বসুন্ধরার ব্রাজিলিয়ান রবসন (বাঁয়ে) ও আর্জেন্টাইন বেসেরা আছেন লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার দৌড়ে।
বসুন্ধরার ব্রাজিলিয়ান রবসন (বাঁয়ে) ও আর্জেন্টাইন বেসেরা আছেন লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার দৌড়ে। ফাইল ছবি

‘পরের হ্যাটট্রিকটা তো আমি বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষেই করতে পারি!’

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের গাম্বিয়ান স্ট্রাইকার পা ওমর জোবের কণ্ঠে চ্যালেঞ্জ নেওয়ার ঝাঁজ। কিন্তু ১৩টি ক্লাবের মধ্যে নির্দিষ্ট করে বসুন্ধরার নাম বলার কারণটা কি? অনুমান তো করে নেওয়াই যায়, সর্বোচ্চ গোলদাতার হওয়ার লড়াইয়ে তাঁর মূল প্রতিদ্বন্দ্বী যে বসুন্ধরারই দুই খেলোয়াড়। একজন আর্জেন্টাইন, অন্যজন ব্রাজিলিয়ান।

প্রিমিয়ার লিগের প্রথম পর্ব শেষে ১২ গোল করে জোবের সঙ্গে যৌথভাবে শীর্ষে আছেন বসুন্ধরার ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন ডি সিলভা (রবিনিও)। তাঁদের চেয়ে এক গোল কম বসুন্ধরারই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার রাউল বেসেরার। ৯ গোল করে সর্বোচ্চ গোলদাতার দৌড়ে আছেন সাইফ স্পোর্টিংয়ের নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড জন ওকোলি।

লিগের দ্বিতীয় পর্বে কে কাকে ছাড়িয়ে হাসবেন শেষ হাসি? সেটিই দেখার অপেক্ষা। তবে তাঁদের সঙ্গে কথা বলে একটি বিষয় পরিষ্কার, ব্যক্তিগত সেরা গোলদাতা হওয়ার চেয়ে দলের সাফল্যটাই তাঁদের কাছে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।

বিজ্ঞাপন
default-image

নিজেদের মধ্যে সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ার লড়াই থাকলেও সেরা তিনজন রবসন, জোবে ও বেসেরার মিল আছে এক জায়গায়। লিগে একটি করে হ্যাটট্রিক করেছেন তাঁরা এবং সবার হ্যাটট্রিকই একই প্রতিপক্ষ আরামবাগের বিপক্ষে। তবে ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রথম হ্যাটট্রিকটি করে এগিয়ে আছেন জোবে। সে ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেই থামেননি ২২ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। করেছিলেন ৪ গোল। কুমিল্লায় ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে হ্যাটট্রিক করে ৬-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন আরামবাগকে।

বাংলাদেশে এবার দ্বিতীয় মৌসুম খেলছেন জোবে। সর্বশেষ বাতিল হওয়া মৌসুমে ৫ ম্যাচে ৪ গোল করে ঝলকটা কেবল দেখাতে শুরু করলেই করোনার জন্য লিগ বন্ধ হয়ে যায়। এবার ১২ ম্যাচে ১২ গোল। সর্বোচ্চ গোলদাতা হতে পারবেন? জোবে, ‘প্রতিটা স্ট্রাইকারই সেরা গোলদাতা হতে চাই। তবে সেরা গোলদাতা হওয়াটাই মূল লক্ষ্য নয়। সেরা গোলদাতা হওয়ার লড়াইয়ে আমার সঙ্গে বসুন্ধরার একজন মিডফিল্ডার ও স্ট্রাইকার আছেন। টেবিলে বসুন্ধরার চেয়ে আমরা ৮ পয়েন্ট পিছিয়ে আছি। দ্বিতীয় পর্বে প্রতিটা ম্যাচেই জিততে হবে আর সে জন্য আমাকে গোল করতে হবে। কিন্তু আপনি কতটি গোল করবেন, সেটা বলা কঠিন।’ আরও হ্যাটট্রিকের আশা দেখাচ্ছেন তিনি, ‘আমি আরও হ্যাটট্রিক করতে পারি। বসুন্ধরা কিংসের বিপক্ষেও হ্যাটট্রিকটা আসতে পারে।’

default-image

সরাসরি সেরা গোলদাতা হওয়ার লড়াইটা মুখে জমিয়ে না তুললেও বসুন্ধরার দুজন যে তাঁর সঙ্গে লড়াইয়ে আছেন, সেটি বলতে তো ভুল করেননি জোবে। সে দুজনের একজন বসুন্ধরার নাম্বার নাইন বেসেরা। আর্জেন্টাইন এই স্ট্রাইকারের সবচেয়ে বড় গুন বুঝি গোলের ধারাবাহিকতা। ফেডারেশন কাপে পাঁচ ম্যাচে পাঁচ গোল করে যৌথভাবে সেরা গোলদাতা হয়েছিলেন। লিগে ১২ ম্যাচে ১১ গোল। মাঠে গোল করার মতো কথার মধ্যে কোনো আক্রমণাত্মক মেজাজ নেই বেসেরার, ‘আমি এখন পর্যন্ত যা করেছি তাতে খুশি। সামনে আরও কতটি গোল করব, নির্দিষ্ট কোনো সংখ্যার লক্ষ্য নেই। যতটা সম্ভব গোল করে এগিয়ে থাকতে চাই।’

মিডফিল্ডার হয়েও ৯ গোল করে রেসে টিকে আছেন সাইফের ওকোলি। ১৮-১৯টি গোল করে লিগ শেষ করতে পারলেই তিনি খুশি বলে জানিয়েছেন। লক্ষ্যটা আরও বেশি নয় কেন? ওকোলির জবাব, ‘আমি যদি বলি ২৫ গোল করতে চাই। কিন্তু পারলাম না। সেটা বলার চেয়ে যেটা পারব সেটা বলাই ভালো।’

বাংলাদেশ লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতা (সেরা দশ)

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন