default-image

বায়ার্ন মিউনিখ, লিভারপুল ও ম্যানচেস্টার সিটিতে খেলা এই মিডফিল্ডারের কাছে হরলান্ডের কর্মকাণ্ড সার্কাসের চেয়ে কম কিছু মনে হচ্ছে না।

জার্মান সংবাদমাধ্যম বিল্ডকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে হামান বলেছেন, হরলান্ড না থাকলে একদিক দিয়ে ডর্টমুন্ডের জন্য ভালোই। হরলান্ড আসার আগে লেভানডফস্কি, আলসাসের, দেম্বেলে, সানচো, বারিওসের মতো অনেক খেলোয়াড়ই ডর্টমুন্ডে খেলে গেছে, যারা গোল করার কাজে দক্ষ ছিল। হামান সেদিকেই ইঙ্গিত করে বলেছেন, ‘আমার মনে হয় শুধু সমর্থকেরাই নয়, ক্লাব আর খেলোয়াড়েরাও হরলান্ডের সার্কাসে বিরক্ত। ডর্টমুন্ডে হরলান্ড থাকুক বা না থাকুক, খেলোয়াড়েরা গোল করবেই। এটা সব সময়ই হয়ে এসেছে। আমার মনে হয় হরলান্ড না থাকলেও স্বল্পমেয়াদে ডর্টমুন্ড ভালোই করবে।’

শুধু তা-ই নয়, হরলান্ডের কিছু কিছু কর্মকাণ্ড দেখে হামানের মনে হয়েছে, ডর্টমুন্ডকে অসম্মান করছেন এই নরওয়েজিয়ান স্ট্রাইকার, ‘ও নিজের ওপর মানুষের মনোযোগ ধরে রাখতে চায়। একবার দেখা গেল সুদ ত্রিবুনের (ডর্টমুন্ড গ্যালারির একাংশ) সামনে একা একাই “ল্যাপ অব অনার” দিল। ওর হাত নাড়ানো, অভিব্যক্তি—সবকিছু দেখেই মনে হচ্ছিল ও সমর্থকদের অসম্মান করছে।’

হরলান্ডের চোট সমস্যার কথাও তুলে ধরেছেন সাবেক এই মিডফিল্ডার, ‘ও অনেক ম্যাচে চোটের কারণে খেলতে পারেনি। তবে আপনাকে মনে রাখতে হবে, ও একাদশে থাকার পরও ডর্টমুন্ড অনেক ম্যাচ হেরেছে। এ কারণেই আমার মনে হয় অন্য কোনো দলে গেলেই ওর জন্য ভালো। ডর্টমুন্ডও ওকে বিক্রি করা অর্থ দিলে নিজেদের অনেক কাজে লাগাতে পারবে।’

default-image

হরলান্ড চলে গেলে দলে থাকা বেশ কিছু খেলোয়াড় উন্নতি করতে পারবেন বলে মনে করেন হামান, ‘হরলান্ড না থাকাটাও ডর্টমুন্ডের জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ। হয়তো দনিয়েল মালেনের মতো স্ট্রাইকার যাওয়ার পর ভালো খেলা শুরু করবে। হরলান্ড থাকার কারণে যে ঠিকভাবে গোল করতে পারছে না। আমি বিশ্বাস করি, হরলান্ড ছাড়াও ডর্টমুন্ড যে খেলোয়াড়দের দলে এনেছে, তা দিয়েই আগামী মৌসুমে ওরা অনেক ভালো করতে পারবে।’

ফুটবল থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন