জোড়া গোল করেছেন এমবাপ্পে।
জোড়া গোল করেছেন এমবাপ্পে।ছবি : রয়টার্স

ছয় বছর আগে মাত্র ১৬ বছর বয়সে যে কিশোর ফরাসি লিগ আঁ–তে আলো ছড়ানো শুরু করেছিলেন, সে কিশোর এখন ২২ বছরের টগবগে তরুণ। ছয় বছরের এই যাত্রায় বিশ্বকাপ, লিগ, কাপসহ জিতেছেন অনেক কিছুই। অনেকের দৃষ্টিতেই মেসি-রোনালদোর পর ফুটবল বিশ্ব শাসিত হবে এই ফরাসি স্ট্রাইকারের হাতে।

তিনি কিলিয়ান এমবাপ্পে। নিজের ঈর্ষনীয় সাফল্যের খাতায় গতকাল রাতে আরেকটি পাতা যোগ করলেন এই তারকা। ফরাসি লিগে ১০০ গোল হয়ে গেছে তাঁর।

অলিম্পিক লিওঁর বিপক্ষে গত রাতে মাঠে নামার আগেই এমবাপ্পেরা জানতেন, ম্যাচ জিতলেই লিগের শীর্ষে উঠে যাওয়া যাবে। কারণ, লিগের শীর্ষে থাকা লিল অপ্রত্যাশিতভাবে হেরে বসেছে আগেই। নিমের বিপক্ষে তাঁদের পরাজয়টা ছিল ২-১ গোলের। শুধু দলগত লক্ষ্যই যে মাথায় ছিল এমবাপ্পের, তা নয়; ব্যক্তিগত এক মাইলফলক স্পর্শের অপেক্ষাতেও ছিলেন। দুটি লক্ষ্যই পূরণ হয়েছে ভালোভাবে। জোড়া গোল করেছেন এমবাপ্পে, ওদিকে পিএসজিও মাঠ ছেড়েছে ৪-২ গোলের জয় নিয়ে। জোড়া গোল করে ফরাসি লিগে নিজের গোলের সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন এমবাপ্পে। লিগ টেবিলের শীর্ষে এখন নেইমার-এমবাপ্পের দল।

বিজ্ঞাপন

তবে ম্যাচের শেষ দিকে চোটে পড়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠ ছেড়েছেন এমবাপ্পে। ফলে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের আসন্ন ম্যাচগুলো খেলতে পারবেন কি না, সন্দেহ দেখা গিয়েছে। তবে যেখানে এমবাপ্পে পিএসজি–সমর্থকদের চিন্তা বাড়িয়েছেন, স্বস্তি দিয়েছেন নেইমার। এই ম্যাচেই এমবাপ্পের বিকল্প হিসেবে মাঠে নেমেছেন নেইমার, ফিরেছেন চোট থেকে।

default-image

ম্যাচের ১৫ মিনিটে এমবাপ্পের গোলে এগিয়ে যায় পিএসজি। ৩২ মিনিটে দলের অধিনায়ক মার্কিনিওসের সহায়তায় পর্তুগিজ মিডফিল্ডার দানিলো পেরেইরা ব্যবধান বাড়ান। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই গোল করে ব্যবধানটা আরেকটু বাড়ান আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডার আনহেল দি মারিয়া। ৫২ মিনিটে ইতালিয়ান মিডফিল্ডার মার্কো ভেরাত্তির পাস থেকে দুর্দান্ত প্রতি–আক্রমণে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন এমবাপ্পে।

ততক্ষণে গুঞ্জন শুরু হয়ে গিয়েছে, আর কতগুলো গোল দেবে পিএসজি? লিওঁকে আরও বড় লজ্জায় ডোবাবে তারা? ঠিক এই পরিস্থিতিতে লিওঁর যেন আড়মোড়া দিয়ে ঘুম ভাঙে। সিদ্ধান্ত নেয়, আর নয়। নিজেদেরও কিছু দেখানো বাকি!

default-image

৬২ মিনিটে ফরাসি উইঙ্গার ম্যাক্সওয়েল করনেতের সহায়তায় গোল করেন বিকল্প হিসেবে মাঠে নামা আলজেরিয়ান স্ট্রাইকার ইসলাম স্লিমানি। ৮২ মিনিটে নিজেই গোল করে বসেন করনেত, রায়ান চেরকির সহায়তায়। তবে লিওঁর দ্বিতীয় গোলের আগেই পিএসজিকে আরও বড় চিন্তায় ফেলে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যান এমবাপ্পে। এমবাপ্পে মাঠ থেকে উঠে আসার পর সে নিয়ে চিন্তার কারণেই কি না, ম্যাচের শেষ দিকে পিএসজির রক্ষণ অতটা জমাট ছিল না।

এমবাপ্পের চোট যে বেশি গুরুতর, বলা যাবে না। জানা গেছে, মাংসপেশির সামান্য চোটে পড়েছেন এই তারকা। আন্তর্জাতিক বিরতির পর এই লিলের বিপক্ষেই মাঠে নামবে পিএসজি।

বিজ্ঞাপন
ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন