বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

বার্সেলোনার জন্য মূল সমস্যা হয়ে উঠেছিল স্বল্পমেয়াদি ঋণ। সম্প্রতি দীর্ঘমেয়াদি ঋণ নিয়ে সে সমস্যার অনেকটাই দূর করেছে বার্সেলোনা। এরই মধ্যে ম্যানচেস্টার সিটি থেকে ফেরান তোরেসকে ৫ কোটি ৫০ লাখ ইউরো দিয়ে কিনে এনেছে তারা। তবে তাঁকে কবে মাঠে নামানো যাবে, এ প্রশ্নের উত্তর দেওয়া যাচ্ছে না। ক্লাবের বেতন খরচ সীমার ওপরে থাকায় নতুন খেলোয়াড় নিবন্ধন করা যাচ্ছে না। এ কারণেই দানি আলভেজকেও খেলাতে পারছে না বার্সেলোনা।

এ সমস্যার মধ্যেও ক্লাবের সদস্যরা ক্লাবের স্টেডিয়াম পুনর্নির্মাণের জন্য ১৫০ কোটি ইউরো ব্যয়ের প্রস্তাব পাস করেছেন। তোরেসের পর স্পেন জাতীয় দলের আরেক খেলোয়াড়কেও দলে টানতে চাইছে বার্সা। জুভেন্টাস থেকে আলভারো মোরাতাকে ধারে টানতে চাইছে কাতালান ক্লাবটি।

তবে বার্সেলোনার সোনালি দিনে ফেরার হুংকার তো আর মোরাতার দলবদল দিয়ে হবে না, এ জন্য চাই সত্যিকারের মহাতারকা। আর বাতাসে গুঞ্জন, আগামী দলবদলে হালের সেনসেশন আর্লিং হরলান্ডকে দলে নেবে বার্সেলোনা। নরওয়েজিয়ান এই স্ট্রাইকারকে পেতে চায় বিশ্বের সব বড় ক্লাব। তবে ইদানীং শোনা যাচ্ছে হরলান্ড স্পেনে খেলতেই আগ্রহী। বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদের মধ্যে এ দৌড়ে অনেকে রিয়ালকে এগিয়ে রাখছেন। হাজার হলেও আর্থিক দিকটায় রিয়ালই এখন এগিয়ে।

কিন্তু রিয়ালের মূল মনোযোগ কিলিয়ান এমবাপ্পেকে ঘিরে। ক্লাবের আক্রমণভাগে বেনজেমা ও ভিনিসিয়ুসের জায়গা নিশ্চিত। এ অবস্থায় এমবাপ্পে যোগ দিলে হরলান্ডের জায়গা কোথায় একাদশে? এ দিক থেকেই নাকি বার্সেলোনা দৌড়ে এগিয়ে যাচ্ছে, যদিও হরলান্ডের দলবদলের সম্ভাবনা নিয়ে লাপোর্তা কথা বলেছেন অনেক ঘুরিয়ে–পেঁচিয়ে, ‘আমি কোনো নির্দিষ্ট নাম নিয়ে কথা বলব না। এটা কোনো কাজে আসবে না। এটা তাদের দাম বাড়িয়ে দেয়। যেকোনো কিছুই সম্ভব। আমরা বাজারে ঢুকেছি এবং অপেক্ষা করছি। বার্সেলোনা একটা লক্ষ্যমাত্রা। সব খেলোয়াড়ই বার্সেলোনায় আসার কথা ভাবে।’

দলবদলের বাজার থেকে আরও চমকের আশা দেখাচ্ছেন লাপোর্তা, ‘আরও কিছু দলবদলের কথা ভাবছি আমরা। সেগুলো জানাব। আমরা খুব ঠান্ডা মাথায় কাজ করছি। শীতকালীন দলবদলে নতুন কাউকে দলে নেওয়ার কাজ ভালোভাবেই এগোচ্ছে। আর পরের মৌসুমের জন্যও কাজ করা হচ্ছে।’

ফেরান তোরেসকে বার্সেলোনার খেলোয়াড় হিসেবে আজ পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন লাপোর্তা। শুধু তোরেসকে পেয়েই যে বার্সেলোনা সন্তুষ্ট থাকবে না, সেটা জানিয়েছেন লাপোর্তা, ‘কোচিং দল যেসব জায়গার কথা বলেছে, যেসব জায়গা শক্তিশালী করার চেষ্টা করছি। আজ আমাদের ফেরান আছ। সে ভ্যালেন্সিয়া থেকে এসেছে, এতে আমরা খুশি। কারণ, কাতালান আর ভ্যালেন্সিয়ার লোকজন জ্ঞাতি ভাই। দলবদলের বাজারে বার্সেলোনা একটা বেঞ্চমার্ক। সব খেলোয়াড় আমাদের আদর্শ ভাবে।’

শিগগিরই বার্সেলোনা আবারও ভয়জাগানো দল হয়ে উঠবে বলে জানিয়েছেন লাপোর্তা, ‘আমাদের দল এখন পুনর্গঠনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে, খুব দ্রুত পুনর্জন্ম দেখব। ফেরান এরই প্রমাণ। একজন শীর্ষ মানের খেলোয়াড় যখন বার্সেলোনায় আসতে চায়, তার মানে পুনর্জন্ম বাস্তবেই হচ্ছে। সবাই প্রস্তুত হন। আমরা ফিরছি।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন