গত সোমবার ভূমিষ্ঠ হওয়া যমজ সন্তানের মধ্যে ছেলেসন্তানটিকে বাঁচিয়ে রাখতে পারেননি রোনালদো। মেয়ে শিশুটি ভালো আছে। খবরটা সেদিনই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সবাইকে জানিয়ে ফুটবল থেকে দূরে ছিলেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফরোয়ার্ড।

শুধু নিজে শোক কাটিয়ে ওঠা নয়, বান্ধবী জর্জিনা রদ্রিগেজকেও তো এত বড় ধকল সইবার শক্তি জোগাতে হবে! মঙ্গলবার লিভারপুলের মাঠে ৪–০ গোলে বিধ্বস্ত হওয়ার ম্যাচে রোনালদোকে তাই ইউনাইটেড স্কোয়াডে দেখা যায়নি। ছুটি নিয়েছিলেন।

কিন্তু পরের দিনই আবার অনুশীলনে ফিরেছেন ৩৭ বছর বয়সী পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড। যে সন্তানকে হারিয়েছেন, তার দুঃখ তো কখনোই যাবে না। যতই বুকে চাপা দেওয়ার চেষ্টা করুন, সেটি হৃদয়ে কতটা রক্ত ঝরাবে, সে শুধু রোনালদো আর জর্জিনাই বুঝতে পারবেন। তবে জীবনও তো থেমে থাকে না। যে সন্তান বেঁচে আছে, তাকে নিয়েই তাই এগিয়ে চলার আশা রোনালদোর।

সদ্যোজাত মেয়ের সঙ্গে পুরো পরিবারের ছবি দিয়ে ইনস্টাগ্রাম পোস্টে রোনালদো লেখেন, ‘জিও (জর্জিনা) আর আমাদের ছোট্ট মেয়ে আমাদের সঙ্গে ঘরে ফিরেছে।...এখন সময় যে জীবনটাকে আমরা পৃথিবীতে স্বাগত জানাতে পেরেছি, সেটির জন্য কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সামনে এগিয়ে যাওয়ার।’

এরপরই অনুশীলনে ফেরেন রোনালদো। লিগে আজ আর্সেনালের মাঠেও নামছেন। ইউনাইটেডের অন্তবর্তীকালীন কোচ রালফ রাংনিক কাল সংবাদ সম্মেলনে রোনালদোর মাঠে ফেরার খবরটি নিশ্চিত করেন, ‘ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো মাঠে ফিরেছে। সে আমাদের সঙ্গে অনুশীলন করছে। স্কট ম্যাকটমিনেও ফিরেছে এবং খেলার মতো ফিট। ফিরেছে রাফায়েল ভারানও। বাকিরা চোটে পড়েছে। পল পগবার স্ক্যান করানোর পর এই মৌসুমে তাকে আর না পাওয়াটা মোটামুটি নিশ্চিত।’

default-image

ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ক্লাবটিতে দুই মেয়াদ মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৯৯ গোল করেছেন রোনালদো। এ প্রতিযোগিতায় শত গোলদাতাদের অভিজাত সারিতে নাম লেখাতে আর এক গোল চাই রোনালদোর। শুধু কী তাই, শোক কাটিয়ে চেনা জীবনে ফিরতেও তো গোল চাই তাঁর!

আর্সেনালের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত চার গোল পাওয়া পর্তুগিজ তারকার ওপর আশা রাখতেই পারে ইউনাইটেড। শীর্ষ চারে থেকে মৌসুম শেষ করার লড়াইয়েও টিকে থাকার চ্যালেঞ্জ রাংনিকের দলের সামনে।

৩৩ ম্যাচে ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে ছয়ে ইউনাইটেড। তাদের চেয়ে এক ম্যাচ কম খেলে চতুর্থ টটেনহামের সংগ্রহ ৫৭ পয়েন্ট। আর্সেনালের সংগ্রহও ৩২ ম্যাচে ৫৭ পয়েন্ট। টটেনহামের সঙ্গে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে পাঁচে আর্সেনাল। অর্থাৎ এমিরেটস স্টেডিয়ামে শুধু জয়ই শীর্ষ চারে থেকে রোনালদোদের মৌসুম শেষের আশা জিইয়ে রাখতে পারে।

default-image

তবে দুশ্চিন্তার জায়গাও আছে। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর থেকে এমিরেটস স্টেডিয়ামে কোনো লিগ ম্যাচ জিততে পারেনি ইউনাইটেড। ভারান ফেরায় স্বস্তি পেতে পারেন রাংনিক। এই মৌসুমে ইউনাইটেডের হারা ৯টি লিগ ম্যাচের মধ্যে ৭ ম্যাচেই ফরাসি ডিফেন্ডারকে পায়নি ইউনাইটেড।

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন