কাল রাতে মেক্সিকোর বিপক্ষে দেশের জার্সিতে মেম্ফিস ডিপাই।
কাল রাতে মেক্সিকোর বিপক্ষে দেশের জার্সিতে মেম্ফিস ডিপাই। ছবি: টুইটার

লিওনেল মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার খবরের নাটকের সমাপ্তি হয়েছে। তবুও পরিপূর্ণ নয় বার্সার ফরোয়ার্ড লাইন। গত মৌসুম থেকে ভালো একজন স্ট্রাইকারের অভাবে ধুঁকছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা। এই মৌসুমে দলে নেওয়ার জন্য দুজন স্ট্রাইকারের ওপরে ছিল তাদের চোখ। একজন ইন্টার মিলানের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার লওতারো মার্তিনেজ ও দ্বিতীয়জন অলিম্পিক লিওঁর ফরোয়ার্ড মেম্ফিস ডিপাইকে।

এঁদের মধ্যে ডিপাইয়ের সঙ্গে চুক্তির কাছাকাছি পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েও তাঁকে দলে ভেড়াতে পারেনি বার্সেলোনা। বার্সেলোনার সঙ্গে চুক্তিটা হয়েই গিয়েছিল বলে জানিয়েছেন ডিপাই। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে শেষ পর্যন্ত আলোর মুখ দেখেনি বার্সা-ডিপাই অধ্যায়। নিজের দেশের গণমাধ্যমের কাছে পুরো ব্যাপারটা ব্যাখ্যা করেছেন ডিপাই নিজেই।

বিজ্ঞাপন

কাল রাতে ঘরের মাঠে মেক্সিকোর মুখোমুখি হয়েছিল হল্যান্ড। ম্যাচে ১-০ গোলে হেরে যায় স্বাগতিকেরা। ম্যাচ শেষে স্থানীয় এক টিভি চ্যানেলের কাছে নিজের বার্সেলোনা চুক্তির ব্যাপারে কথা বলেছেন ডিপাই। পুরো বিষয়টি খুলে না বললেও, যা বলেছেন তাই-বা কম কিসের, ‘চুক্তিটি প্রায় সম্পন্নই হয়ে গিয়েছিল। আমি পুরো বিষয়টি বলতে চাচ্ছি না। তবে এটি মূলত সম্পন্ন হয়ে গিয়েছিল। দুর্ভাগ্যক্রমে কিছু ঘটেছিল। জীবনে এমন ঘটে।’

অলিম্পিক লিওঁর জার্সিতে শেষ মৌসুমটা দুর্দান্ত কেটেছে ডিপাইয়ের। ক্লাব ফুটবলের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে খেলেছে তাঁর দল। আর নেদারল্যান্ডস দলে রোনাল্ড কোমানের অধীনে দুর্দান্ত খেলেছেন গত কিছুদিন। সেই কোমান এখন বার্সেলোনার কোচ। তাই ডিপাইয়ের ওপর নজর পড়ে কাতালানদের।

যেহেতু ক্লাব বদল হয়নি, তাই বর্তমান ক্লাবের হয়েই আবার মাঠের খেলায় নজর দিতে চান ডাচ স্ট্রাইকার, ‘লিওঁর গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হিসেবে আবার সব মনোযোগ ক্লাবেই দিতে চাই। যদিও দেখতে থাকব কী ঘটে। কেউ জানে না ভবিষ্যতে কী হতে পারে।’

আপাতত ক্লাব বদলের বিষয়টি থেমে গেলেও ভবিষ্যতের জন্য তো খোলায় থাকছে। ২৬ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড ভালো করেই জানেন পারফরম্যান্স ধরে রাখতে পারলে তাঁকে দলে নেওয়ার জন্য আবার এগিয়ে আসবে ক্লাবগুলো, ‘যদি আমি আমার মতো করে খেলে যেতে পারি ক্লাবগুলো আমাকে নেওয়ার জন্য আবারও আগ্রহ দেখাবে এবং সে সময়ে বিষয়গুলো আবারও ঘটে থাকতে পারে।’

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন