২০১৮ সালে গোলরক্ষক সোহেলের হাস্যকর এক ভুলে বড় মাশুল দিয়েছে বাংলাদেশ।
২০১৮ সালে গোলরক্ষক সোহেলের হাস্যকর এক ভুলে বড় মাশুল দিয়েছে বাংলাদেশ।ফাইল ছবি: প্রথম আলো

কাল বিকেলে কাঠমান্ডুর আর্মি গ্রাউন্ডের মাঠে নেপালের বিপক্ষে ম্যাচের শেষ প্রস্তুতি নিচ্ছিল বাংলাদেশ দল। অনুশীলনের ধরন অনুযায়ী বোঝা যাচ্ছিল আজকের ম্যাচে পোস্টের নিচে দাঁড়াতে যাচ্ছেন শহিদুল। শেষ পর্যন্ত আজ একাদশে থেকে খেলছেনও তিনি।

বিশ্ব ফুটবলে গোলরক্ষকদের হাস্যকর ভুলের উদাহরণ আছে অহরহ। কিন্তু নির্দিষ্ট কোনো প্রতিপক্ষের বিপক্ষে একই গোলরক্ষকের বারবার ভুলের উদাহরণ থাকতে পারে হাতে গোনা! এখানে ব্যতিক্রম শহিদুল। নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ হলেই কাকতলীয়ভাবে দৃষ্টিকটু ভুল করে বসেন তিনি। তাঁর দৃষ্টিকটু ভুলের কারণেই নেপালের বিপক্ষে হেরে দুটি সাফের (২০১১ ও ২০১৮) গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

২০১৮ সালে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শহিদুলের হাস্যকর ভুলের দৃশ্য এখনো ভুলে যাওয়ার কথা নয়। গ্রুপের প্রথম দুই ম্যাচে ভুটান ও পাকিস্তানকে হারিয়ে সেমিফাইনালে এক পা দিয়ে রেখেছিল বাংলাদেশ। গ্রুপের শেষ ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে ড্র করলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে বাংলাদেশের শেষ চার নিশ্চিত। উল্টো ২–০ গোলে হেরে বাংলাদেশের বিদায়। বাংলাদেশ প্রথম গোলটি হজম করেছিল শহিদুলের শিশুসুলভ ভুলে। ম্যাচের ৩৩ মিনিটে প্রায় ৩৫ গজ দূর থেকে নেওয়া নেপালি ফরোয়ার্ড বিমল ঘাতরি মাগারের শট শহিদুল গ্রিপে নিতে গিয়ে হাত ফসকে বের হয়ে জালে জড়িয়ে যায়।

এর আগের ভুলটি ২০১১ সালে ভারতের মাটিতে। গোলশূন্য ড্র থাকা অবস্থায় ৯৫ মিনিটে সাগর থাপার ফ্রি–কিকের গোলে ১–০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে নেপাল। মাঝমাঠের একটু ওপর থেকে ফ্রি–কিক নিয়েছিলেন নেপাল ডিফেন্ডার সাগর। শহিদুল পোস্ট ছেড়ে বেশি এগিয়ে থাকায় সে বলের নাগাল পাননি।

default-image

অতীত ভুলিয়ে দিতে চান শহিদুল। নিজেও বুঝতে পারছিলেন আজকের ম্যাচের তাঁর খেলার সম্ভাবনা বেশি। কাল এই প্রতিবেদককে বলছিলেন, ‘আগে যা ভুল হয়েছে, সেখান থেকে আমি শিখেছি। ওই রকম ভুল আর হবে না।’ শহিদুল জাতীয় দলের হয়ে শেষ ম্যাচটি খেলেছিলের ২০১৯ সালের অক্টোবরে ভুটানের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে।

কিরগিজস্তান অনূর্ধ্ব–২৩ দলের বিপক্ষে ম্যাচ থেকে আজ পুরোপুরি ভিন্ন একাদশ নিয়ে স্বাগতিক নেপালের বিপক্ষে মাঠে নামতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। কাঠমান্ডুর দশরথ রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময়ে সন্ধ্যা পৌনে ছয়টায়। এক ম্যাচ হাতে রেখেই ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: শহিদুল আলম, ইয়াসিন আরাফাত, মেহেদী হাসান, রিয়াদুল হাসান, মোহাম্মদ ঈমন, জামাল ভূঁইয়া, মানিক হোসেন, রাকিব হোসেন, মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, সুমন রেজা ও মাহবুবুর রহমান।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন