এমন দৃশ্য নিয়মিত দেখতে চাইবেন জুভ সমর্থকেরা।
এমন দৃশ্য নিয়মিত দেখতে চাইবেন জুভ সমর্থকেরা। ছবি : রয়টার্স

মাসিমিলিয়ানো আলেগ্রি থেকে মরিজিও সারি— গত দুই মৌসুমে জুভেন্টাসের ম্যানেজার যে-ই থাকুক না কেন, একটা বিষয়ে মিল ছিল দুজনেরই। দুজনের দলেরই মূল খেলোয়াড় ছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। কথায় বলে, সকাল দিনের পূর্বাভাস দেয়। সেটা যদি সত্যি মানা হয়, তবে বলা যায় নতুন কোচ আন্দ্রেয়া পিরলোর অধীনেও সেটার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। পিরলোর দলও জিতছে রোনালদোর গোলের সাহায্যে।

তবে শুধু রোনালদো নন, গতকাল জুভেন্টাসকে জিততে সাহায্য করেছেন দলে নতুন আসা সুইডিশ তারকা দেয়ান কুলুসেভস্কি ও সেন্টারব্যাক লিওনার্দো বোনুচ্চি-ও। সব মিলিয়ে সাম্পদোরিয়ার বিপক্ষে জুভেন্টাসের জয়টা ৩-০ গোলের।

default-image
বিজ্ঞাপন

এসি মিলান থেকে খেলোয়াড় পিরলো যখন জুভেন্টাসে যোগ দিয়েছিলেন, কোচ আন্তোনিও কন্তে তাঁকে মধ্যমণি করে দল সাজাতেন ৩-৪-১-২ বা ৩-৪-৩ ছকে। পিরলোর এই জুভেন্টাসেও ফিরে এসেছে সেই স্বাদ। ৩-৪-১-২ ছকে খেলেছে জুভেন্টাস। গোলরক্ষক ওজিয়েক সেজনির সামনে তিন ডিফেন্ডার দানিলো, বোনুচ্চি ও জর্জো কিয়েল্লিনি, দুই উইংব্যাক হুয়ান কুয়াদ্রাদো আর জিয়ানলুকা ফাব্রোত্তার মাঝে দলে নতুন আসা আমেরিকান তারকা ওয়েস্টন ম্যাকেনি ও ফরাসি মিডফিল্ডার আদ্রিয়েন রাবিওতের একটু সামনে ওয়েলশ মিডফিল্ডার অ্যারন র‍্যামসি। সামনে দুই স্ট্রাইকার হিসেবে খেলেছেন কুলুসেভস্কি ও রোনালদো।

প্রথম থেকেই উজ্জ্বল ছিলেন রোনালদো। প্রথমার্ধে তার বাম পায়ের জোরালো শট লাগে গোলপোস্টে। পাশে অভিষিক্ত কুলুসেভস্কিও প্রতিভার ঝলক দেখিয়েছেন। গত মৌসুমে পারমার হয়ে আলো ছড়ানো এই তারকা নিজের প্রথম ম্যাচেই পেয়েছেন গোল। বল নিয়ে বক্সের ভেতর ঢুকতে গেলে রোনালদোকে বাধা দিয়েছিলেন সাম্পদোরিয়ার লেফটব্যাক টমাসো আগুয়েয়ো, রোনালদো পরে গেলেও বল চলে যায় কুলুসেভস্কির পায়ে। ২০ বছর বয়সী বাঁ পায়ের নিখুঁত এক বাঁকানো মাটি ঘেঁষা শটে বল জড়িয়ে দেন দূরের পোস্টে।

default-image
বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয় গোলে অবদান আছে আবার আরেক অভিষিক্ত ম্যাকেনির। এই মৌসুমে জার্মান ক্লাব শালকে থেকে জুভেন্টাসে ধারে আসা এই তরুণ ৭৮ মিনিটে গোলমুখে শট করলে আটকে দেন সাম্পদোরিয়ার গোলরক্ষক এমিল অদেরো। সামনে ওঁত পেতে থাকা ডিফেন্ডার লিওনার্দো বোনুচ্চির গোল করতে সমস্যা হয়নি। সবার শেষে গোলের মঞ্চে আগমন ঘটে রোনালদোর। ৮৮ মিনিটে তৃতীয় গোলটি করেছেন এই পর্তুগিজ তারকা। ওয়েলশ মিডফিল্ডার অ্যারন র‍্যামসির বাড়িয়ে দেওয়া বল ধরে বক্সের ভেতর ঢুকে কোনাকুনি শট করে মৌসুমের প্রথম গোল করেন রোনালদো। আর তাতেই স্বস্তির জয় নিয়ে লিগ মৌসুম শুরু করে টানা নয় বারের চ্যাম্পিয়নরা।

মন্তব্য পড়ুন 0