বিজ্ঞাপন
default-image

দুই অর্ধে প্রায় ভিন্ন দুটি একাদশ খেলিয়েছেন জেমি ডে। প্রথমার্ধের ৪১ মিনিটে সুলাইমানের গোলে পিছিয়ে পড়ে জাতীয় দল। ম্যাচের ৫৯ মিনিটে আত্মঘাতী গোলে ২–০। তবে তিন মিনিটের ব্যবধানে দ্রুতই দুই গোল করে ম্যাচে ফিরে আসে জাতীয় দল।

৬৫ মিনিটে বদলি ইয়াসিন আরাফাতের প্রথম গোলটি ছিল দারুণ। বাঁ প্রান্তে বক্সের ওপর থেকে ডান পায়ের জোরালো শটে দূরের পোস্ট দিয়ে বল জালে জড়ান এই লেফটব্যাক। ৬৮ মিনিটে মেহেদীর গোলটি বক্সের বাইরে থেকে ডান পায়ের শটে।

default-image

গত কয়েক দিনের অনুশীলন দেখে ধারণা করা যাচ্ছিল, জাতীয় দলকে নতুন কৌশলে খেলাতে চান কোচ জেমি ডে। আজকের ম্যাচে সেই ধারণা আরও জোরালো হলো। রক্ষণে শক্তি বাড়াতে তিন সেন্টারব্যাকের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় গিয়েছেন জেমি।

নতুন ফরমেশনটা ৫–৪–১। প্রায় তিন বছরের বাংলাদেশ অধ্যায়ে জেমি আগে কখনো এমন পরিকল্পনা নিয়ে এগোননি। তবে গত মার্চে নেপালে তিন জাতি টুর্নামেন্টের ফাইনালের প্রথমার্ধে ২–০ গোল হজম করে বাধ্য হয়ে দ্বিতীয়ার্ধে তিন সেন্টারব্যাক খেলান কোচ।

default-image

আজ জেমির প্রথম একাদশে গোলরক্ষক আনিসুরের সামনে ছিলেন তিন সেন্টারব্যাক তপু বর্মণ, মেহেদি হাসান ও তারিক রায়হান। দুই ফুলব্যাক রিমণ হোসেন ও রহমত মিয়া। মধ্যমাঠে জামাল ভূঁইয়া ও মাসুক মিয়া, ডান প্রান্তে মতিন মিয়া ও বাঁয়ে রাকিব হোসেন। একমাত্র স্ট্রাইকার সুমন রেজা। প্রথমার্ধে শুধু রাকিবের জায়গায় বদলি হিসেবে নামানো হয় বিপলু আহমেদকে।

দ্বিতীয়ার্ধে সেন্টারব্যাক মেহেদী ও উইঙ্গার বিপলু রেখে বাকি নয়জনকে বদলে নতুন নয়জনকে নামান জেমি। ২৫ জনের দল থেকে শুধু খেলানো হয়নি গোলরক্ষক রাসেল মাহমুদকে। এ ছাড়া মোহাম্মদ ইব্রাহিম ও মাহবুবুর রহমান করোনায় আক্রান্ত। অসুস্থ থাকায় খেলেননি মোহাম্মদ আবদুল্লাহও।

আগামীকাল সকালে কাতারগামী বিমানে উঠবেন জামাল ভূঁইয়ারা। সেখানে কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে না ফুটবলারদের। করোনা পরীক্ষায় নেগেটিভ হলেই অনুশীলন শুরু করা যাবে। ৩ জুন বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ আফগানিস্তানের সঙ্গে। ৭ ও ১৫ জুন যথাক্রমে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত ও ওমান।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন