নির্বাচনও করেছেন কাজী সালাউদ্দিনের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে। এর আগে বাফুফের সহ সভাপতি হিসেবে তিন মেয়াদে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

১৯৮১ ও ১৯৮৬ সালে মোহামেডানের অধিনায়ক ছিলেন তিনি। ’৮৬-তে টানা তিন বছর পর মোহামেডানের লিগ জয়ে বড় ভূমিকা রেখেছিলেন তিনি। খেলা ছাড়ার পর মোহামেডানের ম্যানেজার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0